বাংলা নিউজ > ক্রিকেট > এশিয়া কাপ > নতুন বা পুরনো যে কোন বলেই উইকেট নেওয়াই আসল লক্ষ্য- স্পষ্ট দাবি মহম্মদ শামির

নতুন বা পুরনো যে কোন বলেই উইকেট নেওয়াই আসল লক্ষ্য- স্পষ্ট দাবি মহম্মদ শামির

মহম্মদ শামি।

শনিবার পাকিস্তানের বিরুদ্ধে এশিয়া কাপের অভিযান শুরু করবে ভারত। জসপ্রীত বুমরাহের বোলিং পার্টনার কে হবেন, তা দেখার অপেক্ষায় সবাই। তার আগে শামি সাফ জানিয়ে দিলেন, নতুন হোক বা পুরনো বল, বহু ব্যবহৃত বল নিয়ে বোলিং করতে তাঁর কোনও সমস্যা নেই। এই নিয়ে তাঁর কোনও ইগোও নেই।

শুভব্রত মুখার্জি: ভারতীয় পেস বোলিং আক্রমণের অন্যতম বড় অস্ত্র মহম্মদ শামি। ডানহাতি এই ভারতীয় পেসারের ঝুলিতে রয়েছে একাধিক ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতা। যে কোনও ফর্ম্যাটেই ভারতকে একাধিক ম্যাচ জিতিয়েছেন তিনি। সামনেই দেশের মাটিতে ওয়ানডে বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হতে চলেছে। সেখানে জসপ্রীত বুমরাহের সঙ্গে মিলে ভারতীয় দলের হয়ে বোলিং ওপেন করতে পারেন মহম্মদ শামি, এমনটাই আশা করা হচ্ছে বিশেষজ্ঞদের তরফে। তবে বিশ্বকাপের আগেই রয়েছে এশিয়া কাপের পরীক্ষা। বলা যায়, ফাইনালের আগে সেমিফাইনাল। তার আগে কতটা প্রস্তুত শামি? নতুন বল না পুরনো বল- কোন বলে বোলিং করতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন তিনি? এই সব প্রশ্নের সরাসরি উত্তর দিয়েছেন মহম্মদ শামি।

মহম্মদ শামির স্পষ্ট বক্তব্য, ‘দলের যখন যে রকম প্রয়োজন হবে আমি সেই মত বোলিং করব। আমার আলাদা করে কোনও ইগো নেই যে, পুরনো বলে বোলিং করব না বা নতুন বলেই শুধুমাত্র বোলিং করব। দল আমাকে যদি পুরনো কোকাবুরা বলেও বোলিং করার নির্দেশ দেয়, আমি সেই নির্দেশ মেনেই চলব।’ এশিয়া কাপে শনিবার ভারতের বিপক্ষ তাদের চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তান। পাকিস্তান ম্যাচে জসপ্রীত বুমরাহর সঙ্গে নতুন বল হাতে ভারতের হয়ে কে শুরু করবেন, সেই নিয়ে জল্পনা রয়েছে। মার্চ মাসে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ওডিআই সিরিজে অবশ্য নতুন বল হাতে শুরু করেছিলেন মহম্মদ শামি। তাঁর সঙ্গী ছিলেন মহম্মদ সিরাজ। সেই সিরিজে অবশ্য চোটের কারণে খেলতেই পারেননি জসপ্রীত বুমরাহ।

বিষয়টি নিয়ে বলতে গিয়ে পাকিস্তান ম্যাচের আগে স্টার স্পোর্টসকে মহম্মদ শামি বলেন, ‘আমার মনে কোনও দ্বিধা নেই। আমাকে নতুন বা পুরনো যে কোনও বল দেওয়া হোক না কেন, আমার তাতে বোলিং করতে কোন অসুবিধা নেই। আমরা তিন জনেই (শামি, বুমরাহ এবং সিরাজ) এই মুহূর্তে খুব ভালো বোলিং করছি। তাই এটা ম্যানেজমেন্টের উপর নির্ভর করবে যে, তারা কাকে খেলাবে বা খেলাতে চায়। এটা নির্ভর করছে যে, পরিস্থিতি কেমন থাকে। আমি নতুন বল পাব কিনা? ম্যাচের কোন সময়ে দলের আমাকে প্রয়োজন, যখন যে রকম পরিস্থিতিতেই আমাকে দলের প্রয়োজন তারা সব সময়ে আমাকে পাবে।’ ওয়ানডে ফর্ম্যাটে ৯০ ম্যাচ খেলে শামির সংগ্রহে রয়েছে ১৬২ উইকেট।ইকোনমি রেট ৫.৬০ রান প্রতি ওভার।

বন্ধ করুন