আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকেই এই কোর্স চালু করা হবে বলে জানানো হয়েছে।
আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকেই এই কোর্স চালু করা হবে বলে জানানো হয়েছে।

ত্রিপুরায় পড়ুয়াদের স্বনির্ভরতার লক্ষ্যে চালু হচ্ছে বেশ কিছু ভোকেশনাল কোর্স

  • রাজ্যের ৫৫টি স্কুলে ভোকেশনাল কোর্স শুরু করার কথা ঘোষণা করল ত্রিপুরা সরকার।

ছাত্রছাত্রীদের স্বনির্ভর করে তুলতে ইনফরমেশন টেকনোলজি, এগ্রিকালচার, রিটেইল ম্যানেজমেন্ট এবং ইলেকট্রনিকস ও হার্ডওয়ারের মতো বিষয়গুলিতে রাজ্যের ৫৫টি স্কুলে ভোকেশনাল কোর্স শুরু করার কথা ঘোষণা করল ত্রিপুরা সরকার। আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকেই এই কোর্স চালু করা হবে বলে জানানো হয়েছে।

খুব তাড়াতাড়ি টেন্ডার ডাকার কাজ শুরু হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষমন্ত্রী রতনলাল নাথ। তিনি জানিয়েছেন, পাশ করার পর যাতে কেউ বসে না থাকে সে বিষয়টির ওপর জোর দেওয়া হবে।

রাজ্য সরকার মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকের কাছে ২০২০-২১ শিক্ষা বর্ষে রাজ্যের ১০১টি স্কুলে ভোকেশনাল কোর্স চালু করার আবেদন জানিয়েছিল। কিন্তু ৫৫টি স্কুলের জন্য অনুমোদন মেলে।

রাজ্যের তরফে বিগত দুই শিক্ষাবর্ষে অর্থাৎ ২০১৮-১৯ ও ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে পর্যায়ক্রমে ৫০ ও ৮০টি স্কুলে ভোকেশনাল কোর্স শুরু করার প্রস্তাব পাঠানো হয়েছিল মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকের কাছে। কিন্তু ২৪ টি ও ৫৬টি স্কুলে র জন্য এর অনুমোদন মেলে।

ট্রেনিং দেওয়ার জন্য টেন্ডার ডেকে এজেন্সির মাধ্যমে মাস্টার ডিগ্রি থাকা ভোকেশনাল ট্রেনিং প্রোভাইডার নিয়োগ করা হবে।

মন্ত্রী জানান, নবম ও দশম শ্রেনীর পড়ুয়াদের এই ট্রেনিং দেওয়া হবে। দু বছরের এই কোর্স শেষে এজেন্সি জব ফেয়ারের আয়োজন করবে।

কোর্স শেষ হলে কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারের সংশাপত্র পাবে শিক্ষার্থীরা।

ত্রিপুরায় মোট ৪৩৯৮ টি সরকারি ও সরকারি সাহায্যপ্রাপ্ত স্কুল ও ৩৩৫টি বেসরকারি স্কুল আছে।

বন্ধ করুন