বাংলা নিউজ > ভোটযুদ্ধ ২০২১ > অসম বিধানসভা নির্বাচন ২০২১ > ভোটের দিন ঘোষণার পরই অসমে BJP জোট ত্যাগ BPF-এর, যোগ কংগ্রেস জোটে
তখন সুখের দিন, হাগরামা মোহিলারির সঙ্গে নরেন্দ্র মোদী। (ফাইল ছবি, সৌজন্য টুইটার @HagramaOnline)
তখন সুখের দিন, হাগরামা মোহিলারির সঙ্গে নরেন্দ্র মোদী। (ফাইল ছবি, সৌজন্য টুইটার @HagramaOnline)

ভোটের দিন ঘোষণার পরই অসমে BJP জোট ত্যাগ BPF-এর, যোগ কংগ্রেস জোটে

  • ভোটর পাক্কা এক মাস আগে বিপিএফের সেই পদক্ষেপকে স্বাগত জানিয়েছে হাত শিবির।

প্রত্যাশিতই ছিল। শুধুমাত্র আনুষ্ঠানিক ঘোষণার অপেক্ষা ছিল। সেইমতো শনিবার বিজেপি শিবির ত্যাগ করল বড়োল্যান্ড পিপলস ফ্রন্ট (বিপিএফ)। পরিবর্তে কংগ্রেসের নেতৃত্বাধীন মহাজোটের হাত ধরে আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে লড়াই করা হবে বলে জানিয়েছেন বিপিএফ প্রধান হাগরামা মোহিলারি।

টুইটারে হাগরামা বলেছেন, ‘শান্তি, ঐক্য এবং উন্নয়নের স্বার্থে অসমের আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে মহাজোটের হাত ধরার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিপিএফ।’ সঙ্গে তিনি স্পষ্ট করে দেন, শাসক দল বিজেপির সঙ্গে কোনওরকম বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক বা জোট করা হবে না।

তবে বিজেপি আগেই স্পষ্ট করে দিয়েছিল, বিধানসভা নির্বাচনে বিপিএফের সঙ্গে লড়বে না গেরুয়া বাহিনী। বড়োল্যান্ড স্বশাসিত পরিষদে (বড়োল্যান্ড টেরিটোরিয়াল কাউন্সিল) রাজ্যপালের শাসন জারির পর থেকেই সেই তিক্ততা শুরু হয়েছিল। গত বছর স্বশাসিত পরিষদে পৃথকভাবে লড়াইয়ে পথে হেঁটেছিল বিপিএফ এবং বিজেপি। তাতে এককভাবে সবথেকে বেশি আসন পেলেও একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা ছিল না হাগরামার দলের কাছে। তিক্ততা ভুলিয়ে বিজেপির সঙ্গে জোটের প্রস্তাবও দিয়েছিলেল হাগরামা। কিন্তু সেই পরিস্থিতিতে গণ সুরক্ষা পার্টি (জিএসপি) এবং ইউনাইটেড পিপলস পার্টি লিবারেলের (ইউপিপিএল) সঙ্গে হাত মিলিয়ে পারিষদের ক্ষমতা দখল করে গেরুয়া শিবির। অবশেষে বিধানসভা নির্বাচনের নির্ঘণ্ট ঘোষণার পরই আনুষ্ঠানিকভাবে গেরুয়া শিবির ছেড়ে বেরিয়ে এসেছে বিপিএফ।

ভোটর পাক্কা এক মাস আগে বিপিএফের সেই পদক্ষেপকে স্বাগত জানিয়েছে হাত শিবির। কংগ্রেস প্রচার কমিটির চেয়ারম্যান প্রদ্যুৎ বরদলুই বলেন, 'রাজ্যজুড়ে অসম বাঁচার অহক যাত্রার এত ব্যাপক প্রভাব পড়েছে যে আমাদের পুরনো বন্ধু বড়োল্যান্ড পিপলস ফ্রন্ট দেখতে পেয়েছে কোন দিকে হাওয়া বইছে।' বিপিএফের পাশাপাশি যে জোটে সামিল আছে আরজেডি।

বন্ধ করুন