বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ‌ভাড়া নিয়ে বচসা, আক্রান্ত প্রতিবেশীকে বাঁচাতে গিয়ে বাড়িওয়ালার হাতে খুন ভাড়াটে
প্রতীকী ছবি
প্রতীকী ছবি

‌ভাড়া নিয়ে বচসা, আক্রান্ত প্রতিবেশীকে বাঁচাতে গিয়ে বাড়িওয়ালার হাতে খুন ভাড়াটে

  • স্থানীয়দের অভিযোগ, পুরনো ভাড়াটেদের অন্যায়ভাবে তুলে দেওয়ার পরিকল্পনা ছিল বাড়িওয়ালাদের। এর জন্য ভাড়াটেদের ওপর নানারকম অত্যাচারও চলত।

বাড়িওয়ালার হাতে আক্রান্ত ভাড়াটে। আর তাঁকে বাঁচাতে গিয়ে খুন হতে হল আর এক ভাড়াটেকে। শনিবার রাতে ঘটনাটি ঘটে ট্যাংরা থানা এলাকায়। এ ঘটনায় বাড়িওয়ালা অশোক দাস–সহ গ্রেফতার করা হয়েছে ৭ জনকে। এলাকায় উত্তেজনা থাকায় মোতায়ন করা হয়েছে পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ট্যাংরা থানা এলাকার ৩৮ নম্বর ডি সি দে রোডের বাড়িতে দীর্ঘদিন ধরে ভাড়ায় রয়েছে কয়েকটি পরিবার। তাঁদের মধ্যে ভাড়াটে সুনীল দাসের সঙ্গে বেশ কয়েকদিন ধরেই বিবাদ চলছিল বাড়িওয়ালা অশোক দাসের। স্থানীয়দের অভিযোগ, পুরনো ভাড়াটেদের অন্যায়ভাবে তুলে দেওয়ার পরিকল্পনা ছিল বাড়িওয়ালাদের। এর জন্য ভাড়াটেদের ওপর নানারকম অত্যাচারও চলত।

শনিবার রাতেও ভাড়া নিয়ে দু’‌পক্ষের মধ্যে বচসা শুরু হয়। তখনই বাড়িওয়ালা অশোক দাসের ছেলে ভাড়াটে সুনীল দাসের মাথায় ইট দিয়ে মারে। রাস্তায় লুটিয়ে পড়েন সুনীল। তাঁকে বাঁচাতে গেলে আর এক ভাড়াটে মনোজ রামের পেটে ভাঙা কাঁচ জাতীয় ধারালো বস্তু ঢুকিয়ে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। রক্তাক্ত অবস্থায় বছর একত্রিশের মনোজকে এনআরএস হাসপাতালে নিয়ে গেলে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা।

ইতিমধ্যে বাড়িওয়ালা–সহ ৭ জনকে গ্রেফতার করে তদন্ত শুরু করেছে ট্যাংরা থানার পুলিশ। ঘটনাস্থলে তদন্তে যান ডিসি ইএসডি অজয় প্রসাদ। অভিযুক্তদের কড়া শাস্তির দাবি জানিয়েছেন প্রতিবেশীরা। এলাকায় উত্তেজনা থাকায় মোতায়ন করা হয়েছে পুলিশ।

বন্ধ করুন