বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > WB Assembly: শাসক-বিরোধী দু’পক্ষকেই পোস্টার, প্ল্যাকার্ড নিয়ে প্রবেশে না স্পিকারের
বিধানসভা

WB Assembly: শাসক-বিরোধী দু’পক্ষকেই পোস্টার, প্ল্যাকার্ড নিয়ে প্রবেশে না স্পিকারের

  • সোমবারই অধিবেশনের দ্বিতীয় পর্বে কেন্দ্রীয় এজেন্সিগুলির ’অতিসক্রিতা’র বিরুদ্ধে নিন্দা প্রস্তাব আনছে তৃণমূল। এই প্রস্তাবকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত হতে হবে পারে বিধানসভার অধিবেশন। তাই শুরুতেই শাসক ও বিরোধী উয় দলকেই সতর্ক করে দিয়েছেন স্পিকার।

গত সপ্তাহে পোস্টার, প্ল্যাকার্ড, স্লোগানে উত্তপ্ত হয়েছিল বিধানসভা। ব্যাহত হয়েছিল কাজ। তাই সোমবার অধিবেশনের শুরুতেই এই ধরনের পোস্টার, প্ল্যাকার্ড নিয়ে স্লোগান, পিকেটিং-এ ’না’ করলেন স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়। অধিবেশনের শুরুতেই তিনি বিধানসভার নিয়মাবলী পড়ে শোনান তিনি। সোমবারই অধিবেশনের দ্বিতীয় পর্বে কেন্দ্রীয় এজেন্সিগুলির ’অতিসক্রিতা’র বিরুদ্ধে নিন্দা প্রস্তাব আনছে তৃণমূল। এই প্রস্তাবকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত হতে হবে পারে বিধানসভার অধিবেশন। তাই শুরুতেই শাসক ও বিরোধী উয় দলকেই সতর্ক করে দিয়েছেন স্পিকার।

প্রসঙ্গত সোমবারই বিধানসভা মুখোমুখি হতে পারেন মমতা শুভেন্দু। তৃণমূলের আনা প্রস্তাবের পক্ষে বক্তব্য রাখবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রায় আধ ঘণ্টা ধরে তিনি বক্তব্য রাখতে পারেন বলে বিধানসভার সচিবালয় সূত্রে খবর। এ ছাড়া শাসক দলের পক্ষে অন্তত সাত থেকে আটজন বক্তব্য রাখবেন। বিরোধীদের পক্ষে কতজন বক্তব্য রাখবেন তা জানা যায়নি। সূত্রে খবর, বিজেপির পক্ষে বিরোধী দলনেতা বলবেন কি না তা এখনও স্পষ্ট নয়। তাঁরা শাসকদলের বক্তব্য চলাকালীন ওয়াকআউটও করে পারেন বলে সূত্রে খবর। তবে অন্য একটি সূত্র বলছে, এই প্রস্তাবের বিপক্ষে বক্তব্য রাখতে পারেন শুভেন্দু অধিকারী। কারণ, এর ফলে তাঁদের বক্তব্য বিধানসভার কার্যবিবরণীতে নথিভুক্ত হয়ে থাকবে।

তবে সব মিলিয়ে দ্বিতীয়ার্ধে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল, তাই আগেভাগে দু’পক্ষকে

ই সতর্ক করে দিয়েছেন স্পিকার।

 

বন্ধ করুন