কলকাতায় থাকা কেন্দ্রীয় প্রতিনিধিদলের প্রধান অপূর্ব চন্দ্র।
কলকাতায় থাকা কেন্দ্রীয় প্রতিনিধিদলের প্রধান অপূর্ব চন্দ্র।

পরিদর্শনে বেরনোর অনুমতি দিচ্ছে না রাজ্য, বললেন কেন্দ্রীয় দলের প্রধান

  • রাজ্যকে অন্ধকারে রেখে দল পাঠানোর অভিযোগ খারিজ করে তিনি বলেন, ‘গতকাল কলকাতায় পৌঁছনোর পর থেকে আমি মুখ্যসচিবের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে চলেছি।

কেন্দ্রীয় প্রতিনিধিদলের রাজ্য সফর নিয়ে দ্বন্দের মধ্যেই মুখ খুললেন দলের প্রধান। মঙ্গলবার সংবাদসংস্থা ANI-তে দলের প্রধান অপূর্ব চন্দ্র জানান, আমরা রাজ্য সরকারকে সাহায্য করতে এখানে এসেছি। কিন্তু রাজ্য সরকার আমাদের এলাকা পরিদর্শনে বেরনোর অনুমতি দিচ্ছে না।

মঙ্গলবার অপূর্ববাবু বলেন, ‘কেন্দ্রের যে অর্ডার অনুসারে আমরা এখানে এসেছি তাতে স্পষ্ট উল্লেখ রয়েছে, রাজ্যকে আমাদের জন্য গাড়ির ব্যবস্থা করতে হবে। দলে রয়েছে জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা অ্যাকাডেমির বিশেষজ্ঞ, জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ, ক্রেতা সুরক্ষা দফতরের আধিকারিক। COVID 19 মোকাবিলায় আমরা রাজ্য সরকারকে প্রয়োজনীয় সাহায্য করতে পারতাম। তাছাড়া পরিস্থিতির দিকেও নজর রাখতে পারতাম।‘


রাজ্যকে অন্ধকারে রেখে দল পাঠানোর অভিযোগ খারিজ করে তিনি বলেন, ‘গতকাল কলকাতায় পৌঁছনোর পর থেকে আমি মুখ্যসচিবের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে চলেছি। করোনা কবলিত এলাকাগুলি পরিদর্শনের জন্য আমরা রাজ্য সরকারের সাহায্য চেয়েছি। গতকাল সন্ধ্যায় নবান্নে মুখ্যসচিবের সঙ্গে বৈঠক করেছি। আমাদের জানানো হয়েছিল, মঙ্গলবারও আমরা বৈঠক করব। তার পর আমাদের পরিদর্শনের ব্যবস্থা করা হবে।‘

এর পরই হতাশা ঝরে পড়ে অপূর্ববাবুর গলায়। তিনি বলেন, ‘আজ জানানো হয় কিছু সমস্যা রয়েছে, তাই আজ আমাদের বেরনো হচ্ছে না। রাজ্যকে স্পষ্ট করে জানিয়েছি যে রাজ্যের আধিকারিক সঙ্গে না থাকলে আমরা পরিদর্শনে যাব না। কারণ রাজ্য সরকার সঙ্গে না থাকলে আমাদের কাজের কোনও কার্যকারিতা নেই।‘

সোমবার সকালে পশ্চিমবঙ্গে বঙ্গে পৌঁছয় ৬ সদস্যের ২টি কেন্দ্রীয় প্রতিনিধিদল। এতে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজ্যের অনুমতি না নিয়ে প্রতিনিধিদল পাঠানোর সিদ্ধান্ত যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোর পরিপন্থী বলে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দেন তিনি।



বন্ধ করুন