বাড়ি > হাতে গরম > 'বোড়ো চুক্তির পর শান্তিকে সুযোগ' দিতে ভাঙল NDFB-এর ৪ গোষ্ঠী
অসমে আত্মসমপর্ণের দিন (ফাইল ছবি, সৌজন্য এএনআই)
অসমে আত্মসমপর্ণের দিন (ফাইল ছবি, সৌজন্য এএনআই)

'বোড়ো চুক্তির পর শান্তিকে সুযোগ' দিতে ভাঙল NDFB-এর ৪ গোষ্ঠী

  • ১৯৮৬ সালে ৩ অক্টোবর এনডিএফবি গঠনের আট বছর পরেই সংগঠনটি চার ভাগে বিভক্ত হয়ে গিয়েছিল।

অসম থেকে পৃথক বোড়োল্যান্ড তৈরির লক্ষ্যে ৩৪ বছর আগে তৈরি হয়েছিল ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট অফ বোড়োল্যান্ড (এনডিএফবি)। চলতি সপ্তাহে সেই চরমপন্থী সংগঠনের চারটি গোষ্ঠীই ভেঙে গেল।

গত জানুয়ারিতে কেন্দ্রের সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষর করে এনডিএফবি। চুক্তি মতো সেই মাসেই ১,৬১৫ জন জঙ্গি অস্ত্র তুলে রেখে সমাজের মূলস্রোতে ফিরে আসেন।

উল্লেখ্য, ১৯৮৬ সালে ৩ অক্টোবর এনডিএফবি গঠনের আট বছর পরেই সংগঠনটি চার ভাগে বিভক্ত হয়ে গিয়েছিল। একটি গোষ্ঠীর নেতৃত্বে ছিলেন বি সাওরাইগৌরা। বাকি তিনটি গোষ্ঠীর প্রধান ছিলেন গোবিন্দ বসুমাতারি, রঞ্জন দাইমারি ও ধীরেন্দ্র বোড়ো। গত সোমবার উদলগিরি জেলার সোনাইয়ের ক্যাম্পে যৌথ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে তিনটি গোষ্ঠী। একমাত্র হাজির ছিল না বসুমাতারির নেতৃত্বাধীন গোষ্ঠী। অনুষ্ঠানের পর যৌথ বিবৃতিতে তিনটি গোষ্ঠী বলে, 'শান্তি চুক্তির পর সশস্ত্র সংগ্রামে ইতি পড়েছে। তাই হিংসার রাস্তা ছেড়ে শান্তিকে সুযোগ দেওয়ার জন্য আমাদের গোষ্ঠী ভেঙে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।'

পরদিনই একই রাস্তায় হাঁটে অপর গোষ্ঠী তথা এনডিএফবি (প্রোগেসিভ)। একটি বিবৃতিতে বলা হয়, 'চুক্তি সম্পাদন করে যেহেতু আমাদের সংগঠন বোড়ো মানুষের রাজনৈতিক, সামাজিক, অর্থনৈতিক ও সাংস্কৃতিক সমস্যার সমাধান করতে পেরেছে, তাই সশস্ত্র আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার প্রয়োজন নেই বলেই মত দলীয় নেতৃত্বের।'

বন্ধ করুন