বাংলা নিউজ > ব্র্যান্ড পোস্ট > সেরা ক্যামেরা ও প্রাইভেসি ফিচার Samsung Galaxy A51 ও A71-কে করে তুলেছে অভাবনীয়
সর্বোচ্চ-মানের ক্যামেরা ও প্রাইভেসি ফিচার Samsung A51 ও A71-কে করেছে অভাবনীয় (ছবি সৌজন্য সংগৃহীত)
সর্বোচ্চ-মানের ক্যামেরা ও প্রাইভেসি ফিচার Samsung A51 ও A71-কে করেছে অভাবনীয় (ছবি সৌজন্য সংগৃহীত)

সেরা ক্যামেরা ও প্রাইভেসি ফিচার Samsung Galaxy A51 ও A71-কে করে তুলেছে অভাবনীয়

  • গ্রাহকের প্রাইভেসি সুরক্ষিত রাখতে, Galaxy A51 ও Galaxy A71-এ একগুচ্ছ আপডেট করেছে Samsung। এর মধ্যে সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য হল ‘কুইক সুইচ’। যা আপনাকে গ্যালারি, ওয়েব ব্রাউজার ও অ্যাপের (যেমন হোয়াটসঅ্যাপ) প্রাইভেট ও পাবলিক মোডের মধ্যে।

বিভিন্ন কাজের জন্য স্মার্টফোন ব্যবহার করি আমরা। সেটা স্মৃতি রোমন্থন, বন্ধুদের সঙ্গে গেম খেলা হোক বা ওটিটি কনটেন্ট দেখা, স্কুল/কাজের জন্য ভিডিয়ো কল অথবা নোটস নেওয়া যাই হোক না কেন, জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রেই স্মার্টফোন কাজে লাগে।

Samsung Galaxy A51 ও তার বড়ভাই Galaxy A71-এ আপনি এমন একটি প্যাকেজ পাবেন, যা সব প্রয়োজন পূরণ করতে পারে – গেমিং, দুর্দান্ত ছবি তোলা অথবা যাবতীয় পেশাদারি কাজ শেষ করা। Samsung-এর ভাষায়, উভয় স্মার্টফোনই নিয়ে এসেছে ‘চমৎকার স্ক্রিন, চমৎকার ক্যামেরা ও একটি দীর্ঘস্থায়ী ব্যাটারি আয়ু’-র অভিজ্ঞতা।

গবেষণা সংস্থা ‘স্ট্র্যাটেজি অ্যানালিটিক্স’ অনুযায়ী, চলতি বছরের প্রথম ত্রৈমাসিকে Galaxy A51 হল পৃথিবীর সর্বোচ্চ বিক্রিত অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন। এসব স্মার্টফোন আপনাকে উপভোগ করতে দেয় ‘অল্ট জেড লাইফ’ – এমন জীবন যেখানে আপনার ব্যক্তিগত মুহূর্ত থাকে ব্যক্তিগতই।

‘অল্ট জেড লাইফ’ : প্রাইভেসি প্রথম

আজকের দিনে স্মার্টফোনের গোপনীয়তা (প্রাইভেসি) সংক্রান্ত বহু সমস্যার মুখোমুখি হতে হয় জেন জেড ও মিলেনিয়ালদের। এটা মাথায় রেখে ‘অল্ট জেড লাইফ’-এর দিকে একটি পথ বের করেছে Samsung। এটা এমন একটা জীবন যেখানে আপনি Galaxy A51 ও Galaxy A71-এর সব ফিচার উপভোগ করতে পারেন, পাশাপাশি আপনার গোপনীয়তা সম্পর্কিত যাবতীয় আশঙ্কাও দূর হয়।

কিছু অস্বস্তিকর মুহূর্তের আশঙ্কা সবসময়ই থাকে। যেমন যখন কোনও ভাই বা বোন কিংবা কোনও বন্ধু আপনার স্মার্টফোন দেখতে চান। তাঁরা হয়তো শুধু দেখতে চান একটি ফোটো, যা আপনি এইমাত্র তুলেছেন অথবা কোনও গেম খেলতে চান, যা আপনি তাঁদের সুপারিশ করেছিলেন। কিন্তু সেরকম মুহূর্তে আপনি কিছুটা অস্বস্তি অনুভব করবেনই।

Samsung দুটি নতুন ফিচার প্রবর্তন করেছে Galaxy A51 ও A71-তে। যার ফলে নিজের স্মার্টফোন নির্দ্বিধায় অন্য কারোর হাতে দিতে পারেন।

