বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > BJP বিধায়কদের 'ড্রেস কোড' ভঙ্গ, বিধানসভায় শুভেন্দুর প্রশ্নের মুখে মনোজ, মিহিররা!
বিজেপি বিধায়কদের সঙ্গে শুভেন্দু অধিকারী (ছবি সৌজন্যে এএনআই)
বিজেপি বিধায়কদের সঙ্গে শুভেন্দু অধিকারী (ছবি সৌজন্যে এএনআই)

BJP বিধায়কদের 'ড্রেস কোড' ভঙ্গ, বিধানসভায় শুভেন্দুর প্রশ্নের মুখে মনোজ, মিহিররা!

  • কয়েকদিন আগেই বিজেপি বিধায়কদের জন্যে ড্রেস কোড নির্ধারণ করে দিয়েছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। তবে এদিন সেই ড্রেস কোড ভাঙেন বিজেপি বিধায়করা।

মুকুল রায়ে কেন পিএসি চেয়ারম্যান? এই প্রশ্ন তুলে তৃণমূলকে চাপে রাখার জন্যে ৮ কমিটি থেকে পদত্যাগ করেছেন বিজেপির বিধায়করা। এই মর্মে মিহির গোস্বামী, মনোজ টিজ্ঞা ও কৃষ্ণ কল্যাণী-সহ আট বিজেপি বিধায়ক বিধানসভায় গিয়ে অধ্যক্ষের সঙ্গে দেখা করেন। সেখানেই বিভিন্ন কমিটি এবং স্থায়ী কমিটির সভাপতির পদ থেকে পদত্যাগ করেছেন। শুভেন্দুর সঙ্গে বৈঠক করার পর দলের নির্দেশেই এই পদক্ষেপ। তবে তাও শুভেন্দুর প্রশ্নের মুখে পড়তে হল বিধায়কদের। নেপথ্যে ড্রেসকোড ভঙ্গ।

কয়েকদিন আগেই বিজেপি বিধায়কদের জন্যে ড্রেস কোড নির্ধারণ করে দিয়েছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। সেখানে নির্দেশ ছিল, বিধায়কদের গলায় থাকতে হবে গেরুয়া উত্তরীয়, কপালে থাকতে হবে গেরুয়া তিলক। এদিন মনোজ টিগ্গা, মিহির গোস্বামীরা যখন অধ্যক্ষের সঙ্গে দেখা করে কমিটির চেয়ারম্যান পদ থেকে পদত্যাগ করতে যান, তখন অনেকের গলায় উত্তরীয় থাকলেও কারোর কপালে ছিল না গেরুয়া তিলক। আবার অনেকের গলাতে ছিল না উত্তরীয়ও। আর এর জেরেই বিরোধী দলনেতরার প্রশ্নের মুখে পড়তে হল বিধায়কদের। বিষয়টি নিয়ে অসন্তুষ্ট বিজেপি পরিষদীয় দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী।

বিধানসভায় আট কমিটিতে বিজেপিকে চেয়ারম্যান পদ দেওয়া হয়। মঙ্গলবার বিধানসভার অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে গিয়ে বিজেপির আট বিধায়ক নিজেদের ইস্তফা জমা দেন। তার পর বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর নেতৃত্বে রাজ্যপাল জগদীপ ধনকখড়ের কাছে যান। সেখানে তাঁরা পিএসির চেয়ারম্যান পদে মুকুল রায়ের নির্বাচন থেকে মুকুল রায়ের বিধায়ক পদ খারিজ নিয়ে রাজ্যপালের হস্তক্ষেপ দাবি করেন তাঁরা। বিধানসভার বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী এদিন ঘোষণা করেন, মুকুল রায় ইস্যুতে এবার দেশজুড়ে সরব হবে বিজেপি।

রাজভবনের বাইরে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন শুভেন্দু অধিকারী। সেখানে তিনি জানান, পিএসি নিয়ে রাজনীতি করছে শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস। তাই সব কমিটির চেয়ারম্যান পদ প্রত্যাখান করেছে বিজেপি। এই প্রসঙ্গে তাঁর কটাক্ষ, 'এবার শাসক দল যেটা করেছে, সেটা পৃথিবীর অষ্টম আশ্চর্য।' নন্দীগ্রামের বিধায়কের দাবি, পিএসি-র কাজ সরকারের দুর্নীতিগুলি তুলে ধরা। আর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার দুর্নীতি ঢাকতে চায় বলেই মুকুল রায়কে বকলমে বিরোধী বিধায়ক দেখিয়ে এই পদ পাইয়ে দেওয়া হল।

বন্ধ করুন