বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > গরমের ছুটি কমে বাড়ল পুজোর, আগামী শিক্ষাবর্ষে সরকারি স্কুলের ছুটির তালিকায় বড় বদল
প্রতীকী ছবি
প্রতীকী ছবি

গরমের ছুটি কমে বাড়ল পুজোর, আগামী শিক্ষাবর্ষে সরকারি স্কুলের ছুটির তালিকায় বড় বদল

  • নতুন বছরের শিক্ষাবর্ষে পঠন–পাঠনের জন্য বরাদ্দ থাকছে ২৩৬ দিন। তবে যে সহ স্কুলে মাধ্যমিকের সিট পড়বে সেখানে ২২৭ দিন ও যেখানে উচ্চ মাধ্যমিকের সিট পড়বে সেখানে ২২৩ দিন স্কুল হবে।

সরকারি ও সরকার পোষিত স্কুলগুলিতে আগামী বছর ছুটি থাকছে মোট ৬৫ দিন। সম্প্রতি শিক্ষা দফতরের তরফে প্রকাশিত আগামী শিক্ষাবর্ষে স্কুলের ছুটির তালিকা থেকে এই তথ্য জানা গিয়েছে। পরের বছর গরমের ছুটি থাকবে ২৪ মে থেকে ৩ জুন পর্যন্ত, অর্থাৎ ১৪ দিন। যা আগের বছরগুলির তুলনায় কম। কিন্তু সে তুলনায় পুজোর ছুটি পাওয়া যাবে অনেকদিন বেশি। অক্টোবর মাসের ১১ তারিখ থেকে ছুটি শুরু হয়ে তা শেষ হবে ৯ নভেম্বরে। অর্থাৎ মোট ২৬ দিন থাকবে পুজোর ছুটি।

একইসঙ্গে পরের বছর স্কুলের ছুটির তালিকায় মিলবে নতুন দুটি সরকারি ছুটি। ঠাকুর পঞ্চানন বর্মার জন্মদিন উপলক্ষে ১৮ ফেব্রুয়ারি এবং হরিচাঁদ ঠাকুরের জন্মদিন উপলক্ষে ছুটি থাকবে ৯ এপ্রিল। ২০২১ সাল থেকে রাজ্যের ছাত্রছাত্রীরা ছট পুজোর ছুটি পাবে পরপর দু’‌দিন। এছাড়া ১৩ জুলাই নেপালি কবি ভানুভক্তের জন্মদিবস উপলক্ষে দার্জিলিং এবং কালিম্পং জেলার স্কুলগুলি ছুটি থাকবে।

২০২১ সালের শিক্ষাবর্ষ থেকে বছরে ৫ দিন অতিরিক্ত ছুটি নিতে পারবে স্কুলগুলি। সেই ছুটি কবে নেওয়া হবে তা স্কুল পরিচালন সমিতি ও শিক্ষক–শিক্ষিকাদের মিলে ঠিক করতে হবে। আর যে সব স্কুলে মাধ্যমিক পরীক্ষার সিট পড়বে সেখানে ৯ দিন এবং যেখানে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার সিট পড়বে সেখানে ১৩ দিন অতিরিক্ত ছুটি থাকবে। নতুন বছরের শিক্ষাবর্ষে পঠন–পাঠনের জন্য বরাদ্দ থাকছে ২৩৬ দিন। তবে যে সহ স্কুলে মাধ্যমিকের সিট পড়বে সেখানে ২২৭ দিন ও যেখানে উচ্চ মাধ্যমিকের সিট পড়বে সেখানে ২২৩ দিন স্কুল হবে।

একইসঙ্গে স্কুল শিক্ষা দফতরের বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, মহামারী পরিস্থিতি চলার সময় যদি কোনও ছুটি পড়ে তবে সেই ছুটি পরবর্তী সময় আর নেওয়া যাবে না। উল্লেখ্য, সম্প্রতি শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় জানিয়েছেন, রাজ্যে ১ জুন থেকে শুরু হবে মাধ্যমিক পরীক্ষা। আর উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা শুরু হবে ১৫ জুন থেকে। চলবে ৩০ জুন পর্যন্ত।

বন্ধ করুন