লকডাউন কবলিত জয়পুরের রাস্তায় মোতায়েন মাস্ক পরা পুলিশকর্মীরা। শুক্রবার এএনআই-এর ছবি।
লকডাউন কবলিত জয়পুরের রাস্তায় মোতায়েন মাস্ক পরা পুলিশকর্মীরা। শুক্রবার এএনআই-এর ছবি।

লকডাউনে বাসিন্দাদের ঘরে ফেরৎ পাঠাতে গিয়ে প্রহৃত পুলিশ, আটক ৭

  • অবিলম্বে বাড়ি ফিরে যেতে বললে পুলিশের উপরে ঝাঁপিয়ে পড়ে বারো জনের দল। পুলিশকর্মীদের বেধড়ক মারধর করা হয়।

লকডাউনে রাস্তায় বেরোনো মানুষকে বাড়ি ফেরৎ পাঠাতে গিয়ে রাজস্থানের টংক জেলায় আক্রান্ত হলেন ৫ পুলিশকর্মী। ঘটনায় আহত হলে তাঁদের সরকারি হাসপাতালে ভরতি করা হয়।

শুক্রবার সকালে জেলার পাঁচবাত্তি এলাকার কসাই মহল্লায় টহল দেওয়ার সময় বেশ কয়েক জন বাসিন্দাকে লকডাউন অগ্রাহ্য করে রাস্তায় ঘুরতে দেখে বাধা দেন পুলিশকর্মীরা। তাঁদের অবিলম্বে বাড়ি ফিরে যেতে বললে পুলিশের উপরে ঝাঁপিয়ে পড়ে বারো জনের বেশি একটি দল। পুলিশকর্মীদের বেধড়ক মারধর করা হয়।

জানা গিয়েছে, আহতদের মধ্যে দুই পুলিশকর্মীকে প্রাথমিক চিকিৎসার পরে ছেড়ে দেওয়া হলেও হাসপাতালে ভরতি রয়েছেন বাকি তিন জন।

টংকের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বিপিন শর্মা জানিয়েছেন, ঘটনার কথা জানতে পেরে কসাই মহল্লায় বিশাল পুলিশবাহিনী পাঠানো হয়। এলাকার সাত বাসিন্দাকে ঘটনায় জড়িত সন্দেহে আটক করা হয়েছে। তাঁদের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির একাধিক ধারায় অভিযোগ দায়ের করেছে পুলিশ।

আহত পুলিশ কনবস্টেবলরা হলেন রাজেন্দ্র, রাজারাম, রাজেশ, ভাগচন্দ ও আশারাম। তাঁদের মধ্যে রাজারাম, রাজেন্দ্র ও ভাগচন্দের চোট গুরুতর। তাঁদের অবস্থা আপাতত স্থিতিশীল। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

বন্ধ করুন