বাড়ি > কর্মখালি > ত্রিপুরায় অনলাইনে কলেজে ভর্তির আবেদন পাঠানো যাবে ১০ থেকে ২০ অগস্ট
ত্রিপুরায় অগস্টের ১০ থেকে ২০ তারিখের মধ্যে অনলাইনে কলেজে ভর্তির আবেদন জমা দেওয়া যাবে।
ত্রিপুরায় অগস্টের ১০ থেকে ২০ তারিখের মধ্যে অনলাইনে কলেজে ভর্তির আবেদন জমা দেওয়া যাবে।

ত্রিপুরায় অনলাইনে কলেজে ভর্তির আবেদন পাঠানো যাবে ১০ থেকে ২০ অগস্ট

  • পড়ুয়ারা ন্যূনতম ৬টি এবং সর্বোচ্চ ১৫টি কলেজে ভর্তির জন্য আবেদন পাঠাতে পারেন। অনলাইন পোর্টাল রেজিস্ট্রেশন ফি, ভর্তির ফি, কলেজ উন্নয়ন ফি এবং টিউশন ফি মকুব করা হয়েছে।

কোভিড অতিমারী রমরমার মাঝেই ডিগ্রি কলেজে অনলাইন ভর্তি প্রক্রিয়া চালু করল ত্রিপুরা সরকার। এই ব্যবস্থায় বাড়ি বসে শুধুমাত্র নিজের ছবি, উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় পাওয়া নম্বর সংবলিত মার্ক শিট, রোল নম্বর ও সইয়ের সাহায্যে অনলাইনে ভর্তি হওয়ার আবেদন করতে পারছেন স্নাতক কোর্সের পড়ুয়ারা। রেজিস্ট্রেশন পদ্ধতি সম্পূর্ণ করার পরে যোগ্যতা অনুযায়ী কলেজে ভর্তি হওয়া যাবে।  

ভর্তি হওয়ার সময় এলাকা অনুযায়ী কলেজে ভর্তির আবেদন জানানো যাবে। সেই সঙ্গে মোট তিন বার তাঁরা কলেজ পরিবর্তন করার সুবিধা পাবেন।

মঙ্গলবার সংবাদমাধ্যমকে ত্রিপুরার শিক্ষামন্ত্রী জানিয়েছেন, ‘পড়ুয়ারা ন্যূনতম ৬টি এবং সর্বোচ্চ ১৫টি কলেজে ভর্তির জন্য আবেদন পাঠাতে পারেন। বাড়ি থেকে না বেরিয়েই কলেজে ভর্তি হওয়া যাবে। মেধার উপরে নির্ভর করে কলেজে ভর্তি করা হবে।’

মন্ত্রী জানিয়েছেন, ‘পড়ুয়াদের অনলাইন পোর্টাল রেজিস্ট্রেশন ফি, ভর্তির ফি, কলেজ উন্নয়ন ফি এবং টিউশন ফি মকুব করা হয়েছে। শুধুমাত্র ইউনিভার্সিটি রেজিস্ট্রেশন ফি ও অন্যান্য সামান্য কিছু ফি দিতে হবে।’

জানা গিয়েছে, আগামী ৬ সেপ্টেম্বর থেকে অনলাইনে কলেজের ক্লাস নেওয়া শুরু হবে। অগস্টের ১০ থেকে ২০ তারিখের মধ্যে ভর্তির জন্য অনলাইনে আবেদন করা যাবে। ২৫ অগস্ট, ২৯ অগস্ট ও ৩ সেপ্টেম্বর মোট তিন দফায় ভর্তির জন্য মেধা তালিকা প্রকাশ করা হবে। ২৬ অগস্ট থেকে ৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ভর্তির কনফার্মেশন নোটিফিকেশন পাওয়া যাবে।

উচ্চশিক্ষা দফতরের আধিকারিকরা জানিয়েছেন, প্রতিটি কলেজ তাদের মেধা তালিকা প্রকাশ করবে, যার ফলে পড়ুয়ারা কোন কলেজে কত আসন ফাঁকা রয়েছে তা জানতে পারবেন, অথবা প্রয়োজনে অন্য কলেজে ভর্তির আবেদন করতে পারবেন।

বন্ধ করুন