বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > দলের অন্দরের খবর বাইরে বেরিয়ে যাচ্ছে, সংবাদমাধ্যমের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা বিজেপির
সংবাদমাধ্যমের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।
সংবাদমাধ্যমের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।

দলের অন্দরের খবর বাইরে বেরিয়ে যাচ্ছে, সংবাদমাধ্যমের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা বিজেপির

  • বঙ্গ–বিজেপির ভার্চুয়াল বৈঠক চলাকালীন বিদ্রোহ করে লগ আউট হয়ে গিয়েছিলেন বিজেপি নেত্রী রূপা গঙ্গোপাধ্যায়।

বঙ্গ–বিজেপি এবার নয়া ‘ফতোয়া’ জারি করল। এবার থেকে ৬ নম্বর মুরলিধর সেন লেনে সংবাদমাধ্যম প্রবেশ করতে পারবে না। সংবাদমাধ্যমের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। কারণ দলের অন্দরের খবর বাইরে বেরিয়ে যাচ্ছে। তাতে অস্বস্তি বাড়ছে দলের। বঙ্গ–বিজেপির নেতাদের ধারণা, সংবাদমাধ্যম পার্টি অফিসের ভিতরে ঢুকে পড়ছে বলেই খবর বাইরে বেরিয়ে যাচ্ছে। এই পরিস্থিতি অনুমান করে এমন ফতোয়া জারি করেছেন বঙ্গ বিজেপির সাধারণ সম্পাদক (সংগঠন) অমিতাভ চক্রবর্তী।

এদিকে বঙ্গ–বিজেপির ভার্চুয়াল বৈঠক চলাকালীন বিদ্রোহ করে লগ আউট হয়ে গিয়েছিলেন বিজেপি নেত্রী রূপা গঙ্গোপাধ্যায়। এমনকী তিনি ওই বৈঠকে বলেছিলেন, এইসব ভাটের বৈঠকে আমাকে ডাকবেন না। এই খবরও চাউর হয়ে যায় সংবাদমাধ্যমে। তাতেই ক্ষোভে ফুঁসছেন বঙ্গ–বিজেপির নেতারা। এছাড়া কলকাতা পুরসভার নির্বাচন নিয়ে ইতিমধ্যেই নানা খবর প্রকাশ্যে এসেছে। তাই সংবাদমাধ্যমের উপর কোপ মারা হল বলে মনে করা হচ্ছে।

অন্যদিকে এই ফতোয়া জারির ঘটনা আগেও ঘটেছিল। বিজেপির একের পর এক খবর সংবাদমাধ্যমে প্রকাশ পাচ্ছিল বলে সংবাদমাধ্যমের উপর ফতোয়া জারি করেছিলেন তৎকালীন বঙ্গ–বিজেপির সাধারণ সম্পাদক (সংগঠন) ছিলেন অমল চট্টোপাধ্যায়। এবার আবার সংবাদমাধ্যমের উপর কোপ পড়ল। তবে এভাবে খবর চেপে রাখা যায় না বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা।

সূত্রের খবর, নানা কর্মসূচিও আগে সংবাদমাধ্যমে প্রকাশ পেয়ে গিয়েছে। আবার কার সঙ্গে কার সম্পর্কের অবনতি হয়েছে তাও প্রকাশ্যে এসেছে। তাই দলীয় কার্যালয়ের দেওয়ালে ছাপা অক্ষরে সাঁটানো হয়েছে নোটিশ। যেখানে লেখা রয়েছে, সংবাদমাধ্যমের উপরে ওঠা নিষিদ্ধ। সিঁড়ি দিয়ে অনেকেই উপরে উঠে যান বলে দাবি বিজেপি নেতাদের। তার জেরেই এই ফতোয়া।

বন্ধ করুন