বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Weather Update Kolkata: সন্ধ্যার পর মিলবে স্বস্তি, টানা বৃষ্টিতে জলমগ্ন কলকাতা
টানা বৃষ্টিতে জলমগ্ন কলকাতা (ছবি সৌজন্যে পিটিআই) (PTI)
টানা বৃষ্টিতে জলমগ্ন কলকাতা (ছবি সৌজন্যে পিটিআই) (PTI)

Weather Update Kolkata: সন্ধ্যার পর মিলবে স্বস্তি, টানা বৃষ্টিতে জলমগ্ন কলকাতা

বিদ্যুৎ দফতরের তরফে টোল ফ্রি ও হোয়াটস্যাপ নম্বর চালু করা হয়েছে। টোল ফ্রি নম্বর হল ১৯১২১ এছাড়া হোয়াটস অ্যাপ নম্বর ৮৯০০৭৯৩৫০৩ ও ৮৯০০৭৯৩৫০8।

দুর্যোগ যেন পিছুই ছাড়ছে না রাজ্যবাসীর। আবারও বঙ্গোপসাগরে ঘনীভূত হয়েছে নিম্নচাপ। ঘূর্ণাবর্ত শক্তিবৃদ্ধি করে নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে। সে কারণে কলকাতা ও তার পার্শ্ববর্তী অঞ্চলে ভারী বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস দিল আলিপুর আবহাওয়া দফতর। তাতেই কপালে চিন্তার ভাঁজ পড়েছে রাজ্য প্রশাসনের। ইতিমধ্যে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে উদ্যোগ নিয়েছে রাজ্য সরকার। এদিকে উত্তর থেকে দক্ষিণ, পুরো শহরই প্রায় জলগম্ন হয়েছে। তবে আজ সন্ধ্যার পর কলকাতা ও সন্নিহিত অংশে বৃষ্টিপাতের পরিমাণ কমার সম্ভাবনা রয়েছে

দুর্যোগে বেশ কয়েকটি আপৎকালীন পরিষেবা চালু করা হয়েছে। তার মধ্যে হল বিদ্যুৎ ভবনে ২8 ঘন্টা ব্যাপী কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে। এছাড়াও চালু করে দেওয়া হয়েছে টোল ফ্রি নম্বর ও হোয়াটসঅ্যাপ।

এছাড়াও ট্রান্সফর্মার, ফিডার বক্স, সাব-স্টেশনে জল জমে থাকলে, সেখানে বিদ্যুৎ পরিষেবা বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। বিদ্যুৎ দফতরের তরফে টোল ফ্রি ও হোয়াটস্যাপ নম্বর চালু করা হয়েছে। টোল ফ্রি নম্বর হল ১৯১২১ এছাড়া হোয়াটস অ্যাপ নম্বর ৮৯০০৭৯৩৫০৩ ও ৮৯০০৭৯৩৫০8।

মঙ্গলবার ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে জেলার বিদ্যুতের দায়িত্বপ্রাপ্ত আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠক করেন বিদ্যুৎমন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস।

তিনি বলেন, '১ কোটি ২৫ লক্ষ গ্রাহককে এসএমএসের মধ্যে সতর্ক করা হয়েছে। সিএসসির সঙ্গে যোগাযোগ রাখছি। ১৮৮৯ টি মোবাইল ভ্যান এবং পর্যাপ্ত টিম মোতায়েন করা হয়েছে। মাইকে প্রচার, কন্ডাক্টর, কেবল এবং ট্রান্সফর্মার পর্যাপ্ত পরিমাণে মজুত রয়েছে।'

পুর প্রশাসক মন্ডলীর চেয়ারম্যান ফিরহাদ হাকিম বলেন, 'পাম্প হাউসে লোক রাখা হচ্ছে। আমি ও তারক সিংহ গোটা বিষয়টা তদারকি করছি। কন্ট্রোল রুম খোলা থাকবে। জল নামানোর ব্যবস্থা দ্রুত করার চেষ্টা চলবে। দমকলমন্ত্রী সুজিত বসু বলেন, 'গাছ ভেঙে পড়লে ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট টিম প্রস্তুত রয়েছে। 

এ প্রসঙ্গে ফিরহাদ হাকিম জানিয়েছেন, পুর প্রশাসক সমস্ত ধরনের পরিস্থিতির মোকাবিলা করতে তৈরি হয়ে থাকছে পুরসভা। ওদিকে পুর ও নগরোন্নয়নমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য জানিয়েছেন, বৃষ্টিতে সতর্ক রয়েছি।

একইসঙ্গে বিদ্যুৎ দফতরের অতিরিক্ত মুখ্য সচিবের তরফে থেকে সব জেলার জেলাশাসক, পুলিশ সুপার, কর্পোরেশন, জেলা পরিষদ ও সিইএসসিকে পোস্ট, ফিডার বক্স, মিটার বক্স ও বিদ্যুতের তার পরীক্ষা করার জন্য নির্দেশিকা পাঠানো হয়েছে। 

এ রাজ্যে ঘূর্ণিঝড় গুলাবের প্রভাব সরাসরি না পড়লেও ঘুরপথে মঙ্গলবার দিনভর দফায় দফায় বৃষ্টিপাত হয়েছে গোটা শহর জুড়ে।এমনকী, কলকাতার উপর দিয়ে রাতের দিকে ঝড়ো হাওয়াও বয়ে গিয়েছে। তবে আপাতত পরিবেশ ঠাণ্ডা হলেও দুর্যোগের ভ্রুকুটি এখনও কেটে যায়নি। সময় যত এগোচ্ছে, ততই উদ্বেগ বাড়ছে।

প্রসঙ্গত, কয়েকদিন আগেই টানা বৃষ্টিতে একের পর এক বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। এই ঘটনা থেকে শিক্ষা নিয়ে দুর্যোগ মোকাবিলায় তৎপর হয়েছে রাজ্য প্রশাসন। যেকোনও পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রস্তুত রয়েছে বিদ্যুৎ দফতর। ২৪ ঘন্টা সাত দিনই বিদ্যুৎ ভবনে খোলা থাকবে কন্ট্রোল রুম।

 

বন্ধ করুন