বাংলা নিউজ > কর্মখালি > QS রাঙ্কিংয়ের প্রথম পঞ্চাশে ৩ IIT, ১৪৭তম যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়
এ বছরের QS রাঙ্কিংয়ে ভারতীয় প্রতিষ্ঠানগুলির মধ্যে শীর্ষস্থান দখল করল বম্বে IIT।

QS রাঙ্কিংয়ের প্রথম পঞ্চাশে ৩ IIT, ১৪৭তম যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়

  • QS রাঙ্কিংয়ে ভারতীয় প্রতিষ্ঠানগুলির মধ্যে শীর্ষ স্থান দখল করল বম্বে IIT। তার পরেই রয়েছে IIT দিল্লি ও IIT চেন্নাই।

এশীয় বিশ্ববিদ্যালয়গুলির QS রাঙ্কিংয়ে ভারতীয় প্রতিষ্ঠানগুলির মধ্যে শীর্ষস্থান দখল করল বম্বে IIT। তার পরেই রয়েছে IIT দিল্লি ও IIT চেন্নাই। এই নিয়ে দ্বিতীয় বার প্রথম ৫০ এশীয় প্রতিষ্ঠানের তালিকায় IITগুলি নিজেদের স্থান ধরে রেখেছে।

QS রাঙ্কিংয়ে বম্বে IIT-র স্থান ৩৭। IIT দিল্লি ৪৭ ও IIT ম্যাড্রাস ৫০ তম স্থানে রয়েছে। এছাড়া অন্যান্য ভারতীয় প্রতিষ্ঠানগুলির মধ্যে বেঙ্গালুরুর ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অব সায়েন্স (IISc) ৫৬তম স্থানে রয়েছে। IIT খড়গপুর আছে ৫৮ তম স্থানে।

প্রথম একশোর তালিকায় স্থান পেয়েছে দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয় (৭১), IIT কানপুর (৭২) এবং জওহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয় (৮১)।

পশ্চিম বাংলার বিশ্ববিদ্যালয়গুলির মধ্যে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে ১৪৭ স্থানে। তালিকার ১৫৪ নম্বরে ঠাঁই পেয়েছে কলকাতা বিশ্ব বিদ্যালয়।

গত বছরের মতো এবারও তালিকার শীর্ষ স্থানে রয়েছে ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব সিঙ্গাপুর (NUS)। দ্বিতীয় স্থানে আছে চিনের জিংহুয়া বিশ্ববিদ্যালয়। আর তৃতীয় স্থানে রয়েছে সিঙ্গাপুরের নান্যাং টেকনোলজিক্যাল ইউনিভার্সিটি (NTU)। চতুর্থ স্থানে আছে ইউনিভার্সিটি অফ হংকং।

রাঙ্কিং এজেন্সি জানিয়েছে, কোভিড পরিস্থিতির আগে প্রতিষ্ঠানগুলির কাজকর্ম অর্থাৎ পড়াশুনোর মান, খ্যাতি, শিক্ষার্থী-শিক্ষক অনুপাত, আন্তর্জাতিক রিসার্চ নেটওয়ার্ক, গবেষণা পত্রের সাইটেশন ইত্যাদি বিবেচনা করে তালিকা তৈরি করা হয়েছে। এ বছর মোট ৬৩৪টি প্রতিষ্ঠান এই তালিকায় স্থান পেয়েছে। গত বছর এই সংখ্যা ছিল ৫৫০। 

এবার ৯৩ টি নতুন প্রতিষ্ঠান তালিকায় স্থান পেয়েছে। অধিকাংশই জাপান, ভারত, দক্ষিণ কোরিয়া ও পাকিস্তানের প্রতিষ্ঠান। এদের মধ্যে ৬টি প্রতিষ্ঠান তালিকার প্রথম ২৫০ স্থানে জায়গা করে নিয়েছে।

বন্ধ করুন