বাড়ি > বাংলার মুখ > কলকাতা > অবৈধ কাজ না হলে লুকানোর কী আছে? মদনের ভিডিয়ো তোলায় গ্রেফতারি নিয়ে দিলীপ ঘোষ
দিলীপ ঘোষ। ফাইল ছবি
দিলীপ ঘোষ। ফাইল ছবি

অবৈধ কাজ না হলে লুকানোর কী আছে? মদনের ভিডিয়ো তোলায় গ্রেফতারি নিয়ে দিলীপ ঘোষ

  • এর পরই দিলীপবাবু বলেন, ‘নিশ্চই সেখানে অবৈধ কোনও কাজ হয়। নইলে কেউ কারও অফিসে যাবে না? আমি তো সাংসদ, আমার কাছে কত লোক আসেন।’

না জানিয়ে তৃণমূল নেতা মদন মিত্রের ভিডিয়ো তোলার ঘটনায় ৩ জনের গ্রেফতারিতে পালটা তৃণমূলকে আক্রমণ করলেন দিলীপ ঘোষ। শনিবার এই ঘটনা জানতে পেরে দিলীপবাবু বলেন, মদনবাবু কোনও অবৈধ কাজ না করে থাকলে ছবি তুললে সমস্যা কী আছে?

এদিন দিলীপবাবু বলেন, ‘মদনমিত্র যদি কিছু অন্যায় কাজ করে থাকেন তাহলে ভয় আছে। আমার কাছেই তো কত লোক যায়। আমি তাদের চিনিও না।’ রাজ্য বিজেপি সভাপতির দাবি, ‘তৃণমূল কংগ্রেস দলীয় নেতাদের বাঁচানোর চেষ্টা করছেন। এমপিরাও কারও সঙ্গে দেখা করেন না। দেখা করতে গেলে মোবাইল ফোন জমা রেখে ঢুকতে হয়। আমরা জানি না কেন এর প্রয়োজন হয়?’ 

এর পরই দিলীপবাবু বলেন, ‘নিশ্চই সেখানে অবৈধ কোনও কাজ হয়। নইলে কেউ কারও অফিসে যাবে না? আমি তো সাংসদ, আমার কাছে কত লোক আসেন।’

বলে রাখি, শনিবার বালিগঞ্জে অটোমোবাইল অ্যাসোসিয়েশন অফ ইস্টার্ন ইন্ডিয়ার দফতরে অনুমতি না নিয়ে মদন মিত্রের ভিডিয়ো তোলার অভিযোগ ওঠে ৩ জনের বিরুদ্ধে। এদের মধ্যে ২ জন বিজেপি কর্মি ও ১ জন প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র বলে জানা গিয়েছে। বিষয়টি টের পেতে বালিগঞ্জ থানায় খবর দেন মদনবাবু। বালিগঞ্জ থানার পুলিশ এসে ৩ জনকেই গ্রেফতার করে। 

 

বন্ধ করুন