বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > করোনা আবহে বৈষম্যের অভিযোগ, রাজ্যের জন্য টিকার দাম কমানোর দাবি মমতার
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)

করোনা আবহে বৈষম্যের অভিযোগ, রাজ্যের জন্য টিকার দাম কমানোর দাবি মমতার

  • এদিন এক টুইট বার্তায় এদিন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় লেখেন, কেন্দ্র দিক বা রাজ্য, ভারত সরকারের উচিত কোভিড টিকার দাম এক রাখা।

কয়েকদিন আগেই সিরাম ইনস্টিটিউটের তরফে জানানো হয়েছিল যে রাজ্যগুলিকে করোনা টিকা কিনতে হলে ডোজ প্রতি খরচ করতে হবে ৪০০ টাকা। তবে কেন্দ্রকে সেই টিকা বিক্রি করা হবে ১৫০ টাকা প্রতি ডোজ। আর সিরামের এই ঘোষণার পরই সরব হয়েছিলেন দেশের বিরোধী নেতারা। কেন্দ্রকে তোপ দেগেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই পরিস্থিতিতে ফের একবার কেন্দ্র ও রাজ্যের জন্য করোনা টিকার দাম এক রাখার দাবি জানালেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যদিও গতকাল রাতেই সিরামের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়, চুক্তি পরবর্তী নতুন যে টিকা কেন্দ্র সিরাম থেকে কিনবে, সেগুলির জন্য তাদেরকেও রাজ্যগুলির মতো ৪০০ টাকা প্রতি ডোজ খরচ করতে হবে।

এদিন এক টুইট বার্তায় এদিন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় লেখেন, 'বিজেপি সবসময় এক দেশ, এক দল, এক নেতার কথা বলে। কিন্তু মানুষের জীবন রক্ষার জন্য তাঁরা টিকার এক দাম রাখতে পারে না। বয়স, ধর্ম, বর্ণ, অবস্থান নির্বিশেষে প্রত্যেক ভারতীয়ের বিনামূল্যে টিকা প্রয়োজন। কেন্দ্র দিক বা রাজ্য, ভারত সরকারের উচিত কোভিড টিকার দাম এক রাখা।'

উল্লেখ্য, রাজ্য সরকারগুলিকে ৪০০ টাকায় এবং বেসরকারি হাসপাতালকে ৬০০ টাকা প্রতি ডোজ দরে কোভিশিল্ড টিকা বিক্রি করবে বলে জানিয়েছে সিরাম ইন্সটিটিউট। যদিও চুক্তি থাকায় কেন্দ্রীয় সরকারকে ডোজ প্রতি ১৫০ টাকায় টিকা বিক্রি করবে সংস্থাটি। সিরামের এই ঘোষণার পরই দামের বৈষম্যের অভিযোগ তুলে সরব হয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

যদিও গতকাল রাতেই সিরামের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়, প্রাথমিক ভাবে কেন্দ্রীয় সরকারের সঙ্গে যে টিকা বিক্রি করার চুক্তি হয়েছিল, তার প্রেক্ষিতে ১৫০ টাকা প্রতি ডোজে টিকা বিক্রি করা হবে কেন্দ্রকে। তবে নতুন যেই টিকা বিক্রি করা হবে, তা কেন্দ্রকেও ৪০০ টাকা প্রতি ডোজ দরেই কিনতে হবে। এদিকে, ১ এপ্রিল তারিখ থেকে ১৮ বছরের ঊর্ধ্বে সকলের জন্য টিকাকরণ শুরু হতে চলেছে। এর জন্য রেজিস্ট্রেশন করা যাবে ২৪ এপ্রিল থেকেই।

বন্ধ করুন