বাংলা নিউজ > কর্মখালি > West Bengal College Admission 2022: আজই শেষ সুযোগ, এই কাজটা না করলে কলেজে ভরতির ক্ষেত্রে বাড়বে সমস্যা
College Admission 2022: আজই শেষ হচ্ছে কলেজে ভরতির জন্য অনলাইনে আবেদন প্রক্রিয়া। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্যে অরবিন্দ যাদব/হিন্দুস্তান টাইমস)

West Bengal College Admission 2022: আজই শেষ সুযোগ, এই কাজটা না করলে কলেজে ভরতির ক্ষেত্রে বাড়বে সমস্যা

  • West Bengal College Admission 2022: ১৮ জুলাই রাজ্যের কলেজগুলিতে (স্নাতক স্তর) অনলাইনে আবেদন প্রক্রিয়া শুরু হয়। আজ শেষ হচ্ছে আবেদন প্রক্রিয়া। পড়ুয়ারা যে কলেজে ভরতি হতে চান, সেই কলেজের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে গিয়ে আবেদন করতে পারবেন।

আজই শেষ হচ্ছে কলেজ স্তরে ভরতির আবেদন প্রক্রিয়া। আজ (শুক্রবার, ৫ অগস্ট) পর্যন্ত রাজ্যের বিভিন্ন কলেজে অনলাইনে আবেদন চলবে। পড়ুয়ারা যে কলেজে ভরতি হতে চান, সেই কলেজের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে গিয়ে আবেদন করতে পারবেন।

গত ১০ জুন উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশিত হয়েছিল। তারপর ১৮ জুলাই রাজ্যের কলেজগুলিতে (স্নাতক স্তর) অনলাইনে আবেদন প্রক্রিয়া শুরু হয়। তখনও অবশ্য সেন্ট্রাল বোর্ড অফ সেকেন্ডারি এডুকেশন (সিবিএসই) দ্বাদশ শ্রেণি বা আইএসসি দ্বাদশ শ্রেণির ফলাফল প্রকাশিত হয়নি। পরবর্তীতে দুই বোর্ডের দ্বাদশ শ্রেণির ফল ঘোষণা করা হয়।

আরও পড়ুন: Central Govt Jobs: দেড় বছরে ১০ লাখ নিয়োগ করবে কেন্দ্র, গুরুত্ব গ্রুপ ‘বি’ ও 'সি' পদের চাকরিতে

কলেজে ভরতির প্রক্রিয়ার গুরুত্বপূর্ণ তারিখ (College Admission 2022)

  • কলেজে স্নাতক স্তরে ভরতির প্রথম মেধাতালিকা প্রকাশ: আগামী ১৬ অগস্টের মধ্যে প্রথম মেধাতালিকা প্রকাশিত হবে।
  • স্নাতক স্তরে ভরতি প্রক্রিয়া শেষ করার সময়সীমা: আগামী ১৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যে সেই প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ করতে হবে।
  • প্রথম সেমেস্টারের ক্লাস শুরুর সময়: আগামী ১৯ সেপ্টেম্বর।

কলেজে ভরতির প্রক্রিয়ার ক্ষেত্রে কী কী নিয়ম মানতে হবে (UG Admission 2022)?

  • মেধার ভিত্তিতে অনলাইনে ভরতির প্রক্রিয়া চলবে। ভরতির প্রক্রিয়ার সময় তথ্য যাচাই বা কাউন্সেলিংয়ের জন্য পড়ুয়াদের কলেজ বা বিশ্ববিদ্যালয়ে ডাকা যাবে না। ভরতির প্রক্রিয়ার সময় পড়ুয়াদের সশরীর কলেজে বা বিশ্ববিদ্যালয়ে যেতে হবে না।
  • গত বছরের মতোই অনলাইনে ভরতির প্রক্রিয়ার সময় তথ্য স্ক্যান বা আপলোডের জন্য আবেদনকারীদের থেকে কোনও টাকা নেওয়া যাবে না। কলেজ বা বিশ্ববিদ্যালয়ের আবেদনপত্র বা প্রসপেক্টাস দেওয়ার জন্য কোনও অর্থ নেওয়া যাবে না।
  • ইমেল বা টেলিকমিউনিকেশনের মাধ্যমে যোগ্য প্রার্থীদের সরাসরি জানাতে হবে।
  • অনলাইনে বা নির্দিষ্ট ব্যাঙ্কে ফি দিতে হবে। সেজন্য কলেজে যেতে হবে না।
  • যাচাইয়ের জন্য যোগ্য প্রার্থীদের তালিকা সংশ্লিষ্ট ব্যাঙ্কের হাতে তুলে দিতে হবে। মেধাতালিকার ভিত্তিতে ব্যাঙ্কে টাকা জমা দিতে হবে।
  • অনলাইনে আবেদনের জন্য যাবতীয় নথি আপলোড করতে হবে। যদি প্রয়োজন হয়, তাহলে কলেজে ভরতির পর নথি যাচাই করা যাবে। অনলাইনের ফর্মের সঙ্গে নথির মিল না থাকলে ওই পড়ুয়ার ভরতি প্রক্রিয়া বাতিল করে দেওয়া হবে।
  • সবপক্ষকে সরকারের যাবতীয় করোনাভাইরাস বিধি মেনে চলতে হবে।

বন্ধ করুন