বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > বীরভূমে ভোটগ্রহণের আগে অনুব্রতকে নজরবন্দি করল কমিশন
বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। ফাইল ছবি
বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। ফাইল ছবি

বীরভূমে ভোটগ্রহণের আগে অনুব্রতকে নজরবন্দি করল কমিশন

  • অনুব্রতকে নজরবন্দি করা প্রসঙ্গে রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, যে ব্যক্তি বলেন, পুলিশকে বোম মারুন। তাঁর ওপর বিধিনিষেধ না থাকলে পুলিশ ও বিরোধীদের ওপরে চাপ থাকবে। তাই তাঁকে নজরবন্দি করে একদম ঠিক করেছে কমিশন।

ফের একবার বীরভূমে ভোটগ্রহণের আগে অনুব্রত মণ্ডলকে নজরবন্দি করল নির্বাচন কমিশন। মঙ্গলবার থেকে শুক্রবার পর্যন্ত কমিশনের নজরবন্দি থাকবেন তিনি। অনুব্রতবাবু কোথায় যাচ্ছেন, কার সঙ্গে কথা বলছেন, সব ভিডিয়োগ্রাফি করার নির্দেশ দিয়েছে কমিশন। 

কমিশনের তরফে জানানো হয়েছে, মঙ্গলবার বিকেল ৫টা থেকে শুক্রবার সকাল ৭ পর্যন্ত নজরদারিতে থাকবেন অনুব্রত। তাঁর সঙ্গে থাকবেন একজন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট, কেন্দ্রীয় বাহিনীর একাধিক জওয়ান। প্রকাশ্যে অনুব্রতর যাবতীয় গতিবিধির দিন তারিখসহ ভিডিয়োগ্রাফির নির্দেশ দিয়েছে কমিশন। 

কমিশন সূত্রের খবর, ভোটের আগে অনুব্রতর বিরুদ্ধে লাগাতার হুমকি দেওয়ার অভিযোগ করেছে বিরোধীরা। প্রকাশ্যে এসেছে তার নানা বিবৃতি ও ভাষণ। তাতে বীরভূমে অবাধ ও ভয়মুক্ত ভোটগ্রহণ পরিচালনা করতে অনুব্রতকে নজরবন্দি করা একান্ত প্রয়োজন বলে মনে করেছেন কমিশনের আধিকারিকরা। ২৯ এপ্রিল বৃহস্পতিবার শেষ দফায় বীরভূমে ভোটগ্রহণ।

অনুব্রতকে নজরবন্দি করা প্রসঙ্গে রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, যে ব্যক্তি বলেন, পুলিশকে বোম মারুন। তাঁর ওপর বিধিনিষেধ না থাকলে পুলিশ ও বিরোধীদের ওপরে চাপ থাকবে। তাই তাঁকে নজরবন্দি করে একদম ঠিক করেছে কমিশন। 

বলে রাখি, এর আগেও বীরভূমে ভোটগ্রহণের সময় অনুব্রত মণ্ডলকে নজরবন্দি করেছে কমিশন। এবার কমিশনের নির্দেশ নিয়ে এখনো মুখ খোলেননি তিনি। 

গরুপাচার কাণ্ডে মঙ্গলবার অনুব্রতকে নিজাম প্যালেসে হাজিরা দেওয়ার কথা ছিল অনুব্রতর। কিন্তু সিবিআইকে তিনি জানিয়েছেন, করোনা পরিস্থিতিতে বাড়ির বাইরে বেরোতে পারবেন না তিনি। 

 

বন্ধ করুন