বাড়ি > কর্মখালি > CBSE দশম ও দ্বাদশ শ্রেণির বাকি পরীক্ষা বাতিলের দাবিতে সুপ্রিম কোর্টে অভিভাবকরা
CBSEর তরফে বিজ্ঞপ্তি জারি করে বলা হয়, অবশিষ্ট ২৯টি বিষয়ের পরীক্ষা ১ জুলাই থেকে ১৫ জুলাইয়ের মধ্যে অনুষ্ঠিত হবে।
CBSEর তরফে বিজ্ঞপ্তি জারি করে বলা হয়, অবশিষ্ট ২৯টি বিষয়ের পরীক্ষা ১ জুলাই থেকে ১৫ জুলাইয়ের মধ্যে অনুষ্ঠিত হবে।

CBSE দশম ও দ্বাদশ শ্রেণির বাকি পরীক্ষা বাতিলের দাবিতে সুপ্রিম কোর্টে অভিভাবকরা

  • দাবি, করোনা আবহে পরীক্ষা দিতে বেরোলে অতিমারীর মুখে পরীক্ষার্থীদের ঠেলে দেওয়া হবে।

১ জুলাই থেকে ১৫ জুলাইয়ের মধ্যে অনুষ্ঠিতব্য CBSE-র দশম ও দ্বাদশ শ্রেণির অবশিষ্ট পরীক্ষা বাতিল করার আবেদন জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টে গেলেন চার অভিভাবক। 

পরীক্ষার্থীদের সুরক্ষার বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে সুপ্রিম কোর্টে জুলাই মাসে পরীক্ষা বাতিলের আবেদন জানিয়েছেন চার অভিভাবক। তাঁদের বক্তব্য, করোনা আবহে পরীক্ষা দিতে বেরোলে অতিমারীর মুখে পরীক্ষার্থীদের ঠেলে দেওয়া হবে। তাতে ঝুঁকি বাড়বে।

আবেদনে বলা হয়, এইমস-এর তথ্য অনুসারে, কোভিড -১৯ অতিমারী জুলাই মাসে সর্বোচ্চ পর্যায়ে পৌঁছবে। অথচ জুলাই মাসেই অবশিষ্ট পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

আবেদনকারীরা অনুরোধ করেছেন, ইতিমধ্যে যে পরীক্ষাগুলি হয়ে গিয়েছে তার প্রাপ্ত নম্বর এবং যে যে বিষয়ের পরীক্ষা বাকি আছে সেগুলিতে পরীক্ষার্থীদের অভ্যন্তরীণ মূল্যায়নের ভিত্তিতে নম্বর দিয়ে CBSE পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করা হোক।

এর আগে মার্চে র ১৮ তারিখ পর্যন্ত CBSE পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এরপর করোনার কারণে পরীক্ষা স্থগিত হয়ে যায়। ১৮ মে CBSEর তরফে বিজ্ঞপ্তি জারি করে বলা হয়, অবশিষ্ট ২৯টি বিষয়ের পরীক্ষা ১ জুলাই থেকে ১৫ জুলাইয়ের মধ্যে অনুষ্ঠিত হবে।

১৮ মে CBSE-র বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ হয় এবং তারপর কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রক ২৫ মে ঘোষণা করে ১৫,০০০ কেন্দ্রের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এরপরই সুপ্রিম কোর্টে পরীক্ষা বাতিলের আবেদন জানান অভিভাবকরা।

কেন্দ্রের পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা ও সুরক্ষা নির্দেশিকা মেনে করোনা সংক্রমণের মধ্যে পরীক্ষার আয়োজন করা একটি পরিশ্রমসাধ্য কাজ হবে বলে আবেদনকারীরা আদালতকে জানান। আইনজীবী ঋষি মালহোত্রার মাধ্যমে সুপ্রিম কোর্টে এই আবেদন জানানো হয়।

 

বন্ধ করুন