বাড়ি > কর্মখালি > অনলাইন ক্লাসে স্বচ্ছন্দ নয় বহু পড়ুয়া, বলছে NCERT সমীক্ষা
তিন জনের মধ্যে একজনের বেশি শিক্ষার্থী অনলাইন ক্লাসকে কঠিন বা ভারী বলে মনে করে।
তিন জনের মধ্যে একজনের বেশি শিক্ষার্থী অনলাইন ক্লাসকে কঠিন বা ভারী বলে মনে করে।

অনলাইন ক্লাসে স্বচ্ছন্দ নয় বহু পড়ুয়া, বলছে NCERT সমীক্ষা

  • বিশেষ করে গণিত বোঝার ক্ষেত্রে অনলাইন ক্লাসের পড়ুয়ারা সমস্যায় পড়ছে।

প্রতি তিনজনের মধ্যে একজনেরও বেশি শিক্ষার্থী অনলাইন ক্লাসকে কঠিন বা ভারী বলে মনে করে। বিশেষ করে গণিত বোঝার ক্ষেত্রে অনলাইন ক্লাসের পড়ুয়ারা সমস্যায় পড়ছে। ন্যাশনাল কাউন্সিল ফর এডুকেশন রিসার্চ অ্যান্ড ট্রেনিং (NCERT) পরিচালিত একট সমীক্ষায় এই তথ্যই উঠে এসেছে।

সমীক্ষায় দেখা গেছে, পড়াশোনা বাধাপ্রাপ্ত হওয়ার অন্যতম প্রধান প্রতিবন্ধকতার মধ্যে রয়েছে দুর্বল ইন্টারনেট সংযোগ, বিদ্যুৎ সরবরাহ ব্যাহত হওয়া এবং ল্যাপটপ ও মোবাইলের মতো ডিভাইসগুলির অপ্রতুলতা।

অনলাইন শিক্ষা ব্যবস্থার কার্যকারিতা বোঝার জন্য NCERT কেন্দ্রীয় শিক্ষা মন্ত্রক দ্বারা পরিচালিত কেন্দ্রীয় বিদ্যালয় (KVs), জওহর নবোদয় বিদ্যালয় (NVS) এবং কেন্দ্রীয় মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড (CBSE) স্কুলগুলির শিক্ষার্থী এবং শিক্ষকদের ওপর সমীক্ষা করে।

NCERT KVs-এর ৯০০০ শিক্ষার্থীর ওপর সমীক্ষা চালায়। দেখা গিয়েছে, ৬% শিক্ষার্থী অনলাইনে ক্লাসকে ভারী বলে মনে করে। ২৪% পড়ুয়া একে কঠিন বলে মনে করে। বাকিদের কাছে এটি সন্তোষজনক বা আনন্দদায়ক।

শিক্ষক এবং অধ্যক্ষদের মধ্যে, ১% অনলাইন ক্লাসকে বোঝা বলে মনে করে, ১০% এর কাছে তা বেশি কঠিন মনে হয়। তবে সংখ্যাগরিষ্ঠই এই ব্যবস্থাকে সন্তোষজনক বলে মনে করে। ৬০০০ অভিভাবকদের মধ্যে প্রায় ৩০% অনলাইন মোডকে বোঝা বা কঠিন অনুভব করেছেন। বাকিরা ইতিবাচক মতামত দিয়েছেন।

JNV-র মধ্যেও, সমীক্ষা করে দেখা গেছে ৪০০০ এরও বেশি শিক্ষার্থীর মধ্যে ২৮% ক্লাসকে বোঝা বা কঠিন বলে মনে করেছে, বাকিরা বলেছে যে তারা সন্তুষ্ট এবং এই ক্লাস আনন্দদায়ক।

জরিপ করা ৪,৮০০ টিরও বেশি CBSE স্কুল শিক্ষার্থীর মধ্যে, ১২% বলেছে তারা অনলাইনে ক্লাসকে বোঝার মনে করছে এবং ২৬% বলেছে কঠিন। প্রায় ৩৫% পিতা-মাতাও অনুভব করেছেন যে অনলাইন মোডটি বোঝা বা কঠিন।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, প্রায় ২৭% শিক্ষার্থী স্মার্ট ফোন এবং ল্যাপটপের অপ্রাপ্তির কথা উল্লেখ করেছেন।

অনেক শিক্ষার্থী উল্লেখ করেছে বিজ্ঞান মূলত গণিত অনলাইনে বোঝা সবচেয়ে কঠিন। প্রায় ১৭% এর কাছে ভাষা শেখাত সমস্যার।

শিক্ষা মন্ত্রকের স্টুডেন্টস লার্নিং এনহানস মেন্ট গাইডলাইনগুলির অংশ হিসাবে সুপারিশ করা হয়ে যে গ্যাজেট নেই এমন শিক্ষার্থীদের আশেপাশের শিক্ষার্থীদের সাথে অনলাইন ক্লাস করার ব্যবস্থা করতে হবে। মুদ্রিত অধ্যয়নের উপকরণগুলি বিভিন্ন ডাক পরিষেবাগুলির মাধ্যমে বা শিক্ষকদের দ্বারা তাদের বাড়িতে সরবরাহ করা যেতে পারে। অনলাইন ক্লাসের সুবিধাগুলি নেই এমন শিক্ষার্থীদের সরকারের বৈদ্যুতিন বা প্রযুক্তিগত গ্যাজেট সরবরাহ করা উচিত। এটি কমিউনিটি মোবাইল ব্যাংকগুলিকেও সুপারিশ করেছে যার মাধ্যমে লোকেরা পুরানো অথচ কার্যকরী মোবাইল ফোন অনুদান দিতে পারে। অনলাইন ক্লাসের জন্য অ্যান্ড্রয়েড ফোন পাওয়ার জন্য সরকার, দাতব্য সংস্থাগুলি, সিএসআর এর অধীন সংস্থাগুলি এবং প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে সহায়তা নিতে পারে।

এই জাতীয় শিক্ষার্থীদের জন্য মোবাইল ক্লাস পরিচালনা করা যেতে পারে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, করোনা অতিমারীর কারণে পড়াশোনা যাতে বাধা প্রাপ্ত না হয় সেজন্য বেশিরভাগ রাজ্যগুলি ডাক যোগে শিক্ষার্থীদের বাড়ি বাড়ি পাঠ্য পুস্তক পাঠানোর পরিকল্পনা করছে।

বন্ধ করুন