দণ্ডিতদের আর্জি খারিজ, এবার ফাঁসির অপেক্ষায় নির্ভয়ার পরিবার (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)
দণ্ডিতদের আর্জি খারিজ, এবার ফাঁসির অপেক্ষায় নির্ভয়ার পরিবার (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)

খারিজ পবনের আর্জি, কাল ফাঁসি নির্ভয়ার দণ্ডিতদের, সুপ্রিম কোর্টে মুকেশ

  • আগামী ২০ মার্চ সকাল সাড়ে ৫টায় নির্ভয়ার পরিবারের দীর্ঘ প্রতীক্ষার অবসান হতে চলেছে বলে মত আইনি মহলের।

অন্যবারের মতো আর শেষমুহূর্তে এসে ভেস্তে যাচ্ছে না। বরং চতুর্থ মৃত্যু পরোয়ানা অনুযায়ী নির্ধারিত সময়েই ফাঁসি হবে নির্ভয়াকাণ্ডের তার দণ্ডিতের।

আরও পড়ুন :'ফাঁসির পর সবথেকে বড় জয় হবে', দণ্ডিতদের বিরুদ্ধে মৃত্যু পরোয়ানা জারির পর বললেন নির্ভয়ার মা

দিনের শুরুতেই এক দণ্ডিত পবন গুপ্তের ফাঁসি আটকানোর কৌশল সুপ্রিম কোর্টে ধাক্কা খায়। সেই নৃশংস ঘটনার সময় সে নাবালক ছিল বলে পবন যে দাবি করেছিল, তা গত ২০ জানুয়ারি খারিজ করে দিয়েছিল শীর্ষ আদালত। আজ পবনের কিউরেটিভ পিটিশনও খারিজ করে দেয় ছয় সদস্যের ডিভিশন বেঞ্চ। বিচারপতি এন ভি রামান্নার নেতৃত্বাধীন বেঞ্চ জানায়, মৌখিক শুনানির আর্জি খারিজ করা হয়েছে। কিউরেটিভ পিটিশন ও অন্যান্য প্রয়োজনীয় নথি খুঁটিয়ে দেখা হয়েছে। রূপা হুরা বনাম অশোক হুরা মামলা সুপ্রিম কোর্টের সিদ্ধান্তের ভিত্তিতে কোনও মামলা তৈরি করা যায়নি। সেজন্য পবনের কিউরেটিভ পিটিশন খারিজ করে দেওয়া হচ্ছে।

আরও পড়ুন : ফাঁসিতে স্থগিতাদেশ চেয়ে আন্তর্জাতিক ন্যায় আদালতে গেল নির্ভয়া দণ্ডিতর

অন্যদিকে, পবন ও অপর দণ্ডিত অক্ষয় সিংয়ের দ্বিতীয় প্রাণভিক্ষার আর্জিতে সাড়া দেননি রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ। তখনই নিশ্চিত হয়ে যায়, আগামী ২০ মার্চ সকাল সাড়ে ৫টায় নির্ভয়ার পরিবারের দীর্ঘ প্রতীক্ষার অবসান হতে চলেছে।

আরও পড়ুন : স্বেচ্ছামৃত্যু চেয়ে রাষ্ট্রপতিকে চিঠি নির্ভয়া দণ্ডিতদের পরিবারের

যদিও কিছুক্ষণ পরই আবার সুপ্রিম কোর্টে যায় অপর এক দণ্ডিত মুকেশ সিং। ২০১২ সালের ১৬ ডিসেম্বর সেই নৃশংস ঘটনার দিন সে দিল্লিতে ছিল না বলে দাবি জানিয়েছে সে। যে আর্জি অবশ্য গত বুধবারই খারিজ করে দিয়েছিল দিল্লি হাইকোর্ট। তাতেও ফাঁসি পিছোনোর সম্ভাবনা নিতান্তই কম বলে মতে আইনি মহলের।

বন্ধ করুন