বাড়ি > বাংলার মুখ > কলকাতা > West Bengal Budget 2020: রাজ্যের বিরুদ্ধে অসহিষ্ণুতা ও কণ্ঠরোধের অভিযোগ ধনখড়ের
পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। ফাইল ছবি
পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। ফাইল ছবি

West Bengal Budget 2020: রাজ্যের বিরুদ্ধে অসহিষ্ণুতা ও কণ্ঠরোধের অভিযোগ ধনখড়ের

  • অমিত মিত্রের ভাষণ সরাসরি সম্প্রচার হলেও রাজ্যপালের ভাষণ হল না কেন? টুইটে প্রশ্ন ধনখড়ের

বাজেট পেশের মধ্যেই রাজ্যকে খোঁচা রাজ্যপালের। অমিত মিত্রের বাজেট ভাষণ টেলিভিশনে সরাসরি সম্প্রচার হলেও প্রথা ভেঙে তাঁর ভাষণের সরাসরি সম্প্রচার হল না কেন তা নিয়ে প্রশ্ন তুললেন জগদীপ ধনখড়।

সোমবার অমিত মিত্রের বাজেট ভাষণ চলাকালীনই টুইট করেন রাজ্যপাল। টুইটে রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড় লিখেছেন, অমিত মিত্রের বাজেট ভাষণ সংবাদমাধ্যমে সরাসরি সম্প্রচার হল। কিন্তু সংবিধানের ১৭৬ অনুচ্ছেদ অনুসারে রাজ্যপালের ভাষণ সরাসরি সম্প্রচার হল না। সংবাদ মাধ্যমকেও দূরে রাখা হল। রাজ্যের মানুষকে আমি এর বিচার করার দায়িত্ব দিলাম।


এর পর রাজ্যপাল আরও সুর চড়িয়ে লিখেছেন, সংবাদমাধ্যমের ওপর এর গুরুতর প্রভাব পড়তে পারে। এটা কি মেনে নেওয়া উচিত? এটা কি রাজ্যের সাংবিধানিক প্রধানের প্রতি অসহিষ্ণুতা নয়? এটা কি এক রকমের সেন্সরশিপ নয়? আমার দৃঢ় বিশ্বাস সংবাদমাধ্যম ও সাধারণ মানুষ এসব দেখে নিরব দর্শক হয়ে বসে থাকবে না।

এই নিয়ে বিধানসভায় সাংবাদিক বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, 'এটা স্পিকারের ব্যাপার। ওঁকে জিজ্ঞাসা করুন।'

বলে রাখি, গত শুক্রবার বিধানসভায় বাজেট অধিবেশনের সূচনার দিনে নাটকীয় পরিস্থিতি তৈরি হয়। রাজ্যপাল রাজ্য সরকারের লিখে দেওয়া ভাষণ পড়বেন কি না তা নিয়ে শুরু হয় চরম জল্পনা। এরই মধ্যে প্রথা ভেঙে বিধানসভায় রাজ্যপালের ভাষণের সরাসরি সম্প্রচারের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেন স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়। শেষ পর্যন্ত সেদিন অবশ্য রাজ্যের লেখা ভাষণই পড়েন রাজ্যপাল।




বন্ধ করুন