ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

রাজ্যপালকে ফের ১৩ পাতার চিঠি মমতার, আরও তীব্র রাজ্য-রাজ্যপাল দ্বন্দ্ব

  • সঙ্গে মমতার হুঁশিয়ারি, পশ্চিমবঙ্গে যেন দ্বৈত শাসন প্রতিষ্ঠার স্বপ্ন না দেখেন রাজ্যপাল।

রাজ্য-রাজ্যপাল সংঘাতের মধ্যেই ফের জগদীপ ধনখড়কে কড়া ভাষায় চিঠি দিলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। চিঠিতে রাজ্যপাল তাঁকে মাত্রাহীন গালি দিয়েছেন বলে দাবি করেছেন মমতা। সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীর দাবি, পশ্চিমবঙ্গে দ্বৈত শাসনব্যবস্থা চালু করতে চাইছেন রাজ্যপাল। মমতার এই চিঠিতে বিরোধীদের পালটা খোঁচা,  ২ দিন ধরে করোনার বুলেটিন কেন প্রকাশ করছে না রাজ্য সরকার।

এদিন ১৩ পাতার চিঠিতে মমতা লেখেন, দেশের কোনও রাজ্যপাল আজ পর্যন্ত মুখ্যমন্ত্রীকে এই ভাষায় চিঠি লেখেননি, যে ভাষায় আপনি আমাকে চিঠি লিখেছেন। আপনার চিঠি পড়লে রাগের থেকে বেশি দুঃখ হয়। আমাকে মাত্রাহীন গালি ও অপমান দিয়েছেন আপনি। 

সঙ্গে মমতার হুঁশিয়ারি, পশ্চিমবঙ্গে যেন দ্বৈত শাসন প্রতিষ্ঠার স্বপ্ন না দেখেন রাজ্যপাল। ইতিহাস মনে করিয়ে মমতা লিখেছেন, ১৭৭০ সালে দ্বৈত শাসনে বাংলার কী অবস্থা হয়েছিল তা সবার জানা। সেই দিন ফিরিয়ে আনার দুঃস্বপ্ন দেখাবেন না। 

চিঠি পেয়ে টুইট করেছেন রাজ্যপাল। লিখেছেন, ‘অনেক কিছু জানি। সেসব ফাঁস করার সময় হয়েছে বলে মনে হচ্ছে।’

মুখ্যমন্ত্রীর চিঠির প্রেক্ষিতে মুখ খুলেছে কংগ্রেস ও বামেরা। তাদের মতে, পশ্চিমবঙ্গে করোনায় আক্রান্ত ও মৃতের সঠিক সংখ্যা প্রকাশ হয়ে পড়ায় চরম অস্বস্তিতে রাজ্য সরকার। এই পরিস্থিতিতে অস্বস্তি এড়াতে ২ দিন ধরে করোনার মেডিক্যাল বুলেটিন প্রকাশ করছে না স্বাস্থ্যভবন। এখন সেদিক থেকে জনতার নজর ঘোরাতে রাজ্যপালের সঙ্গে সংঘাতে মন দিয়েছেন মমতা। 

 

বন্ধ করুন