বাংলা নিউজ > ক্রিকেট > এশিয়া কাপ > IND vs PAK: বাবরকে আমি অনুসরণ করি- পাক ম্যাচের আগেই বিরোধী দলের অধিনায়ককে নিয়ে মুগ্ধতার কথা বললেন শুভমন

IND vs PAK: বাবরকে আমি অনুসরণ করি- পাক ম্যাচের আগেই বিরোধী দলের অধিনায়ককে নিয়ে মুগ্ধতার কথা বললেন শুভমন

শুভমন গিল।

শুভমান গিল পাকিস্তান অধিনায়ক বাবর আজমকে নিয়ে নিজের মুগ্ধতার কথাই বলেছেন। বাবর, যিনি বর্তমানে ওয়ানডে র‍্যাঙ্কিংয়ের এক নম্বর ব্যাটার, যাঁকে ‘বিশ্ব-মানের’ ব্যাটার হিসেবে বর্ণনা করা হয়ে থাকে, সেই তারকার প্রশংসা করতে গিয়ে শুভমন গিল বলেছেন যে, তাঁর ব্যাটিং শৈলী অনুসরণ করেন তিনি।

পাকিস্তানের বেশির ভাগ ক্রিকেটারই ভারতীয় প্লেয়ারদের মধ্যে বিরাট কোহলি এবং রোহিত শর্মার বড় ভক্ত। আর এটা গোপন কোনও বিষয়ও নয়। এমন কী পাকিস্তানের অধিনায়ক বাবর আজমও বারবার নিজের খেলার উন্নতির জন্য কোহলি এবং রোহিতের ভাবনাচিন্তা-খেলার ধরনও তিনি ফলো করে থাকেন। কিন্তু ভারতীয় দলের তরুণদের ভাবনা কী জানেন? তাঁদের মনেও কি বাবরের মতো একজনের জন্য একই অনুভূতি রয়েছে, যিনি এই মুহূর্তে বিশ্বের সেরা অল ফরম্যাট ব্যাটার হিসেবে বিবেচিত হয়েছেন? শুভমান গিল অবশ্য পাক অধিনায়কের প্রতি নিজের মুগ্ধতার কথাই বলেছেন।

বাবর, যিনি বর্তমানে ওয়ানডে র‍্যাঙ্কিংয়ের এক নম্বর ব্যাটার, যাঁকে ‘বিশ্ব-মানের’ ব্যাটার হিসেবে বর্ণনা করা হয়ে থাকে, সেই তারকার প্রশংসা করতে গিয়ে শুভমন গিল বলেছেন যে, তাঁর ব্যাটিং শৈলী অনুসরণ করেন তিনি। কলম্বোতে ভারত বনাম পাকিস্তান সুপার ফোর ম্যাচের আগে সাংবাদিকদের গিল বলেছেন, ‘অবশ্যই আমরা ওকে (বাবর আজমকে) অনুসরণ করি। যখন একজন খেলোয়াড় ভালো করছে, কেন তিনি তারা এত ভালো করছেন, তাঁর বিশেষত্ব কী, তা জানার জন্য সবাই সেই প্লেয়ারকে অনুসরণ করে। বাবরের ক্ষেত্রেও একই কথা। তিনি একজন বিশ্বমানের খেলোয়াড় এবং আমরা সবাই ওকে অনুসরণ করে থাকি। এবং ওকে আমরা শ্রদ্ধা করি।’

আরও পড়ুন: অন্যদের তুলনায় আমার ওয়ার্কলোড দুই বা তিনগুণ বেশি- স্পষ্টবাদী হার্দিক

পাকিস্তানের পেস বোলারদের নিয়েও মুখ খুলেছেন শুভমন। আগের ম্যাচে শাহিন শাহ আফ্রিদি এবং হরিস রউফদের দাপটে ভারতের টপ অর্ডার পুরো কেঁপে গিয়েছিল। শাহিন নতুন বলে রোহিত ও কোহলিকে বোল্ড করেছিলেন। গিল ও শ্রেয়স আইয়ারকে আউট করেছিল রউফ। পাকিস্তানের শক্তিশালী পেস আক্রমণের সঙ্গে মোকাবিলা করতে গিয়ে ভারতের সমস্যা সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করা হলে, গিল বলেন যে, পাকিস্তানের বিরুদ্ধে তাঁরা নিয়মিত না খেলার ফলেই সমস্যাটা হচ্ছে।

তাঁর মতে, ‘আপনি যখন এই স্তরে খেলছেন, আপনি আপনার ক্যারিয়ারের কোনও এক সময়ে আগে বাঁ-হাতি পেসারদের খেলেছেন। অন্য দলের তুলনায় আমরা পাকিস্তানকে সেভাবে খেলি না। ওদের বোলিং আক্রমণ খুব ভালো মানের। যখন আপনি এমন একটি শক্তিশালী দলের নিয়মিত মুখোমুখি হন না, যাদের ভালো বোলিং আক্রমণ রয়েছে, সেটা একটি পার্থক্য তৈরি করে দেয়। বড় মঞ্চে স্বাভাবিক ভাবেই কিছুটা হলেও সমস্যা তৈরি হয়।’

আরও পড়ুন: পাক ম্যাচের আগে ঐচ্ছিক অনুশীলনে ভারতের মাত্র ৭ জন, কোহিল, রোহিত, হার্দিকরা এলেনই না

ভারত শুধুমাত্র এশিয়া কাপ বা আইসিসি ইভেন্টে পাকিস্তানের সঙ্গে খেলতে পারে। গিল বলেছেন যে, তিনি আফ্রিদির বিরুদ্ধে এবং সাধারণ ভাবে পাকিস্তানের জোরে বোলারদের বিরুদ্ধে একটি উন্নত প্রদর্শনের জন্য বাঁহাতি থ্রো-ডাউন বিশেষজ্ঞ নুয়ান সেনেভিরত্নের বিরুদ্ধে অনুশীলন করেছিলেন

শুভমনের দাবি, ‘অবশ্যই ও (নুয়ান) প্রশিক্ষণে সাহায্য করেছে। গত ৭-৮ বছর ধরে আমাদের সঙ্গে ভ্রমণ করছে ও। এই ভিন্নতা পেয়ে ভালো লাগছে। আমাদের ডান-হাত বিশেষজ্ঞ (রঘু), সাইড-আর্ম বিশেষজ্ঞ (দয়ানন্দ গারানি) এবং বাঁহাতি বিশেষজ্ঞ আছে। যারা যে কোনও পরিস্থিতিতে আমাদের সাহায্য করে।’

গিল তখন ব্যাখ্যা করেছেন, কেন পাকিস্তানের ফাস্ট বোলাররা এমন প্রভাব ফেলছে, ‘ওরা খুব আলাদা ধরনের ফাস্ট বোলার এবং ওদের নিজস্ব বিশেষত্ব রয়েছে। শাহিন বল অনেক বেশি সুইং করতে পারে। নাসিম পেস সম্পর্কে এবং উইকেট থেকে সাহায্য নিতে পারে। ওরা বিভিন্ন পরিস্থিতিতে বিভিন্ন চ্যালেঞ্জ উপস্থাপন করে।’ গিল সঙ্গে যোগ করেছেন, ‘ওপেনার হিসেবে, আমাদের একটি ভালো শুরু করতে হবে এবং শুরু থেকেই আধিপত্য বিস্তার করতে হবে।’

বন্ধ করুন