বাড়ি > হাতে গরম > ওয়াশিংটনে গান্ধী মূর্তিতে আঁকা হল গ্র্যাফিটি, অভিযুক্ত ফ্লয়েড হত্যার প্রতিবাদীরা
ঢেকে দেওয়া হয়েছে মূর্তি (ছবি সৌজন্য টুইটার @ANI)
ঢেকে দেওয়া হয়েছে মূর্তি (ছবি সৌজন্য টুইটার @ANI)

ওয়াশিংটনে গান্ধী মূর্তিতে আঁকা হল গ্র্যাফিটি, অভিযুক্ত ফ্লয়েড হত্যার প্রতিবাদীরা

  • ঘটনায় ক্ষমা চেয়েছেন ভারতে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত কেন জাস্টার্স।

ওয়াশিংটনে ভারতীয় দূতাবাসের বাইরের মহাত্মা গান্ধীর মূর্তিতে স্প্রে-পেন্টিং করে আঁকা হল গ্র্যাফিটি। সেই ঘটনায় জর্জ ফ্লয়েড হত্যার প্রতিবাদীরা জড়িত বলে অভিযোগ। পরে পুলিশ মূর্তিটি ঢেকে দিয়েছে।

স্থানীয়দের উদ্ধৃত করে সংবাদসংস্থা এএনআই জানিয়েছে, #BlackLivesMatters-এর প্রতিবাদীরা গান্ধীর মূর্তিতে প্রথমে স্প্রে-পেন্টিং করে গ্র্যাফিটি আঁকেন। ঘটনায় তদন্ত শুরু করেছে স্মৃতিস্তম্ভের রক্ষার দায়িত্বে থাকা স্থানীয় পার্ক পুলিশ। তাদের তরফে মূর্তিটি ঢেকে দেওয়া হয়। 

পরে সেই ঘটনার জন্য ক্ষমা চেয়েছেন ভারতে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত কেন জাস্টার্স। একটি টুইটবার্তায় তিনি বলেন, ‘ওয়াশিংটন ডিসিতে গান্ধী মূর্তির অবমাননা দেখে অত্যন্ত দুঃখিত। আন্তরিকভাবে ক্ষমা চাইছি। পাশাপাশি জর্জ ফ্লয়েডের বীভৎস মৃত্যু এবং হিংসা ও ভাঙচুরে হতবাক হয়েছি। আমরা যে কোনও ধরনের কুসংস্কার এবং বৈষম্যের বিরুদ্ধে উঠে দাঁড়িয়েছি। আমরা ঘুরে দাঁড়াব এবং আরও ভালো হব।

উল্লেখ্য, মার্কিন পুলিশের হাতে কৃষ্ণাঙ্গ যুবক জর্জের মৃত্যুর ঘটনায় গত কয়েকদিন ধরেই রীতিমতো উত্তাল আমেরিকা। প্রায় মার্কিন শহরেই হিংসাত্মক প্রতিবাদ ছড়িয়ে পড়েছে। ভাঙচুর করা হয়েছে একাধিক জায়গা। চালানো হয়েছে তাণ্ডব। বিক্ষোভকারীদের বেপরোয়া মনোভাবে চিন্তিত প্রশাসনও। এমনকী বাইরে বিক্ষোভের জেরে রাতে শুক্রবার হোয়াইট হাউস অন্ধকার করে দেওয়া হয়। বেসমেন্টের বাঙ্কারে আশ্রয় নেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। যদি সেই দাবি মানতে চায়নি মার্কিন প্রশাসন।

বন্ধ করুন