শুক্রবার নবান্নে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।
শুক্রবার নবান্নে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

করোনার আবহে কেন্দ্রকে সখ্যের বার্তা মমতার

  • এদিন করোনাভাইরাস মোকাবিলায় কেন্দ্রীয় সরকারকে সহযোগিতার বার্তা দেন মমতা। বলেন, আমরা একটা পরিবারের মতো।

করোনাভাইরাস নিয়ে নবান্নে উচ্চপর্যায়ের বৈঠকের পর রাজ্যবাসীকে আতঙ্কিত না হওয়ার পরামর্শ দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিনের বৈঠকে হাজির ছিলেন স্বরাষ্ট্রসচিব-সহ রাজ্যের তাবড় স্বাস্থ্যকর্তারা। ছিলেন জেলাশাসক ও CMOH-রাও। বৈঠকের শেষে সাংবাদিক বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রীকে কেন্দ্রের প্রতি ব্যতিক্রমী সৌজন্যশীল দেখাচ্ছিল মুখ্যমন্ত্রীকে।

মমতা বলেন, পশ্চিমবঙ্গে এখনো করোনাভাইরাস আক্রান্তের খোঁজ মেলেনি। তবে সতর্ক রয়েছে সরকার ও প্রশাসন। করোনাভাইরাস মোকাবিলায় খোলা হয়েছে ২৪ ঘণ্টার হেল্পলাইন।

এদিন করোনাভাইরাস মোকাবিলায় কেন্দ্রীয় সরকারকে সহযোগিতার বার্তা দেন মমতা। বলেন, আমরা একটা পরিবারের মতো। কেন্দ্রীয় সরকার তাদের কাজ করবে, আমরা আমাদের কাজ করব। এমনকী কেন্দ্রীয় সরকার এরাজ্যে করোনাভাইরাসের পরীক্ষাগার তৈরি করতে রাজ্য সরকার জমি দিতে তৈরি বলেও জানান তিনি। করোনাভাইরাস নিয়ে কেন্দ্রকে সম্পূর্ণ সহযোগিতার বার্তা দেন মমতা।

এছাড়া বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ মতো প্রতি ঘণ্টায় সাবান দিয়ে হাত ধোয়ার অভ্যাস তৈরি করতে বলেন মুখ্যমন্ত্রী। কী করে হাত ধুতে হবে তাও দেখিয়ে দেন তিনি। কী ভাবে নাক – মুখ চাপা দিয়ে হাঁচি দিতে হবে তাও করে দেখান মমতা।

রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, বিজেপিকে এরাজ্যে বাঁধতে কেজরিওয়ালের রাস্তা নিতে চাইছেন মুখ্যমন্ত্রী। তাই যে কোনও বিষয়ে সরাসরি আক্রমণের মুখ থেকে সরে আসতে চাইছেন তিনি। প্রশান্ত কিশোরের নেতৃত্বে সম্মুখ সমরে না গিয়ে প্রচ্ছন্নে বিজেপিকে বধের পরিকল্পনা করেছে শাসকদল। তাই মুখ্যমন্ত্রীর মুখে বঞ্চনার বদলে কেন্দ্রীকে সহযোগিতার বার্তা দিলেন তিনি।



বন্ধ করুন