রয়েছে ‘কুইক সুইচ’। যেমন নাম বোঝাচ্ছে, তেমনই দ্রুত আপনাকে গ্যালারি, হোয়াটসঅ্যাপ ও অন্যান্য অ্যাপের প্রাইভেট থেকে পাবলিক মোডে সুইচ করতে দেয় সেই ফিচার। এটা করা যায় শুধুমাত্র পাওয়ার বাটনে একটি ডাবল ক্লিকেই। যখন আপনি অফিসে কোনেও প্রেজেন্টেশন দিচ্ছেন কিংবা আপনার পারিবারিক সদস্যদের সরিয়ে যখন অফিসে কোনও ছবি দেখাচ্ছেন - সেইসব মুহূর্তের জন্য ‘কুইক সুইচ’ হল একটি লাইফ সেভার।

ইনটেলিটেজন্ট ‘কনটেন্ট সাজেশনস’ হল একটি অন-ডিভাইস এআই-পাওয়ার্ড সলিউশন। যা সেইসব ছবি সুপারিশ করে, যেগুলি অবশ্যই গ্যালারির প্রাইভেট ভার্সনে সুরক্ষিত থাকা উচিত। বিভিন্ন পরিস্থিতিতে এই ফিচার অত্যন্ত উপকারী। যেমন - আপনি কোনেও সাপ্তাহান্তিক ছুটি কাটিয়ে সবেমাত্র ফিরেছেন এবং আপনাকে সোজা অফিসে যেতে হবে। আপনি যেসব মুখ অথবা ইমেজ ব্যক্তিগত রাখতে চান সেগুলি শুধু বেছে নিন। বাকিটা এআই করবে!

এই তালিকার শীর্ষে প্রাইভেসি চমৎকারিত্ব

এখানে অভিনেত্রী রাধিকা মদন আমাদের দেখাচ্ছেন, কীভাবে তিনি ‘কুইক সুইচ’-এর শক্তি ব্যবহার করেন, যাতে তাঁর বোন (অভিনয় করেছেন শিখা তালসানিয়া) সম্পূর্ণ অন্যকিছু দেখেন যখন তিনি তাঁর মোবাইলে উঁকি মারার চেষ্টা করেন।

ফিচারগুলি আরও ভালোভাবে বুঝতে এই ভিডিয়ো দেখুন।

এখন, কে এই ধরনের প্রাইভেসি বজায় রাখতে পছন্দ করবেন না? Samsung Knox দ্বারা ‘কুইক সুইচ’ সুরক্ষিত, একটি মিলিটারি-গ্রেড সুরক্ষা স্তর নির্মিত Galaxy A51 ও Galaxy A71 স্মার্টফোনের হার্ডওয়্যার ও সফটওয়্যার উভয় ক্ষেত্রেই।

ফ্ল্যাগশিপ ক্যামেরা ফিচার

এখন আমরা চোখ রাখব দুটি ফোনের ফ্ল্যাগশিপ ক্যামেরা ফিচারে।

প্রতিযোগিতায় আপনার বন্ধুর দৌড়ের বিস্তারিত ফোটো নিতে চান? পরখ করুন। দূর থেকে ইন্ডিয়া গেটের কৌণিক শট নিতে চান? যাচাই করুন। আপনার বন্ধুর পোর্ট্রেট শট নিতে চান? পরীক্ষা করুন। একটি পাতার উপর ওই গুবড়েপোকার স্ন্যাপ নিতে চান? দেখে নিন। এগুলি সবই সম্ভব Galaxy A51 ও Galaxy A71-এ। উভয় স্মার্টফোনেই রয়েছে তাদের নিজস্ব কোয়াড-ক্যামেরা সেট আপ।

Galaxy A51-এ আছে একটি ৪৮ মেগাপিক্সেল প্রাইমারি সেন্সর, একটি ১২ মেগাপিক্সেল ওয়াইড-অ্যাঙ্গেল ক্যামেরা, একটি ৫ মেগাপিক্সেল ডেপথ সেন্সর ও ৫ মেগাপিক্সেল ম্যাক্রো ক্যামেরা। একইসঙ্গে সামনের দিকে (ফ্রন্টে) রয়েছে একটি ৩২ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা।

অন্যদিকে, Galaxy A71-এর রিয়ারে আছে একটি প্রাইমারি ৬৪ মেগাপিক্সেল লেন্স, একটি ১২ মেগাপিক্সেল আল্ট্রা-ওয়াইড লেন্স (দৃষ্টির ১২৩ ডিগ্রি ফিল্ড-সহ), একটি ৫ মেগাপিক্সেল ম্যাক্রো ক্যামেরা ও একটি ৫ মেগাপিক্সেল ডেপথ ক্যামেরা এবং ফ্রন্টে রয়েছে একটি ৩২ মেগাপিক্সেল সেলফি শুটার।

আরও আকর্ষণীয় তথ্য হল যে Galaxy S20 থেকে Galaxy A51 ও Galaxy A71-এ ফ্ল্যাগশিপ ক্যামেরা ফিচার নিয়ে এসেছে Samsung। নীচে সেই ফিচারগুলি দেওয়া, যা ব্যবহার করলে আপনিও রোমাঞ্চিত হবেন :

