বুধবার রাহুলের নেতৃত্বে দাঙ্গা বিধ্বস্ত উত্তর-পূর্ব দিল্লি ঘুরে দেখেন কংগ্রেস প্রতিনিধি দলের সদস্যরা।
বুধবার রাহুলের নেতৃত্বে দাঙ্গা বিধ্বস্ত উত্তর-পূর্ব দিল্লি ঘুরে দেখেন কংগ্রেস প্রতিনিধি দলের সদস্যরা।

পুড়ে খাক দেশের ভবিষ্যৎ, দাঙ্গার আগুনে ভস্মীভূত স্কুল দেখে মন্তব্য রাহুলের

  • হিংসা থেকে কারও লাভ হয় না। তার থেকে শুধুমাত্র মানুষ ও ভারত মাতার ক্ষতিসাধন হয়। ভারতের বিভাজন হল।

দেশের ভবিষ্যৎ গড়ার কারিগর ছিল এই স্কুল। ঘৃণা ও হিংসা তাকে ধ্বংস করেছে। উত্তর-পূর্ব দিল্লির দাঙ্গায় পুড়ে যাওয়া স্কুল দেখে এমনই মন্তব্য করলেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী।

এ দিন রাহুলের নেতৃত্বে দাঙ্গা বিধ্বস্ত ওই অঞ্চল ঘুরে দেখেন কংগ্রেস প্রতিনিধি দলের সদস্যরা। ব্রিজপুরী এলাকার ওই পুড়ে যাওয়া স্কুলের সামনে দাঁড়িয়ে রাহুল বলেন, ‘হিংসা থেকে কারও লাভ হয় না। তার থেকে শুধুমাত্র মানুষ ও ভারত মাতার ক্ষতিসাধন হয়। ভারতের বিভাজন হল।’

গত ২৩ ফেব্রুয়ারি থেকে টানা তিন দিন উত্তর-পূর্ব দিল্লির সাম্প্রদায়িক দাঙ্গায় ৪৬ জনের মৃত্যু হয়েচে, আহত হয়েছেন অসংখ্য মানুষ। এখনও অনেকের সন্ধান মেলেনি। দাঙ্গায় গৃহহীন হয়েছেন অজস্র মানুষ।

পুড়ে যাওয়া স্কুলের সামনে দাঁড়িয়ে এ দিন রাহুল বলেন, ‘এই স্কুল ছিল ভারতের ভবিষ্যৎ। ঘৃণা ও হিংসা তাকে ধ্বংস করেছে। আমাদের ভবিষ্যৎ এখানে পুড়ে খাক হয়ে গিয়েছে।’

দিল্লি দাঙ্গা নিয়ে সংসদে আলোচনার জন্য চাপ দিচ্ছে কংগ্রেস। সরকার জানিয়েছে, আলোচনা হবে হোলির পরে।

বন্ধ করুন