বড় স্বস্তি পেলেন পাকিস্তানের প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট ও সেনা প্রধান পারভেজ মুশারফ। তাঁর মৃত্যুদণ্ড বাতিল করে দিল আদালত। একই সঙ্গে রায় দিয়েছিল যে বিশেষ ট্রাইব্যুনাল, সেটিকে অসাংবিধানিক বলে গণ্য করল আদালত।

গত মাসের ১৭ তারিখ ইসলামাবাদের স্পেশাল কোর্ট এই রায় দেয়। ছয় বছরের শুনানির পর রায় দেয় আদালত। কিন্তু মাত্র এক মাসেই সেই রায় খারিজ হয়ে গেল। সর্বসম্মত ভাবে লাহোর হাইকোর্টের বেঞ্চ বলল যে মুশারফের বিরুদ্ধে গঠিত আদালত অসাংবিধানিক। আদালত এটাও বলেছে রাষ্ট্রদ্রোহিতার মামলা আইন মেনে দাখিল করা হয়নি।

এর আগে পাক সরকার বলেছিল যে ক্যাবিনেটের অনুমতি না নিয়েই স্পেশাল কোর্ট গঠিত হয়েছিল। সেই সময় সরকারে ছিলেন নওয়াজ শরিফ। কিন্তু তাঁর সম্মতি না নিয়েই এই আদালত গঠিত হয়েছিল। ১৯৯৯ থেকে ২০০৮ অবধি পাকিস্তানের শাসন করেছেন মুশারফ। বর্তমানে দুবাইতে স্বেচ্ছা নির্বাসনে আছেন তিনি।

২০১৩ সালে প্রাক্তন সেনাপ্রধানের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহিতার অভিযোগ আনে সরকার। এদিনেই এই সিদ্ধান্তে পর নিশ্চিত ভাবে অনেকটা স্বস্তি পাবেন মুশারফ।

বন্ধ করুন