বাড়ি > কর্মখালি > Jadavpur University Admission: কোন বিষয়ে কত নম্বর পেলে যাদবপুরের কলা বিভাগে আবেদন করা যাবে?

আগামী ৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতক স্তরে ভরতির জন্য অনলাইনে আবেদন প্রক্রিয়া চলবে। যা শুরু হয়েছে গত ১৪ অগস্ট থেকে। তারইমধ্যে কলা বিভাগে বাংলা, তুলনামূলক সাহিত্য, ইংরেজি, ইতিহাস, রাষ্ট্রবিজ্ঞান, দর্শন, সংস্কৃত ও সমাজবিজ্ঞানে আবেদনের জন্য ন্যূনতম যোগ্যতা জানাল বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

বিভিন্ন বিষয়ে ভরতির যোগ্যতা :

বাংলা

জেনারেল তালিকাভুক্ত পড়ুয়াদের উচ্চ মাধ্যমিকে মোট ৫০ শতাংশ নম্বর ও বাংলায় ৬০ শতাংশ নম্বর পেতে হবে।

বিশেষভাবে সক্ষম পড়ুয়াদের উচ্চ মাধ্যমিকে মোট ৪৭ শতাংশ ও বাংলায় ৫৭ শতাংশ নম্বর পেতে হবে।

তফশিলি জাতি, উপজাতিভুক্ত পড়ুয়াদের উচ্চ মাধ্যমিকে মোট ৩৭ শতাংশ ও বাংলায় ৪৫ শতাংশ নম্বর পেতে হবে।

ওবিসি-এ, ওবিসি-বি, কাশ্মীরি পরিযায়ী এবং খেলোয়াড়দের (স্পোর্টস কোটায় আলাদা যোগ্যতামান আছে) উচ্চ মাধ্যমিকে মোট ৪৫ শতাংশ ও বাংলায় ৫৪ শতাংশ নম্বর পেতে হবে।

তুলনামূলক সাহিত্য:

জেনারেল তালিকাভুক্ত পড়ুয়াদের উচ্চ মাধ্যমিকে মোট ৭০ শতাংশ নম্বর এবং প্রথম ও দ্বিতীয় ভাষায় ৭০ শতাংশ নম্বর পেতে হবে।

বিশেষভাবে সক্ষম ছাত্রছাত্রীদের উচ্চ মাধ্যমিকে মোট ৬৬ শতাংশ নম্বর এবং প্রথম ও দ্বিতীয় ভাষায় ৬৬ শতাংশ নম্বর পেতে হবে।

তফশিলি জাতি, উপজাতিভুক্ত পড়ুয়াদের উচ্চ মাধ্যমিকে মোট ৫২ শতাংশ নম্বর  এবং প্রথম ও দ্বিতীয় ভাষায় ৫২ শতাংশ নম্বর পেতে হবে।

ওবিসি-এ, ওবিসি-বি, কাশ্মীরি পরিযায়ী এবং খেলোয়াড়দের (স্পোর্টস কোটায় আলাদা যোগ্যতামান আছে) উচ্চ মাধ্যমিকে মোট ৬৩ শতাংশ এবং প্রথম ও দ্বিতীয় ভাষায় ৬৩ শতাংশ নম্বর পেতে হবে।

উচ্চ মাধ্যমিক বা সমতুল পরীক্ষায় প্রার্থীদের বাধ্যতামূলকভাবে বিষয় হিসেবে প্রতি দুটি ভাষা থাকতে হবে।

ইংরেজি:

জেনারেল তালিকাভুক্ত পড়ুয়াদের উচ্চ মাধ্যমিকে মোট ৭৫ শতাংশ নম্বর পেতে হবে।

বিশেষভাবে সক্ষম ছাত্রছাত্রীদের উচ্চ মাধ্যমিকে মোট ৭১ শতাংশ নম্বর পেতে হবে।

তফশিলি জাতি, উপজাতিভুক্ত পড়ুয়াদের উচ্চ মাধ্যমিকে মোট ৫৬ শতাংশ নম্বর পেতে হবে।

ওবিসি-এ, ওবিসি-বি, কাশ্মীরি পরিযায়ী এবং খেলোয়াড়দের (স্পোর্টস কোটায় আলাদা যোগ্যতামান আছে) উচ্চ মাধ্যমিকে মোট ৬৭ শতাংশ নম্বর পেতে হবে।

ইতিহাস:

জেনারেল তালিকাভুক্ত পড়ুয়াদের উচ্চ মাধ্যমিকে মোট ৬৫ শতাংশ নম্বর পেতে হবে।

বিশেষভাবে সক্ষম ছাত্রছাত্রীদের উচ্চ মাধ্যমিকে মোট ৬১ শতাংশ নম্বর পেতে হবে।

তফশিলি জাতি, উপজাতিভুক্ত পড়ুয়াদের উচ্চ মাধ্যমিকে মোট ৪৮ শতাংশ নম্বর পেতে হবে।

ওবিসি-এ, ওবিসি-বি, কাশ্মীরি পরিযায়ী এবং খেলোয়াড়দের (স্পোর্টস কোটায় আলাদা যোগ্যতামান আছে) উচ্চ মাধ্যমিকে মোট ৫৮ শতাংশ নম্বর পেতে হবে।

দর্শন:

