ময়না তদন্তের জন্য মর্গে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে ৮ হতভাগ্যের দেহ। মঙ্গলবার, কাঠমান্ডুতে।
ময়না তদন্তের জন্য মর্গে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে ৮ হতভাগ্যের দেহ। মঙ্গলবার, কাঠমান্ডুতে।

নেপালে রিসর্টের ঘর থেকে উদ্ধার ৮ ভারতীয়র দেহ

দরজা ভেঙে ঢুকে ঘরের ভিতরে আট ভারতীয় পর্যটককে পড়ে থাকতে দেখা যায়। হাসপাতালে নিয়ে গেলে তাঁদের মৃত ঘোষণা করেন চিকিত্সকরা।

নেপালে কাঠমান্ডুর এক রিসর্টে একসঙ্গে মৃত্যু হল আট ভারতীয়র। অভিযোগ, বন্ধ ঘরের ভিতরে শ্বাসরোধ হয়ে মারা গিয়েছেন কেরালার ওই ৮ বাসিন্দা।

মঙ্গলবার সকালে রিসর্টের ওই ঘরের দরজা বন্ধ থাকতে দেখেন কর্মীরা। বেলা গড়িয়ে গেলেও ঘরের দরজা না খোলায় ভিতরে থাকা বাসিন্দাদের সম্পর্কে উদ্বেগ ঘনায়।

শেষে দরজা ভেঙে ঢুকে ঘরের ভিতরে আট ভারতীয় পর্যটককে পড়ে থাকতে দেখা যায়। হাসপাতালে নিয়ে গেলে তাঁদের মৃত ঘোষণা করেন চিকিত্সকরা।

স্থানীয় পুলিশের দাবি, শ্বাসরোধ হয়ে পর্যটকদের মৃত্যু হয়েছে। মকওয়ানপুর জেলার পুলিশ সুপারিন্টেন্ডেন্ট সুশীল সিং রাঠোর জানিয়েছেন, ‘নিহতদের পরিচয় এখনও জানা যায়নি। ঘরের ভিতরে তাঁরা গ্যাস হিটার ব্যবহার করছিলেন। শ্বাসরোধ হয়ে ওঁদের মৃত্যু হয়েচে বলে প্রাথমিক তদন্তে দাবি করা হয়েছে।’

হোটেলের ম্যানেজার জানিয়েছেন, চারটি ঘর বুক করলেও আট পর্যটক একটি ঘরেই রাতে শুতে যান। ঠান্ডা এড়াতে তাঁরা গ্যাসচালিত রুম হুটার ব্যবহার করেন। ঘরের সমস্ত দরজা ও জানলা বন্ধ থাকায় হিটারের গ্যাস বেরোনোর রাস্তা না পেয়ে ঘরে জমতে থাকে ও বিপত্তি ঘটায়।

নিহতদের নাম ও ঠিকানা প্রকাশ করেছে কাঠমান্ডু পুলিশ। ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছেন কেরালার বাসিন্দা প্রবীণ কৃষ্ণণ নায়ার, শরণ্য শশী, শ্রাীভদ্র প্রবীণ, আর্চা প্রবীণ, অঊিনব শরণ্য নায়ার, রঞ্জিত কুমার আদাতোলাত পুনাথিল, ইন্দু লক্ষ্মী পীতামবরণ রাগলতা ও বৈষ্ণব রঞ্জিত।

ঘটনায় নিহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন কেরালার মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন।

বন্ধ করুন