বাংলা নিউজ > কর্মখালি > দশম ও দ্বাদশ শ্রেণির বোর্ড পরীক্ষায় কৃতীদের গাড়ি উপহার ঝাড়খণ্ড সরকারের
রাাজ্যের দশম এবং দ্বাদশ শ্রেণির বোর্ড পরীক্ষায় শীর্ষ স্থানাধিকারী শিক্ষার্থীদের গাড়ি উপহার দিলেন ঝাড়খণ্ডের শিক্ষামন্ত্রী জগন্নাথ মাহাত।
রাাজ্যের দশম এবং দ্বাদশ শ্রেণির বোর্ড পরীক্ষায় শীর্ষ স্থানাধিকারী শিক্ষার্থীদের গাড়ি উপহার দিলেন ঝাড়খণ্ডের শিক্ষামন্ত্রী জগন্নাথ মাহাত।

দশম ও দ্বাদশ শ্রেণির বোর্ড পরীক্ষায় কৃতীদের গাড়ি উপহার ঝাড়খণ্ড সরকারের

  • বোর্ড পরীক্ষায় সরকারি বিদ্যালয়ের শীর্ষ স্থানাধিকারী শিক্ষার্থীদের গাড়ি উপহার দিলেন ঝাড়খণ্ডের শিক্ষামন্ত্রী জগন্নাথ মাহাত।

ঝাড়খণ্ড একাডেমিক কাউন্সিলের (JAC) পরিচালিত দশম এবং দ্বাদশ শ্রেণির বোর্ড পরীক্ষায় শীর্ষ স্থানাধিকারী শিক্ষার্থীদের গাড়ি উপহার দিলেন ঝাড়খণ্ডের সরকারি বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের উচ্চশিক্ষা, রাজ্য শিক্ষা ও সাক্ষরতা বিভাগের মন্ত্রী জগন্নাথ মাহাত। রাঁচিতে রাজ্য বিধানসভা প্রাঙ্গনে এই উপহার তুলে দেওয়া হয়।

মন্ত্রী ম্যাট্রিকের ফলাফল ঘোষণার সময় রাজ্য শীর্ষস্থান অধিকারীদের গাড়ি উপহার দেওয়ার ঘোষণা করেছিলেন। JAC ১৮ সেপ্টেম্বর রাজ্য শীর্ষ স্থানাধিকারীদের নাম ঘোষণা করে। তবে ফলাফল ঘোষণার সময় কাউন্সিল টপারদের নাম ঘোষণা করেনি।

JAC র ঘোষণা অনুযায়ী, SRSSR উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী, সরিয়া গিরিডিহ, অমিত কুমার, যিনি দ্বাদশ শ্রেণির বোর্ড পরীক্ষায় বিজ্ঞান বিভাগে রাজ্য শীর্ষ স্থান দখল করে, তিনটি বিভাগেই সামগ্রিকভাবে শীর্ষে উঠে এসেছেন। কুমার মোট ৫০০ নম্বরের মধ্যে মোট ৪৫৭ নম্বর (৯১.৪%)পেয়েছেন।

কৃতীদের হাতে উপহারের গাড়ির চাবি তুলে দিলেন ঝাড়খণ্ডের শিক্ষামন্ত্রী ও বিধানসভার অধ্যক্ষ।
কৃতীদের হাতে উপহারের গাড়ির চাবি তুলে দিলেন ঝাড়খণ্ডের শিক্ষামন্ত্রী ও বিধানসভার অধ্যক্ষ।

একই ভাবে, নেতারহাট আবাসিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী, মনীষ কুমার কটিয়ার দশম শ্রেণির বোর্ড পরীক্ষায় শীর্ষস্থান অধিকার করে। কাতিয়ার ৫০০ নম্বরের মধ্যে মোট ৪৯০ (৯৮%) নম্বর পেয়েছেন।

শিক্ষামন্ত্রী এবং ঝাড়খণ্ড বিধানসভার স্পিকার রবীন্দ্রনাথ মাহাত গাড়ির চাবিগুলি অমিত ও মনীশের হাতে তুলে দেন।

মন্ত্রী বলেন, ‘পরের বছর থেকে, যারা শীর্ষ স্থান দখল করবে, তাদের উচ্চ শিক্ষার জন্য সমস্ত খরচ বহন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

ইন্টারমিডিয়েট টপার অমিত কুমার বলেছিলেন, ‘আমি উপহার পেয়ে খুব খুশি, যা আমি কখনও ভাবিনি। শিক্ষামন্ত্রীর এই কাজ অনেক শিক্ষার্থীকে উৎসাহিত করবে।’

ম্যাট্রিক টপার মনীশও একইরকম উচ্ছ্বসিত। মনীশ জানিয়েছে, ‘এটি একটি অনন্য অনুভূতি, যা আমি ভাষায় প্রকাশ করতে পারছি না। উপহারটি আমাকে আরও শিক্ষার জন্য কঠোর পরিশ্রম করতে উত্সাহিত করবে।’

বন্ধ করুন