বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > উত্তরবঙ্গে ভারী বৃষ্টিতে দার্জিলিং ও কালিম্পঙে বাড়বে ধস, পূর্বাভাস আলিপুরের
প্রবল বর্ষণের জেরে দার্জিলিং ও কালিম্পং জেলার পাহাড়ে ধসের পূর্বাভাস করল আবহাওয়া দফতর।
প্রবল বর্ষণের জেরে দার্জিলিং ও কালিম্পং জেলার পাহাড়ে ধসের পূর্বাভাস করল আবহাওয়া দফতর।

উত্তরবঙ্গে ভারী বৃষ্টিতে দার্জিলিং ও কালিম্পঙে বাড়বে ধস, পূর্বাভাস আলিপুরের

  • উত্তরবঙ্গে বিস্তীর্ণ অঞ্চলজুড়ে আগামী কয়েক দিনে ভারী বর্ষণ হওয়ার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। নদীতে জলস্তর বাড়তে পারে।

আগামী দুই দিনে উত্তরবঙ্গে প্রবল বর্ষণের জেরে দার্জিলিং ও কালিম্পং জেলার পাহাড়ে ধসের পূর্বাভাস করল আবহাওয়া দফতর। শুক্রবার পর্যন্ত উত্তরবঙ্গে বৃষ্টির পরিমাণ বাড়বে বলেও জানিয়েছে আলিপুরের হাওয়া অফিস।

বুধবার পশ্চিমবঙ্গের আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, মহারাষ্ট্র থেকে পশ্চিমবঙ্গে হিমালয়ের পাদদেশে আবহাওয়া পরিমণ্ডলে একটি গভীর নিম্নচাপরেখা সৃষ্টি হয়েছে। সেখানে এসে যুক্ত হচ্ছে বঙ্গোপসাগর থেকে বয়ে আসা জলকণাপূর্ণ বাতাস। এর ফলে উত্তরবঙ্গে বিস্তীর্ণ অঞ্চলজুড়ে আগামী কয়েক দিনে ভারী বর্ষণ হওয়ার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে।

আলিপুর আবহাওয়া দফতর প্রকাশিত বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, ‘দার্জিলিং ও কালিম্পং জেলার পার্বত্য অঞ্চলে ধসের প্রবণতা বাড়বে। সেই সঙ্গে উত্তরবঙ্গের নদীগুলিতে জলস্তর বৃদ্ধির সম্ভাবনা রয়েছে।’

গত মঙ্গলবার থেকেই দার্জিলিং ও কালিম্পং জেলায় ভারী বৃষ্টি শুরু হয়েছে। বুধবার সকাল থেকে কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গের একাধিক জেলাতেও বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি শুরু হয়েছে।

আবহাওয়ার পূর্বাভাস পেয়ে বাতিল হয়েছে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উত্তরবঙ্গ সফর। এই সফরে তাঁর একাধিক প্রশাসনিক বৈঠক করার কথা ছিল। কোভিড অতিমারীর শুরু থেকে উত্তরবঙ্গে এমন গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে সশরীরে উপস্থিত থাকতে পারেননি মুখ্যমন্ত্রী। 

প্রসঙ্গত, গত জুলাই মাসে নিম্নচাপের দৌরাত্মে উত্তর ও দক্ষিণবঙ্গের বেশ কিছু জেলায় বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হয়। তার শিকার হন বহু মানুষ।

বন্ধ করুন