বাড়ি > কর্মখালি > Final Term Exams 2020: পশ্চিমবঙ্গে ১-১৮ অক্টোবর পরীক্ষা, দেওয়া যাবে বাড়ি বসেই
ব্রেকিং নিউজ

Final Term Exams 2020: পশ্চিমবঙ্গে ১-১৮ অক্টোবর পরীক্ষা, দেওয়া যাবে বাড়ি বসেই

কলেজে সশরীরে হাজিরা দিয়ে পরীক্ষা দেওয়া যাবে না। সব পরীক্ষাই হবে অনলাইন ও অফলাইন মোডে।
কলেজে সশরীরে হাজিরা দিয়ে পরীক্ষা দেওয়া যাবে না। সব পরীক্ষাই হবে অনলাইন ও অফলাইন মোডে।

  • বাড়ি বসেই পড়ুয়ারা পরীক্ষা দিতে পারবেন। প্রয়োজনে বই দেখে পরীক্ষা দেওয়ারও অনুমতি দিয়েছে শিক্ষা দফতর।

সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ মেনে কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে চূড়ান্ত বর্ষের ফাইনাল টার্ম পরীক্ষার দিনক্ষণ ঘোষণা করল পশ্চিমবঙ্গ শিক্ষা মন্ত্রক।

জানা গিয়েছে, আগামী ১-১৮ অক্টোবরের মধ্যে ফাইনাল টার্ম পরীক্ষার আয়োজন করতে চলেছে রাজ্য সরকার। তবে এর জন্য পড়ুয়াদের পরীক্ষাকেন্দ্রে যাওয়ার দরকার নেই। বাড়ি বসেই তাঁরা পরীক্ষা দিতে পারবেন। এ ক্ষেত্রে বই দেখে পরীক্ষা দেওয়ারও অনুমতি দিয়েছে শিক্ষা দফতর।

করোনা পরিস্থিতির মাঝে চূড়ান্ত বছরের ফাইনাল টার্ম পরীক্ষা আয়োজনের বিরোধিতা করে এর আগে সুপ্রিম কোর্টে আবেদন জানিয়েছিল অ-বিজেপি শাসিত রাজ্যগুলি। কিন্তু সেই আবেদন খারিজ করে শীর্ষ আদালত জানিয়েছে, পরীক্ষা ছাড়া পড়ুয়াদের স্নাতক ডিগ্রি দেওয়া যাবে না। উলটে ইউজিসি-র নির্দেশিকাকে স্বীকৃতি দিয়ে চলতি বছরে এই পরীক্ষা আবশ্যিক ঘোষণা করে শীর্ষ আদালত। 

সেই নির্দেশ পাওয়ার পরেই রাজ্যে ফাইনাল টার্ম পরীক্ষা নেওয়ার প্রস্তুতি শুরু করেছে শিক্ষা মন্ত্রক। জানা গিয়েছে, আগামী ১ থেকে ১৮ অক্টোবরের মধ্যে রাজ্যের সমস্ত কলেজে ফাইনাল ইয়ারের ফাইনাল টার্ম পরীক্ষা আয়োজন করা হবে। পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হবে ৩১ অক্টোবরের মধ্যে। 

রাজ্য প্রশাসনের তরফে জানানো হয়েছে, কলেজে সশরীরে হাজিরা দিয়ে পরীক্ষা দেওয়া যাবে না। সব পরীক্ষাই হবে অনলাইন ও অফলাইন মোডে। প্রয়োজনে বই দেখেও পরীক্ষা দিতে পারবেন প্রার্থীরা। এমনকি, যে সমস্ত কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় এর আগে পরীক্ষা না নিয়ে ফল প্রকাশ করেছে, তাদেরও ফের পরীক্ষা নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এ দিকে, বাংলার দুটি বিশ্ববিদ্যালয়, প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ও প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয় জানিয়েছে, যে পদ্ধতিতে সেখানে পরীক্ষা নিয়ে ফল প্রকাশ করা হয়েছে, তা সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ লঙ্ঘন করেনি। তাই এই সমস্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের ফল বহাল রাখা হবে। অন্য দিকে, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়, বিদ্যাসাগর বিশ্ববিদ্যালয় ও রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের তরফে পরীক্ষা আয়োজনের জন্য অতিরিক্ত একমাস সময় চেয়ে নেওয়া হয়েছে।

বন্ধ করুন