বাংলা নিউজ > কর্মখালি > ইউক্রেন ফেরত পড়ুয়াদের কারা কোথায় পড়াশোনা বা ইন্টার্নশিপ করবেন? ঘোষণা মমতার

ইউক্রেন ফেরত পড়ুয়াদের কারা কোথায় পড়াশোনা বা ইন্টার্নশিপ করবেন? ঘোষণা মমতার

গত ১৬ মার্চে ইউক্রেন ফেরত পড়ুয়াদের সঙ্গে কথা বলছেন মুথ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। (ফাইল ছবি, সৌজন্যে পিটিআই)

যাঁরা ইউক্রেনে ষষ্ঠ বর্ষে পড়াশোনা (ডাক্তারি) করতেন, তাঁদের সরকারি মেডিকেল কলেজে ইন্টার্নশিপের সুযোগও দেওয়া হচ্ছে। অন্যান্য বর্ষের পড়ুয়াদের জন্য মেডিকেল কলেজের বন্দোবস্ত করে দিয়েছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার। যাঁরা ইঞ্জিনিয়ারিং বা ডেন্টাল নিয়ে পড়তেন, তাঁদের জন্যও বিশেষ বন্দোবস্ত করা হয়েছে।

দুশ্চিন্তা কাটল ইউক্রেন ফেরত পশ্চিমবঙ্গে মেডিকেল পড়ুয়াদের। রাজ্যের বিভিন্ন কলেজে তাঁদের পড়াশোনার বন্দোবস্ত করে দিল রাজ্য সরকার। যাঁরা ইউক্রেনে ষষ্ঠ বর্ষে পড়াশোনা (ডাক্তারি) করতেন, তাঁদের সরকারি মেডিকেল কলেজে ইন্টার্নশিপের সুযোগও দেওয়া হচ্ছে। এমনটাই জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

কোন বর্ষের ডাক্তারি পড়ুয়াদের কোথায় ভরতির সুযোগ দেওয়া হবে?

১) ষষ্ঠ বর্ষের পড়ুয়া: মোট ২৩ জন ফিরে এসেছেন। নিয়ম মোতাবেক তাঁদের সরকারি মেডিকেল কলেজে ইন্টার্নশিপের অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

২) পঞ্চম এবং চতুর্থ বর্ষের পড়ুয়া: পঞ্চম বর্ষের ৪৩ জন এবং চতুর্থ বর্ষের ৯২ জন পড়ুয়া ফিরে এসেছেন। তাঁদের বিভিন্ন মেডিকেল কলেজে ‘অবজার্ভিং সিট’ দেওয়া হচ্ছে। প্রতিটি কলেজে ১৫-২০ জনকে ভরতি করা হবে।

৩) তৃতীয় এবং দ্বিতীয় বর্ষের পড়ুয়া: তৃতীয় বর্ষের ৯৩ জন এবং দ্বিতীয় বর্ষের ৭৯ জন পড়ুয়া ফিরে এসেছেন। তাঁরা সরকারি মেডিকেল কলেজে প্র্যাকটিক্যাল ক্লাসে যোগ দেওয়ার সুযোগ পাচ্ছেন। প্রতিটি কলেজে ১৫-২০ জনকে ভরতি করা হবে।

৪) প্রথম বর্ষের পড়ুয়া: মোট ৭৮ জন পড়ুয়া এসেছেন। যাঁরা ২০২১ সালে অভিন্ন মেডিকেল প্রবেশিকায় উত্তীর্ণ হয়েছেন। তাঁদের মধ্যে ৬৯ জনকে অবিলম্বে বেসরকারি মেডিকেল কলেজের কাউন্সেলিংয়ে বসার ছাড়পত্র দেওয়া হচ্ছে। ম্যানেজমেন্ট কোটায় তাঁদের ভরতি নেওয়া হবে। ভরতির ফি, অন্যান্য চার্জে ছাড় দেওয়ার জন্য অনুরোধ করেছে রাজ্য সরকার।

ডেন্টাল এবং ভেটেরিনারি পড়ুয়াদের জন্য কী ব্যবস্থা?

১) একজনের পড়াশোনা পর্ব মিটে গিয়েছে। তিনি কলকাতায় সরকারি ডেন্টাল কলেজে ইন্টার্নশিপের সুযোগ পাবেন। বাকি দুই পড়ুয়া সরকারি মেডিকেল কলেজে অবজারভিং ক্লাস এবং প্র্যাকটিক্যাল ক্লাস করতে পারবেন। 

২) একজন পড়ুয়াকে পশ্চিমবঙ্গের পশু এবং মৎস্যবিজ্ঞান বিশ্ববিদ্যালয়ে ভরতির সুযোগ দেওয়া হয়েছে।

ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ুয়াদের জন্য কী ব্যবস্থা?

মোট ছ'জন পড়ুয়া এসেছেন। তাঁদের বেসরকারি ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজে আসন দেওয়া হয়েছে। দু'জন ইতিমধ্যে ভরতি হয়ে গিয়েছেন। বাকিদের ভরতির প্রক্রিয়া চলছে।

বন্ধ করুন