বাংলা নিউজ > কর্মখালি > Teacher's recruitment: রেকর্ড ৩২,৫৭৭ পদে শিক্ষক নিয়োগ বাংলাদেশে, রবিবার থেকে শুরু আবেদন
রেকর্ড ৩২,৫৭৭ পদে শিক্ষক নিয়োগ বাংলাদেশে, রবিবার থেকে শুরু আবেদন (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
রেকর্ড ৩২,৫৭৭ পদে শিক্ষক নিয়োগ বাংলাদেশে, রবিবার থেকে শুরু আবেদন (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)

Teacher's recruitment: রেকর্ড ৩২,৫৭৭ পদে শিক্ষক নিয়োগ বাংলাদেশে, রবিবার থেকে শুরু আবেদন

  • রেকর্ড সংখ্যক শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে।

এবার রেকর্ড সংখ্যক শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করল বাংলাদেশের প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর। প্রাথমিকের ইতিহাসে এটাই হচ্ছে সবচেয়ে বড় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি। সবমিলিয়ে ৩২,৫৭৭ সহকারী শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হবে।

শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে পূর্ব নির্ধারিত ৬০ শতাংশ মহিলা, ২০ শতাংশ পুরুষ এবং ২০ শতাংশ পোষ্য কোটা বহাল থাকছে। এগুলির মধ্যে আবার প্রতিটিতে ২০ শতাংশ করে বিজ্ঞান বিষয়ের শিক্ষক নিয়োগের কোটা রয়েছে।

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরে নিয়োগ শাখার সহকারী পরিচালক আতিক বিন সাত্তার বলেছেন, ‘নতুন করে ৩২,৫৭৭ জন শিক্ষক নেওয়া হবে। তার মধ্যে প্রাইমারি এডুকেশন ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্টের (পিইডিপি-৪) আওতায় প্রাক-প্রাথমিকে ২৫,৬৩০ জন এবং বিভিন্ন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকের শূন্যপদে ৬,৯৪৭ জন নিয়োগ করা হবে।’

এবার প্রার্থীদের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার রোল ও রেজিস্ট্রেশন নম্বর দিয়ে অনলাইনে আবেদন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হবে। আবেদনকারীদের শিক্ষাগত যোগ্যতা হিসেবে স্নাতক (সাম্মানিক), স্নাতক (পাস) বা সাম্মানিক ডিগ্রি থাকতে হবে। বুয়েট ও টেলিটক মোবাইল কোম্পানির সহায়তায় আবেদন গ্রহণ, কেন্দ্রে প্রশ্নপত্র পাঠানো, খাতা মূল্যায়ন ও ফল প্রকাশ করা হবে।

আবেদন পদ্ধতি :

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, আগামী ২৫ অক্টোবর (রবিবার) সকাল ১০ টা ৩০ মিনিট থেকে অনলাইনে আবেদন গ্রহণ শুরু হবে। শেষ হবে আগামী ২৪ নভেম্বর রাত ১১টা ৫৯ মিনিটে।

অনলাইনে আবেদনপত্র পূরণ করে জমা করার পর আবেদনপত্রের কপি প্রিন্ট করতে হবে। সঠিকভাবে পূরণ করা আবেদনপত্রের কপির ইউজার আইডি দিয়ে আবেদন ফি জমা দিতে হবে। একবার আবেদন ফি জমা দেওয়ার পর অ্যাপ্লিকেশন ফর্ম আর সংশোধন বা প্রত্যাহার করা যাবে না। শুধু ইউজার আইডিপ্রাপ্ত প্রার্থীরা ৭২ ঘণ্টার মধ্যে ফি প্রদান করতে পারবেন।

আবেদনকারীকে একটি ইউজার আইডি এবং পাসওয়ার্ড দেওয়া হবে। এই ইউজার আইডি এবং পাসওয়ার্ড প্রার্থীকে রেখে দিতে হবে। সার্ভিস চার্জ-সহ প্রার্থীকে পরীক্ষার ফি বাবদ ১১০ টাকা যে কোনও টেলিটক প্রি-পেইড মোবাইল নম্বর থেকে এসএমএসের মাধ্যমে যথাসময়ে টাকা দিতে হবে।

বয়সসীমা :

চলতি বছর ২০ অক্টোবর অনুযায়ী, প্রার্থীদের সর্বনিম্ন বয়স ২১ এবং ২৫ মার্চ পর্যন্ত সর্বোচ্চ ৩০ বছর হতে হবে। মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও শারীরিক প্রতিবন্ধীদের ক্ষেত্রে এই সীমা হবে ৩২ বছর।

শিক্ষাগত যোগ্যতা :

যে কোনও স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে দ্বিতীয় শ্রেণি বা সাম্মানিক সিজিপিএসহ স্নাতক বা সাম্মানিক বা সাম্মানিক ডিগ্রি থাকতে হবে।

আবেদন ফি :

১১০ টাকা। যার মধ্যে ১০০ টাকা আবেদন ফি ও ১০ টাকা টেলিটকের সার্ভিস চার্জ।

নির্বাচন পদ্ধতি :

আগে সহকারী শিক্ষক পদে নিয়োগের জন্য এমসিকিউ পদ্ধতিতে ৮০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষা ও ২০ নম্বরের মৌখিক পরীক্ষা নেওয়া হত। বাংলা, গণিত, ইংরেজি ও সাধারণ জ্ঞান বিষয়ে প্রশ্ন থাকত। তবে এবারের নিয়োগে কত নম্বরের পরীক্ষা হবে সে বিষয়টি এখনও চূড়ান্ত হয়নি। আগামিদিনে পরীক্ষার নির্ঘণ্ট অধিদফতরের ওয়েবসাইট ও বিভিন্ন পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে জানানো হবে বলে সূত্রের খবর।

যেসব কাগজপত্র লাগবে :

প্রার্থীরা লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়ার পর আবেদনপত্রের সঙ্গে অনলাইনে আবেদনের ফটোকপি, পাসপোর্ট সাইজের দু'কপি ছবি, প্রথম শ্রেণির গেজেটেড সরকারি কর্মকর্তা কর্তৃক অ্যাটাসটেড শিক্ষাগত যোগ্যতা সম্পর্কিত মার্কশিট ও সার্টিফিকেট এবং সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান/পৌরসভার মেয়র/সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর কর্তৃক প্রদত্ত নাগরিকত্ব সনদপত্রসহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সংশ্লিষ্ট জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসে জমা দিতে হবে।

বেতন :

১১০০০-২৬৫৯০ টাকা (গ্রেড-১৩) (জাতীয় বেতনক্রম, ২০১৫ অনুযায়ী)।

বন্ধ করুন