বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ‘যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোর চরম পরিপন্থী’, IAS আইনে প্রস্তাবিত সংশোধনীর বিরোধিতায় মোদীকে ফের চিঠি মমতার
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ছবি সৌজন্যে পিটিআই (PTI)
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ছবি সৌজন্যে পিটিআই (PTI)

‘যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোর চরম পরিপন্থী’, IAS আইনে প্রস্তাবিত সংশোধনীর বিরোধিতায় মোদীকে ফের চিঠি মমতার

  • মমতার অভিযোগ, এই নয়া নিয়ম চালু হলে যুক্তরাষ্ট্রীয় পরিকাঠামো ধ্বংস হবে।

আইএএস সার্ভিস রুলে সংসশোধনীর বিরোধিতায় ফের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে চিঠি লিখলেন পশ্চিমবঙ্গ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই সংশোধধনীকে যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোর চরম পরিপন্থী আখ্যা দিয়ে মুখ্যমন্ত্রী এদিন লেখেন, রাজ্য সরকারের মেরুদণ্ড আইএএস আধিকারিকরা। এই নয়া নিয়মের জেরে আধিকারিকদের মধ্যে ভীতি তৈরি হবে। মমতার অভিযোগ, এই নয়া নিয়ম চালু হলে যুক্তরাষ্ট্রীয় পরিকাঠামো ধ্বংস হবে।

মুখ্যমন্ত্রী লেখেন, ‘সংশ্লিষ্ট আধিকারিকের মত বা তিনি যে রাজ্য সরকারের হয়ে কাজ করছেন, সেই সরকারের কোনও মত ছাড়াই যদি কাউকে একটি রাজ্য থেকে তুলে দেশের যেকোনও জায়গায় পাঠানোর নিয়ম চালু হয়, তাহলে তা আধিকারিকদের মনে ভয়ের সঞ্চার ঘটাবে। এটা ক্ষমতা কেন্দ্রীকরণ।’ মমতা আরও লেখেন, ‘এই পদক্ষেপ কেন্দ্র ও রাজ্যের মধ্যকার পারস্পরিক বোঝাপড়া নষ্ট হয়ে যাবে।’

উল্লেখ্য, কেন্দ্রীয় সরকার সম্প্রতি প্রস্তাব করে জানায় যে তারা সেন্ট্রাল ডেপুটেশন রিজার্ভে থাকা অফিসারদের সংখ্যা বাড়াতে চায়। আর এর জন্য রাজ্য সরকারগুলি যোগ্য আধিকারিকদের কেন্দ্রীয় ডেপুটেশনের জন্য উপলব্ধ করুক। আর বর্তমান সার্ভিস রুলের এই সংসশোধনীতে অসন্তুষ্ট মমতা। কারণ এই নয়া সংশোধনীর জেরে ফের একবার আইএএস আধিকারিকদের নিয়ে টানাপোড়েন শুরু হয়ে যাবে কেন্দ্র ও রাজ্যের মধ্যে। এই সংশোধনী কার্যকর হলে রাজ্য সরকারের কোনও মতামত না নিয়েই যেকোনও সেট্রাল ক্যাডারের কর্মীকে যেকোনও জায়গায় বদলি করা যেতে পারে। উল্লেখ্য এই আইনের বিরোধিতায় এর আগে ১৩ জানুয়ারিও মোদীকে একটি চিঠি লিখেছিলেন মমতা। এদিন ফের একবার চিঠি লিখে নিজের অসন্তোষের কথা জানান মুখ্যমন্ত্রী মমতা।

বন্ধ করুন