- সিঙ্গল টেক : এটা Galaxy S20-র সেরা ফিচার এবং গ্রাহকরা জেনে খুশি হবেন যে এখন এটা Galaxy A51-তেও পাওয়া যায়। সিঙ্গল টেক ফিচার ১০ ফোটো ও ভিডিয়ো পর্যন্ত ক্যাপচার করতে পারে। পারফেক্ট ফোটো কীভাবে ফ্রেম করবেন, সে বিষয়ে আপনার দু'বার ভাবার দরকার নেই।

ফলাফল দেখতে শুধুমাত্র গ্যালারিতে যেতে হবে। Samsung-এর সিঙ্গল টেক ফিচার সেরা শট ও মুহূর্ত ম্যাজিকের মতো তোলে এবং এগুলিকে ধরে রাখে একটি অ্যালবামে। আপনি পাবেন একটি শর্ট মুভি, কয়েকটি জিআইএফ অ্যানিমেশন, একগুচ্ছ স্টাইলাইজড ইমেজ এবং আরও অনেককিছু - সবই এআই ব্যবহার করে।

- নাইট হাইপারল্যাপ্স : কোনেও শহরে পর্যটকের মতো ঘুরে বেড়ানো সবসময় একটা দুর্দান্ত অভিজ্ঞতা। সেইসব মুহূর্ত ক্যাপচার এবং পরে সেগুলি দেখে স্মৃতি রোমন্থন করতে আমরা সবাই ভালোবাসি। হাইপারল্যাপ্স – এমন একটি ফিচার যা জনসাধারণকে তাঁদের নিজস্ব টাইম-ল্যাপ্স ভিডিয়ো তুলতে দেয় – সম্প্রতি জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। Samsung-এর নাইট হাইপারল্যাপ্স ফিচারকে ধন্যবাদ কারণ Galaxy A51-তে হাইপারল্যাপ্স ভিডিয়োর ফলাফল স্পষ্ট ও উজ্জ্বল, এমনকী মধ্যরাতেও। লং-এক্সপোজার শটের সেকেন্ড রূপান্তরিত হয় একটি ভিডিয়ো আর্টের কাজে লাইট ও মোশন ট্রেল-সহ।

- কাস্টম ফিল্টার : আপনার ফোটোগুলিতে নিজস্ব ছোঁয়া দিতে এটি একটি সম্পূর্ণ নতুন উপায়। রং পরিবর্তন থেকে ব্লারের বিভিন্ন শেডে ব্যাকগ্রাউন্ড পরিমার্জন পর্যন্ত নতুন ‘কাস্টম ফিল্টার’ মোড বিস্তৃত কল্পনাকে প্রয়োগ করতে দেয়।

- স্মার্ট সেলফি অ্যাঙ্গেল : ফ্রন্ট ক্যামেরা দিয়ে শুটিঙের সময় ফ্রেমে একের বেশি ব্যক্তি থাকলে ক্যামেরা বুদ্ধিমত্তার সঙ্গে সুইচ করে ওয়াইড-অ্যাঙ্গেল মোডে। প্রত্যেকবার এবং সর্বদা দুর্দান্ত সেলফি ওঠে।

- কুইক ভিডিয়ো : ক্যামেরা বাটনে একটি লং প্রেস-এ একটি দ্রুত ভিডিয়ো নেওয়া যেতে পারে। সেইসব দিন চলে গেছে যখন একটি ভিডিয়োযোগ্য মহূর্ত হাতছাড়া হত কারণ আপনাকে ভিডিয়ো মোডে যাওয়ার জন্য সেটিংসে হন্যে হয়ে খুজতে হত। শুধুমাত্র আপনার স্মার্টফোন নিন, ক্যামেরা বাটনে লং প্রেস করুনএবং সেইসব বিশেষ মুহূর্তের রেকর্ডিং শুরু করুন, সেটা কোনেও প্রতিযোগিতায় আপনার বন্ধুর দৌড় হোক কিংবা আপনার জন্মদিনের অনুষ্ঠানে কোনোও আত্মীয়ের গান গাওয়াই হোক।

- রেকর্ডিংয়ের সময় ক্যামেরা সুইচিং : রেকর্ডিং থামিয়ে ফ্রন্ট থেকে রিয়ার ক্যামেরায় যেতে কিংবা এর উলটোটা করা কখনেওই সহজ নয়। বর্তমানে একমাত্র Galaxy A51-এ এই ফিচার পাওয়া যায়। যা কোনও বাধা ছাড়াই ফ্রন্ট ও রিয়ার ক্যামেরায় সুইচ করার সুবিধা-সহ আপনাকে রেকর্ডিংয়ের সময় শ্রেষ্ঠ মুহূর্তগুলি ক্যাপচার করতে দেয়।

এআই গ্যালারি জুম : আপনার Samsung স্মার্টফোন এআই গ্যালারি জুম-এ লো-রেস ইমেজের মান উন্নত করতে দেয় আপনাকে। এটি ব্লার ও পিক্সিলেটেড ছবি তীক্ষ্ণ করে শিল্পকলার নিরিখে!

