বাড়ি > কর্মখালি > গ্রেস নম্বর দিয়ে পাশের প্রতিবাদে গৌড়বঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ে বিক্ষোভ অবস্থান
গ্রেস নম্বর দিয়ে পাশ করানোর প্রতিবাদে টানা ছয় দিন ধরে বিক্ষোভে নেমেছেন ছাত্রছাত্রীরা।
গ্রেস নম্বর দিয়ে পাশ করানোর প্রতিবাদে টানা ছয় দিন ধরে বিক্ষোভে নেমেছেন ছাত্রছাত্রীরা।

গ্রেস নম্বর দিয়ে পাশের প্রতিবাদে গৌড়বঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ে বিক্ষোভ অবস্থান

  • টানা ছয় দিন ধরে বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে অবস্থান বিক্ষোভ করছেন ছাত্রছাত্রীরা।

করোনা সংক্রমণ যখন ক্রমশ বেড়ে চলেছে তখনই বিক্ষোভ অবস্থান শুরু করেছেন গৌড়বঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারা। গ্রেস নম্বর দিয়ে পাশ করানোর প্রতিবাদে টানা ছয় দিন ধরে বিক্ষোভে নেমেছেন ছাত্রছাত্রীরা।

অভিযোগ, এ বছর থার্ড সেমিস্টারের পরীক্ষা নেওয়া হয়নি। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সিদ্ধান্ত নেয়, সকলকে গ্রেস নম্বর দিয়ে পাশ করানো হবে। এ ব্যাপারে রাজ্য সরকার ও উচ্চ শিক্ষা দফতরের কোনও অভিযোগ আসেনি। 

গ্রেস নম্বরের পাশ সার্টিফিকেট নিয়ে ভবিষ্যতে উচ্চ শিক্ষা ও চাকরিতে পড়ুয়ারা অসুবিধায় পড়তে পারেন কি না, সে প্রশ্নের সদুত্তর দিতোে ব্যর্থ বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। উলটে পড়ুয়ারা যাতে কর্তৃপক্ষের সঙ্গে দেখা করতে না পারেন, সে জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটকে তালা লাগিয়ে দেওয়া হয়েছে।

এর পরই বিশ্ব বিদ্যালয়ের মূল ফটকের সামনে অবস্থান বিক্ষোভ শুরু করেছেন থার্ড সেমিস্টারের শিক্ষার্থীরা। বিক্ষোভকারী এক শিক্ষার্থীর বক্তব্য, থার্ড সেমিস্টারের পরীক্ষা ডিসেম্বর, জানুয়ারি মাসে হয়ে যাওয়ার কথা। কিন্তু তা হয়নি। এরপর মার্চ মাস থেকে লক ডাউন শুরু হয়ে যায়। এই অবস্থায় থার্ড সেমিস্টারের পড়ুয়াদের কি হবে টা নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়িয়েছে। রাজ্য শিক্ষা দফতরের নির্দেশিকা ছাড়া বিশ্ব বিদ্যালয়ের গ্রেস নম্বর দিয়ে পাশ সিদ্ধান্তে ভবিষ্যতে বিপদের আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। এতেই আপত্তি তুলে অবস্থান বিক্ষোভ শুরু করেছেন তাঁরা।

গৌড় বঙ্গ বিশ্ব বিদ্যালয়ের ইসি কমিটির সদস্য শক্তিপদ পাত্র বলেন, বিশ্ব বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ কেন পড়ুয়াদের সঙ্গে কথা বলছেন না বা দেখা করছেন না তা বুঝতে পারছি না। বিষয়টি দুঃখ জনক।

তৃণমূল জেলা সভাপতি ও রাজ্য সভার সংসদ মৌসম নুর বলেন, বিষয়টি নিয়ে তিনি উচ্চশিক্ষা মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে কথা বলবেন। লক ডাউন পরিস্থিতির মধ্যে তিনি ছাত্র ছাত্রীদের অবস্থান বিক্ষোভ তুলে নেওয়ার আবেদন জানিয়ে ছেন।

বন্ধ করুন