বাড়ি > বাংলার মুখ > কলকাতা > লাইসেন্সের মেয়াদ ফুরিয়েছে! বিফলে অভিযোগ জানানোর নতুন সরকারি ওয়েবসাইট
পশ্চিমবঙ্গ ক্লিনিকাল এস্টাবলিশমেন্ট রেগুলেটরি কমিশনের ওয়েবসাইট।
পশ্চিমবঙ্গ ক্লিনিকাল এস্টাবলিশমেন্ট রেগুলেটরি কমিশনের ওয়েবসাইট।

লাইসেন্সের মেয়াদ ফুরিয়েছে! বিফলে অভিযোগ জানানোর নতুন সরকারি ওয়েবসাইট

  • অভিযোগ জানাতে পোর্টালের নির্দিষ্ট অপশন বাছাই করতেই দেখাচ্ছে License expired ‌অর্থাৎ এই ওয়েবসাইট পরিষেবার লাইসেন্সের মেয়াদ ফুরিয়ে গিয়েছে।

পশ্চিমবঙ্গে হাসপাতাল ভাঙচুর ও চিকিৎসক নিগ্রহ রুখতে কিছুদিন আগেই কড়া পদক্ষেপ করে রাজ্য সরকার। রোগীমৃত্যু বা চিকিৎসায় গাফিলতির অভিযোগ তুলে বেসরকারি হাসপাতালে তাণ্ডব চালিয়ে পার পেয়ে যায় অনেকেই। এই পরিস্থিতিতে বদল আনতেই অভিযোগ জানানোর নতুন পোর্টালের সূচনা করে রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর। কিন্তু এবার সেই ওয়েবসাইটকে ঘিরেই নতুন সমস্যা দেখা দিয়েছে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বা চিকিৎসকরা অভিযোগ জানাতে পোর্টালের নির্দিষ্ট অপশন বাছাই করতেই দেখাচ্ছে License expired ‌অর্থাৎ এই ওয়েবসাইট পরিষেবার লাইসেন্সের মেয়াদ ফুরিয়ে গিয়েছে।

পশ্চিমবঙ্গ ক্লিনিকাল এস্টাবলিশমেন্ট রেগুলেটরি কমিশনের ওয়েবসাইটে (http://wbcerc.gov.in/) গেলে সেখানে Submit Grievance বিভাগে ক্লিক করে হাসপাতালের নাম, ঠিকানা, কী সমস্যা হয়েছে, হাসপাতালটি কোন থানার অধীনে তা জানিয়ে অভিযোগ দায়ের করা যাবে। তার আগে প্রয়োজন লগ ইন ‌করার বা নতুন ব্যবহারকারী হিসেবে নিজের তথ্য নথিভুক্ত করার। আর সেটিই করা যাচ্ছে না, দেখাচ্ছে License expired। তাই কোনও বেসরকারি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বা চিকিৎসক অভিযোগ জানাতে চাইলেও পারছেন না।

ওয়েবসাইট কর্তৃপক্ষ অর্থাৎ পশ্চিমবঙ্গ ক্লিনিকাল এস্টাবলিশমেন্ট রেগুলেটরি কমিশনকে এ ব্যাপারে অবগত করার চেষ্টা করা হয় ‘‌হিন্দুস্তান টাইম্‌স বাংলা’‌র পক্ষ থেকে। ওয়েবসাইটেই রয়েছে যোগাযোগের উপায়— Contact Us। সেখানে এই কমিশনের সচিব হিসেবে নাম রয়েছে ডব্লিউবিসিএস আধিকারিক আরশাদ হাসান ওয়ারশির। আর তার নীচে একটি ল্যান্ডলাইন নম্বর। তাতে ফোন করে যদিও লাভ হয়নি। ফোনের ওপারে যান্ত্রিক মহিলা কণ্ঠে শোনা গেল— ‘‌আমরা দুঃখিত, এই টেলিফোন নম্বরটি আপাতত খারাপ আছে!‌’

বন্ধ করুন