বাড়ি > বাংলার মুখ > কলকাতা > বাংলায় গণতন্ত্র বাঁচাতে তৃণমূলের রিগিং রুখবই, টুইটারে তোপ রাজ্যপালের
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকারের বিরুদ্ধে টুইটারে তোপ দাগলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়।
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকারের বিরুদ্ধে টুইটারে তোপ দাগলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়।

বাংলায় গণতন্ত্র বাঁচাতে তৃণমূলের রিগিং রুখবই, টুইটারে তোপ রাজ্যপালের

  • প্রশাসন এবং পুলিশ শাসকদল তৃণমূলের সামনের সারির দলীয় কর্মী হিসেবে কাজ করছে, দাবি ধনখড়ের।

পশ্চিমবঙ্গে নীরব ও বিজ্ঞানসম্মত রিগিংয়ের সুবাদে বিপন্ন গণতন্ত্র। তাকে যে ভাবে হোক রুখবেন বলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকারের বিরুদ্ধে টুইটারে তোপ দাগলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়।

বুধবার সকালে নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে বাংলার রাজ্যপাল অভিযোগ করেছেন, রাজ্য প্রশাসন এবং পুলিশ শাসকদল তৃণমূলের সামনের সারির দলীয় কর্মী হিসেবে কাজ করছে। এমনই উদ্বেগজনক তথ্য তাঁর কাছে পৌঁছেছে বলে দাবি ধনখড়ের। 

টুইটার বার্তায় এমন অভিযোগ তুলে তিনি জানিয়েছেন, এই ব্যবস্থা কোনও মতেই চলতে দেওয়া যায় না। এমন অন্যায় এড়িয়ে যাওয়ায়ও অসম্ভব বলে জানিয়েছেন রাজ্যপাল। সেই সঙ্গে তিনি হুঁশিয়ার করেছেন যে, যারা এমন অনৈতিক কাজে লিপ্ত রয়েছে তাদের এর ফল ভুগতে হবে ও মূল্য দিতে হবে। 

তিনি আইন অনুযায়ী পদক্ষেপ করার আর্জি জানিয়ে বলেছেন, বাংলায় গণতন্ত্র বাঁচিয়ে রাখতে হলে অবিলম্বে রাজনৈতিক হিংসা ও নির্বাচনী কারচুপি বন্ধ করতে হবে। শাসকদলের নীরব ও সুশৃঙ্খল রিগিং বন্ধ করার অঙ্গীকারও তিনি করেছেন। 

পশ্চিমবঙ্গে ব্যাপক হারে অরাজকতা ও বিশৃঙ্খলা চকলছে বলে এর আগে একাধিক বার অভিযোগ জানিয়েছেন রাজ্যপাল ধনখড়। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং তাঁর দলীয় নেতাদের সঙ্গে প্রায়ই মতান্তর ও আক্রমণ-প্রতিআক্রমণে তাঁর জড়িয়ে পড়ার ঘটনা সুবিদিত। রাজ্যপালের বিরুদ্ধেও পাল্টা আক্রমণ শানাতে দেখা গিয়েছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও তৃণমূল নেতৃত্বকে। এ দিন রাজ্যপালের টুইট সেই প্রবণতাই ফের উসকে দিল। 

বন্ধ করুন