Galaxy A51 সম্পর্কে আরও কিছু

এই ফোন আসে দুটি ভ্যারিয়ান্টে :

- ৬ GB র‌্যাম এবং অনবোর্ড স্টোরেজ ১২৮ GB, ২২,৯৯৯ টাকা

- ৮ GB র‌্যাম এবং অনবোর্ড স্টোরেজ ১২৮ GB, ২৪,৪৯৯ টাকা

দুটি ভ্যারিয়ান্টই পাওয়া যায় চারটে রঙে – প্রিজম ক্রাশ হোয়াইট, প্রিজম ক্রাশ ব্ল্যাক, প্রিজম ক্রাশ ব্লু ও হেজ ক্রাশ সিলভার। আপনি কোন রং পছন্দ করেন সেটা কোনও বিষয় নয়, আপনি যে কোনের রঙেরই ফোন কিনুন না কেন, Galaxy A51 হবে নজরকাড়া।

Galaxy A51 টেবিলে আনে ৬.৫ ইঞ্চি সুপার অ্যামোলেড ফুল-এইচডি + (১,০৮০ x ২,৪০০ পিক্সেল) ডিসপ্লে এবং এটি একটি অক্টা-কোর এক্সিনক্স ৯,৬১১ SoC দ্বারা পাওয়ার্ড। দুরন্ত ভিউয়িং অ্যাঙ্গেল-সহ একটি স্পষ্ট ও শক্তিশালী ডিসপ্লের অর্থ হল যে আপনি এবং আপনার বন্ধুরা একসঙ্গে ফোটো কিংবা ইউটিউবে ভিডিয়ো দেখতে পারেন কোনও অস্বস্তি ছাড়াই।

এই স্মার্টফোনে আছে ৪,০০০ mAh ব্যাটারি সহ ১৫W ফাস্ট চার্জিং। যা সেইসব দীর্ঘ গেমিং অথবা বিঞ্জ-ওয়াচিং সেশনের জন্য খুবই প্রয়োজনীয়। চলে ওয়ান ইউআই ২.০ সফটওয়্যারে (অ্যান্ড্রয়েড ১০-এর ভিত্তিতে)।

A71-এ অন্যান্য আকর্ষণীয় ফিচার

Galaxy A71-এ আছে ৬.৭-ইঞ্চি (১,০৮০ x ২,৪০০ পিক্সেল) ইনফিনিটি-ও সুপার অ্যামোলেড প্লাস ডিসপ্লে, এবং কোয়ালকম-এর স্ন্যাপড্রাগন ৭৩০ অক্টা-কোর চিপসেট দ্বারা পাওয়ার্ড। আপনি দৈনিক ভিত্তিতে যেসব বহুমুখী কাজ করেন, ৮ GB র‌্যাম এবং ১২৮ GB স্টোরেজে সব কাজের জন্যই পর্যাপ্ত পরিসর আছে।

এই ফোনে ব্যাকআপ দেয় ৪,৫০০ mAh ব্যাটারি ১৫ W ফাস্ট চার্জিঙের সাহায্যে। Galaxy A71 আসে একটি একক ৮ GB+১২৮ GB ভ্যারিয়ান্টে যার দাম ২৯,৪৯৯ টাকা।

উভয় স্মার্টফোনের এরকম একটি প্যাকেজে, বিঞ্জ-ওয়াচিং, কল অব ডিউটি : মোবাইল সেশন, এবং ফোটোশুট হয়ে উঠবে চরম আনন্দের। আপনি এগুলিতে কী রাখছেন সেটা কোনেও বিষয়ই নয়, এগুলি আপনার সব কাজ প্রত্যয়ের সঙ্গে বহন করবে এবং আপনার স্মার্টফোনের প্রাইভেসি নিয়ে আপনাকে আর কখনও বিব্রত হতে হবে না!

সতর্কীকরণ (ডিসক্লেমার) : এই তথ্যাদি প্রস্তুত করেছে ব্র্যান্ড সলিউশনস টিম। এই প্রবন্ধ লেখার কাজে HT Media-র কোনও সাংবাদিক নিযুক্ত ছিলেন না। এই প্রবন্ধে লেখা তথ্যের সত্যনিষ্ঠতা, প্রাসঙ্গিকতা, যথার্থতা, বৈধতা নিয়ে কোনও দাবি করে না HT Media।

বন্ধ করুন