বাংলা নিউজ > কর্মখালি > দশম ও দ্বাদশ শ্রেণির বোর্ড পরীক্ষা পিছোতে পারে ওড়িশায়, ইঙ্গিত শিক্ষামন্ত্রীর
করোনা আবহে ওড়িশায় ম্যাট্রিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা যে এই শিক্ষাবর্ষে দেরিতে হবে, তা অনিবার্য।
করোনা আবহে ওড়িশায় ম্যাট্রিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা যে এই শিক্ষাবর্ষে দেরিতে হবে, তা অনিবার্য।

দশম ও দ্বাদশ শ্রেণির বোর্ড পরীক্ষা পিছোতে পারে ওড়িশায়, ইঙ্গিত শিক্ষামন্ত্রীর

  • কমপক্ষে ৩ মাস অফলাইনে ক্লাস অনুষ্ঠিত না হলে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে না।

ওডিশায় দশম ও দ্বাদশ শ্রেণির বোর্ড পরীক্ষা চলতি শিক্ষাবর্ষে বিলম্বিত হতে পারে। এমনই ইঙ্গিত দিয়েছেন রাজ্যের স্কুল ও গণশিক্ষামন্ত্রী সমীর দাশ। তিনি জানিয়েছেন, কমপক্ষে ৩ মাস অফলাইনে ক্লাস অনুষ্ঠিত না হলে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে না।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, করোনা আবহে ম্যাট্রিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা যে এই শিক্ষাবর্ষে দেরিতে হবে তা অনিবার্য। পরীক্ষা নেওয়ার আগে তিন মাস অফলাইনে ক্লাস নেওয়া প্রয়োজন। আমরা পড়ুয়াদের কেরিয়ারের কথা ভেবে আমরা পরীক্ষা নিতে বাধ্য। তবে পড়ুয়াদের আমরা বঞ্চিত করব না। পরীক্ষার আগে কম করে ৩ মাস ক্লাসরুম শিক্ষা দিতে হবে পরীক্ষার্থীদের।

স্কুলগুলি চলতি মাসেই খোলার কথা ছিল। কিন্তু করোনা সংক্রমণের দ্বিতীয় প্রবাহের ভয়ে ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত স্কুল বন্ধ রাখার কথা ঘোষণা করে রাজ্য সরকার। শিক্ষা দফতর অনলাইন ক্লাসের বন্দোবস্ত করলেও দুর্বল ইন্টারনেট সংযোগ,স্মার্ট ফোনের অভাব ইত্যাদি কারণে তা ফলপ্রসূ হয়নি।

আর্থিক সমীক্ষা ২০১৮-১৯ এ দেখা গেছে ওড়িশার ২০% এরও বেশি গ্রামে মোবাইল সংযোগ নেই। প্রতি ১০০ জনের মধ্যে ২৮.২২ শতাংশ মানুষের ফোনে ইন্টারনেট সংযোগ নেই। গ্রামে মাত্র ১৬% এর ইন্টারনেট সংযোগ রয়েছে।

শিক্ষা মন্ত্রী জানিয়েছেন, পরীক্ষা নিয়ে এখনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি। তবে অন্যান্য রাজ্যের শিক্ষা বর্ষের সঙ্গে এ রাজ্যের শিক্ষা বর্ষের সামঞ্জস্য থাকবে। শিক্ষার্থীদের কখনই বছর নষ্ট হবে না।

বন্ধ করুন