বাংলা নিউজ > কর্মখালি > রেজিস্ট্রেশনের গেরোয় মাধ্যমিকে বসা অনিশ্চিত উত্তর দিনাজপুরের পড়ুয়াদের
মাধ্যমিক পরীক্ষায় বসা অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে উত্তর দিনাজপুরের নবম শ্রেণির প্রায় শতাধিক পড়ুয়ার।
মাধ্যমিক পরীক্ষায় বসা অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে উত্তর দিনাজপুরের নবম শ্রেণির প্রায় শতাধিক পড়ুয়ার।

রেজিস্ট্রেশনের গেরোয় মাধ্যমিকে বসা অনিশ্চিত উত্তর দিনাজপুরের পড়ুয়াদের

  • করোনা সংক্রমণের কারণে স্কুল বন্ধ থাকায় এবার পুজোর আগে সেপ্টেম্বরে রেজিস্ট্রেশন করা যায়নি। তা ছাড়া ফেব্রুয়ারিতে স্কুল বন্ধ থাকায় অনেক পড়ুয়া কাজের জন্য অন্য জেলায় চলে যায়। তারাও রেজিস্ট্রেশনের খবর জানতে পারেনি।

করোনা অতিমারীর কারণে মার্চ মাস থেকে বন্ধ স্কুল। ফলে সময় মতো রেজিস্ট্রেশন হয়নি। এর জন্য মাধ্যমিক পরীক্ষায় বসা অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে উত্তর দিনাজপুরের নবম শ্রেণির প্রায় শতাধিক পড়ুয়ার। বিপাকে পড়ুয়া থেকে অভিভাবক সকলেই।

মাধ্যমিকের জন্য সাধারণত নবম শ্রেণির পড়ুয়াদের পুজোর আগে রেজিস্ট্রেশন হয়ে যায়। কিন্তু করোনা সংক্রমণের কারণে স্কুল বন্ধ থাকায় এবার পুজোর আগে সেপ্টেম্বরে রেজিস্ট্রেশন করা যায়নি। সময়সীমা পেরিয়ে যাওয়ায় করোনেশন হাইস্কুল এবং ইসলামপুরের মিলনপল্লি হাইস্কুলে ডিসেম্বরের ১৬ ও ১৭ তারিখ বিশেষ ক্যাম্প গড়ে জেলার নবম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হয়। কিন্তু যথাযথ খবর না পাওয়ায় ওই অতিরিক্ত সময়েও রেজিস্ট্রেশন করতে পারেনি জেলার বহু পড়ুয়া।

তা ছাড়া ফেব্রুয়ারিতে স্কুল বন্ধ থাকায় অনেক পড়ুয়া কাজের জন্য অন্য জেলায় চলে যায়। তারাও রেজিস্ট্রেশনের খবর জানতে পারেনি। ইসলামপুর মহকুমার গোয়ালপোখর ও করনদীঘি ব্লকের একাধিক স্কুলের প্রায় ৭০ জন পড়ুয়া রেজিস্ট্রেশন করতে পারেনি। রায়গঞ্জে র শীত গ্রাম হাইস্কুল ও বিন্দল হাইস্কুলের বহু শিক্ষার্থীও রেজিস্ট্রেশন করতে পারেনি।

রেজিস্ট্রেশন করতে না পেরে এখন বিপদে পড়েছে পড়ুয়ারা। চিন্তায় রয়েছেন অভিভাবকেরাও। জেলা শিক্ষা দফতর অবশ্য জানিয়েছে, যে সব পড়ুয়া রেজিস্ট্রেশন করতে পারেনি তারা ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে শিলিগুড়িতে উত্তরবঙ্গের পর্ষদের দফতরে গিয়ে রেজিস্ট্রেশন করতে পারবে।

বন্ধ করুন