বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > রাজ্যের মুকুটে 'স্কচ' পালক,করোনাকালে শিক্ষার মান বাড়িয়ে জয় আন্তর্জাতিক পুরস্কার
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। (ফাইল ছবি, সৌজন্য এএনআই)
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। (ফাইল ছবি, সৌজন্য এএনআই)

রাজ্যের মুকুটে 'স্কচ' পালক,করোনাকালে শিক্ষার মান বাড়িয়ে জয় আন্তর্জাতিক পুরস্কার

  • করোনা আবহে প্রায় দেড় বছর ধরে বন্ধ স্কুল, কলেজ সহ সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। তবে তার জেরে রাজ্যের শিক্ষার মান প্রভাবিত হয়নি। বরং মানোন্নয়ন হয়েছে পড়াশোনার।

করোনা আবহে গোটা বিশ্বে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে শিক্ষা ব্যবস্থা। ভারত তো বটেই করোনার ছোখ রাঙানির জেরে দীর্ঘদিন স্কুল বন্ধ থেকেই বিশ্বের বহু দেশে। তবে এই করোনা কালেও পড়ুয়াদের শিক্ষার দিকে বিশেষ নজর দিয়েছিল রাজ্য সরকার। আর তার ফলস্বরূপ রাজ্যের শিক্ষাদপ্তর পেল আন্তর্জাতিক ‘স্কচ’ পুরস্কার। রাজ্যের স্কুলশিক্ষা ও উচ্চশিক্ষা - উভয় বিভাগের মুকুটেই জুটেছে এই নয়া পালক। স্কচ গোল্ডেন পুরস্কার পাওয়ায় স্কুলশিক্ষা ও উচ্চশিক্ষা বিভাগে কর্মরত সকলকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু।

করোনা আবহে প্রায় দেড় বছর ধরে বন্ধ স্কুল, কলেজ সহ সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। তবে তার জেরে রাজ্যের শিক্ষার মান প্রভাবিত হয়নি। বরং মানোন্নয়ন হয়েছে পড়াশোনার। ভালোভাবে এই পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার স্বীকৃতি হিসেবেই 'স্কচ' পুরস্কার জিতল রাজ্য। উল্লেখ্য, শুধুমাত্র পড়াশোনার দিকে নজর নয়, করোনাকালে স্কুলের সঙ্গে যুক্ত অন্যান্য প্রকল্পগুলির দিকেও নজর দিয়েছিল রাজ্য। স্কুলের দরজা বন্ধ থাকলেও বন্ধ হয়নি মিড-ডে মিল প্রকল্প। এদিকে রাজ্যের উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলি দেশের প্রথম সারির বিভিন্ন কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়কে টেক্কা দিয়েছে ফলের নিরিখে।

শিক্ষা বাদেও এবার পর্যটন বিভাগেও স্কচ গোল্ডেন পুরস্কার পেয়েছে রাজ্য। তাছাড়া কোভিড মোকাবিলা এবং জনপরিষেবায় দুর্দান্ত কাজের সুবাদেও স্কচ গোল্ডেন পুরস্কার জিতেছে রাজ্য। পাশাপাশি করোনা কালে দক্ষিণবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ সংস্থা খুব ভালো কাজ করার স্বীকৃতি হিসেবে স্কচ পুরস্কার জিতেছে। উল্লেখ্য, এর আগেও চারটি স্কচ পুরস্কার জিতেছিল রাজ্য। সেবার একটি প্ল্যাটিনাম, একটি গোল্ড ও দু’টি সিলভার পুরস্কার জিতেছিল রাজ্য।

বন্ধ করুন