বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Kalighat Skywalk: কী কারণে কালীঘাটে স্কাইওয়াকের কাজে দেরি, জানতে চাইল কলকাতা পুরনিগম
কলকাতা পুরনিগম (ছবি সৌজন্য ফেসবুক)

Kalighat Skywalk: কী কারণে কালীঘাটে স্কাইওয়াকের কাজে দেরি, জানতে চাইল কলকাতা পুরনিগম

  • এই প্রসঙ্গে ঠিকাদারি সংস্থার বক্তব্য, যন্ত্র খারাপ থাকায় কাজের গতি আনতে সমস্যা হচ্ছে। ২০২৩ সালের এপ্রিলে কাজ শেষ করার কথা। তবে পরের বছর জুন-জুলাইয়ের মধ্যে কাজ শেষ হয়ে যাবে।

‌দক্ষিণেশ্বর মন্দিরের আদলে এবার কালীঘাটে স্কাই ওয়াক তৈরির বিষয়ে উদ্যোগ নিয়েছে রাজ্য সরকার। কিন্তু সেই স্কাই ওয়াক তৈরির কাজ একফোঁটাও এগোয়নি। ফলে ক্ষুব্ধ কলকাতা পুরনিগম কর্তৃপক্ষ। এবার কী কারণে কাজ করতে দেরি হচ্ছে, সে বিষয়ে লিখিত কারণ জানতে চাইল কলকাতা পুরনিগম।

দক্ষিণেশ্বরের আদলে কালীঘাটে স্কাইওয়াক ২০২৩ সালের মধ্যে শেষ করার উদ্যোগ নিয়েছে রাজ্য সরকার। কিন্তু যে টিকাদারি সংস্থাকে কাজের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে, সেই সংস্থা খুব অল্পই কাজ এগিয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। দুই একটা জায়গায় খোঁড়াখুড়ি ছাড়া কোনও কাজই এগোয়নি। কাজ এগোতে দেরি হওয়ায় ক্ষুব্ধ কলকাতা পুরনিগম কর্তৃপক্ষ। কী কীরণে কাজ এগোতে দেরি হচ্ছে, সেবিষয়ে লিখিতভাবে জানাতে বলা হয়েছে। প্রয়োজনে ওই সংস্থাকে কালো তালিকাভুক্ত করার চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে বলে কলকাতা পুরনিগম সূত্রে জানা যাচ্ছে।

এই প্রসঙ্গে টিকাদারি সংস্থার বক্তব্য, যন্ত্র খারাপ থাকায় কাজের গতি আনতে সমস্যা হচ্ছে। ২০২৩ সালের এপ্রিলে কাজ শেষ করার কথা। তবে পরের বছর জুন-জুলাইয়ের মধ্যে কাজ শেষ হয়ে যাবে। মেয়র ফিরহাদ হাকিম জানান, ‘‌পুরনিগমের ছয় মাসের পর্যালোচনা বৈঠক করতে গিয়ে দেথি কালীঘাট স্কাইওয়াকের কাজ অত্যন্ত ধীর গতিতে এগোচ্ছে। বিষয়টি মেয়র পারিষদ দেবাশিস কুমারের কাছে পাঠিয়েছি। প্রয়োজনে আমরা এটিকে কালো তালিকাভুক্ত করব।’‌ এই প্রসঙ্গে মেয়র পারিষদ দেবাশিস কুমার জানান, ‘‌আগে সংস্থার তরফে লিখিত দিতে হবে। তারপর দেখছি। মাত্র পাঁচ শতাংশ কাজ হয়েছে। কাজ শেষ করতে যদি দুই-তিন মাস বেশি লাগে, তাহলে পেনাল্টি দিতে হবে।’‌

বন্ধ করুন