জেনারেল তালিকাভুক্ত পড়ুয়াদের উচ্চ মাধ্যমিকে মোট ৫০ শতাংশ নম্বর পেতে হবে।

বিশেষভাবে সক্ষম ছাত্রছাত্রীদের উচ্চ মাধ্যমিকে মোট ৪৭ শতাংশ নম্বর পেতে হবে।

তফশিলি জাতি, উপজাতিভুক্ত পড়ুয়াদের উচ্চ মাধ্যমিকে মোট ৩৭ শতাংশ নম্বর পেতে হবে।

ওবিসি-এ, ওবিসি-বি, কাশ্মীরি পরিযায়ী এবং খেলোয়াড়দের (স্পোর্টস কোটায় আলাদা যোগ্যতামান আছে) উচ্চ মাধ্যমিকে মোট ৪৫ শতাংশ নম্বর পেতে হবে।

রাষ্ট্রবিজ্ঞান :

জেনারেল তালিকাভুক্ত পড়ুয়াদের উচ্চ মাধ্যমিকে মোট ৬৫ শতাংশ নম্বর পেতে হবে।

বিশেষভাবে সক্ষম ছাত্রছাত্রীদের উচ্চ মাধ্যমিকে মোট ৬১ শতাংশ নম্বর পেতে হবে।

তফশিলি জাতি, উপজাতিভুক্ত পড়ুয়াদের উচ্চ মাধ্যমিকে মোট ৪৮ শতাংশ নম্বর পেতে হবে।

ওবিসি-এ, ওবিসি-বি, কাশ্মীরি পরিযায়ী এবং খেলোয়াড়দের (স্পোর্টস কোটায় আলাদা যোগ্যতামান আছে) উচ্চ মাধ্যমিকে মোট ৫৮ শতাংশ নম্বর পেতে হবে।

সংস্কৃত:

জেনারেল তালিকাভুক্ত পড়ুয়াদের উচ্চ মাধ্যমিকে মোট ৬৫ শতাংশ নম্বর পেতে হবে।

বিশেষভাবে সক্ষম ছাত্রছাত্রীদের উচ্চ মাধ্যমিকে মোট ৬১ শতাংশ নম্বর পেতে হবে।

তফশিলি জাতি, উপজাতিভুক্ত পড়ুয়াদের উচ্চ মাধ্যমিকে মোট ৪৮ শতাংশ নম্বর পেতে হবে।

ওবিসি-এ, ওবিসি-বি, কাশ্মীরি পরিযায়ী এবং খেলোয়াড়দের (স্পোর্টস কোটায় আলাদা যোগ্যতামান আছে) উচ্চ মাধ্যমিকে মোট ৫৮ শতাংশ নম্বর পেতে হবে।

সমস্ত প্রার্থীদের উচ্চ মাধ্যমিক বা সমতুল্য পরীক্ষায় সংস্কৃত থাকতেই হবে।

সমাজবিজ্ঞান:

জেনারেল তালিকাভুক্ত পড়ুয়াদের উচ্চ মাধ্যমিকে মোট ৭৫ শতাংশ নম্বর পেতে হবে।

বিশেষভাবে সক্ষম ছাত্রছাত্রীদের উচ্চ মাধ্যমিকে মোট ৭১ শতাংশ নম্বর পেতে হবে।

তফশিলি জাতি, উপজাতিভুক্ত পড়ুয়াদের উচ্চ মাধ্যমিকে মোট ৫৬ শতাংশ নম্বর পেতে হবে।

ওবিসি-এ, ওবিসি-বি, কাশ্মীরি পরিযায়ী এবং খেলোয়াড়দের (স্পোর্টস কোটায় আলাদা যোগ্যতামান আছে) উচ্চ মাধ্যমিকে মোট ৬৭ শতাংশ নম্বর পেতে হবে।

অর্থনীতি (পাঁচ বছরের ইন্টিগ্রেটেড বি.এ. অনার্স ও এম.এ কোর্স) :

জেনারেল তালিকাভুক্ত পড়ুয়াদের উচ্চ মাধ্যমিকে মোট ৮০ শতাংশ নম্বর পেতে হবে। সঙ্গে অঙ্কে থাকতে হবে ৮০ শতাংশ নম্বর।

বিশেষভাবে সক্ষম ছাত্রছাত্রীদের উচ্চ মাধ্যমিকে মোট ৭৬ শতাংশ নম্বর পেতে হবে। সঙ্গে অঙ্কে থাকতে হবে ৭৬ শতাংশ নম্বর।

তফশিলি জাতি, উপজাতিভুক্ত পড়ুয়াদের উচ্চ মাধ্যমিকে মোট ৬০ শতাংশ নম্বর পেতে হবে। সঙ্গে অঙ্কে থাকতে হবে ৬০ শতাংশ নম্বর।

ওবিসি-এ, ওবিসি-বি, কাশ্মীরি পরিযায়ী এবং খেলোয়াড়দের (স্পোর্টস কোটায় আলাদা যোগ্যতামান আছে) উচ্চ মাধ্যমিকে মোট ৭২ শতাংশ নম্বর পেতে হবে। সঙ্গে অঙ্কে থাকতে হবে ৭২ শতাংশ নম্বর।

বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞপ্তিতে স্পষ্ট জানানো হয়েছে, ভরতি সংক্রান্ত কোনও তথ্য জানার জন্য পড়ুয়াকে ক্যাম্পাসে যেতে হবে।  যাবতীয় তথ্য মিলবে www.jaduniv.edu.in সাইটে।

বন্ধ করুন