বাড়ি > ব্র্যান্ড পোস্ট > স্থানীয় ব্যবসা, ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের উন্নতিতে নয়া উদ্যোগ ফ্লিপকার্ট হোলসেলের
ফ্লিপকার্ট হোলসেলের লোগো।
ফ্লিপকার্ট হোলসেলের লোগো।

স্থানীয় ব্যবসা, ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের উন্নতিতে নয়া উদ্যোগ ফ্লিপকার্ট হোলসেলের

  • ২ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হওয়া এই পরিষেবায় আপাতত বিভিন্ন ফ্যাশনের সামগ্রী যেমন, জুতো এবং পোশাকের লেনদেন করা যাচ্ছে শুধুমাত্র গুরুগ্রাম, দিল্লী এবং বেঙ্গালুরু শহরে।

স্থানীয় ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পোদ্যোগ (‌MSME)‌ এবং মুদি বা হরেকরকম সামগ্রীর দোকানের সঙ্গে এবার গাঁটছড়া বাধতে চলেছে ফ্লিপকার্ট হোলসেল। স্থানীয় ব্যবসা এবং শিল্পগুলিকে এক ছাদের তলায় আনতে নতুন ডিজিটাল প্লাটফর্মের সূচনা করা হয়েছে। আপাতত প্রথম পর্যায়ে ফ্লিপকার্ট হোলসেলের লক্ষ্য ফ্যাশন বিভাগে স্থানীয় ৫০টি ব্র‌্যান্ড এবং ২৫০টি উৎপাদক সংস্থার সঙ্গে কাজ শুরু করার।

ফ্লিপকার্টের তরফে একটি প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, ফ্লিপকার্ট হোলসেলের সঙ্গে যুক্ত হলে স্থানীয় ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পোদ্যোগ বা মুদি সামগ্রীর দোকান অর্থাৎ খুচরো ব্যবসায়ীরা সহজে ঋণের সুবিধা নিতে পারবেন। মিলবে সঠিক গুণমানের বিভিন্ন পণ্যের বিশাল সম্ভার। ক্ষুদ্রতর বাজারের স্তরে B2B এবং B2C লেনদেন পরিষেবার পাশাপাশি সহজতর অর্ডার ট্র্যাকিংয়ের সুবিধাও মিলবে ফ্লিপকার্ট হোলসেল প্লাটফর্মে।

২ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হওয়া এই পরিষেবায় আপাতত বিভিন্ন ফ্যাশনের সামগ্রী যেমন, জুতো এবং পোশাকের লেনদেন করা যাচ্ছে শুধুমাত্র গুরুগ্রাম, দিল্লী এবং বেঙ্গালুরু শহরে। শীঘ্রই মুম্বইতেও এই পরিষেবা মিলবে বলে ফ্লিপকার্টের তরফে জানানো হয়েছে। এই বছরের মধ্যেই আরও ২০টি শহরে ফ্লিপকার্ট হোলসেলের পরিষেবা পৌঁছে দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে। এর পর বাড়ি ও রান্নাঘরের বিভিন্ন সামগ্রী এবং মুদিমালের পাইকারি ব্যবসায় নিজেদের ছড়িয়ে দিতে চাইছে ফ্লিপকার্ট হোলেসেল। এই অ্যাপটি পাওয়া যাবে গুগল প্লে স্টোরে।

বন্ধ করুন