বাংলা নিউজ > ভোটযুদ্ধ > পুরভোটের লড়াই > রাজ্যের তিনটি পুরসভায় ত্রিশঙ্কু ফলাফল, বড় ফ্যাক্টর হয়ে দাঁড়াল নির্দল প্রার্থীরা
তিনটি পুরসভার ক্ষেত্রে দেখা যাচ্ছে ত্রিশঙ্কু পরিস্থিতি।

রাজ্যের তিনটি পুরসভায় ত্রিশঙ্কু ফলাফল, বড় ফ্যাক্টর হয়ে দাঁড়াল নির্দল প্রার্থীরা

  • এমনটা হবে কেউ ভাবতে পারেননি। তবে এখন যা পরিস্থিতি তাতে নানা সমীকরণ এখানে ঘুরপাক খাচ্ছে।

রাজ্যের ১০৮টি পুরসভা নির্বাচনের গণনা এখন মধ্যগগনে। ইতিমধ্যেই বেশিরভাগ পুরসভা দখলে এসেছে তৃণমূল কংগ্রেসের। সকাল থেকেই ঘাসফুল ঝড়ে বিরোধীরা খড়কুটোর মতো উড়ে গিয়েছে। তবে তিনটি পুরসভার ক্ষেত্রে দেখা যাচ্ছে ত্রিশঙ্কু পরিস্থিতি। এমনটা হবে কেউ ভাবতে পারেননি। তবে এখন যা পরিস্থিতি তাতে নানা সমীকরণ এখানে ঘুরপাক খাচ্ছে।

কোন তিনটি পুরসভা ত্রিশঙ্কু?‌ পুরসভা নির্বাচনের ফলাফল অনুযায়ী, পুরুলিয়া জেলার ঝালদা পুরসভা এবং মুর্শিদাবাদ জেলার বেলডাঙা পুরসভায় এখন ত্রিশঙ্কু পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। ঝালদায় মোট ১২টি ওয়ার্ড। এখানে তৃণমূল কংগ্রেস এবং কংগ্রেস ৫টি করে ওয়ার্ড জিতেছে। বাকি দুটি গিয়েছে নির্দলদের হাতে। ফলে এই নির্দলদের উপর অনেক কিছু নির্ভর করছে। বেলডাঙায় মোট ১৪টি ওয়ার্ড। সেখানে দেখা যাচ্ছে ৭টি তৃণমূল কংগ্রেস পেলেও ৩টি ওয়ার্ড পেয়েছে বিজেপি। আর ৪টি ওয়ার্ড গিয়েছে নির্দলদের কাছে। এগরা পুরসভাও ত্রিশঙ্কু হয়েছে। এখানে ১৪টি ওয়ার্ডের মধ্যে ৭টি তৃণমূল কংগ্রেস, ৫টি ওয়ার্ড বিজেপি এবং কংগ্রেস, নির্দল একটি করে ওয়ার্ড পেয়েছে।

এই ঝালদার ক্ষেত্রে নির্দলরা যেদিকে যাবে পুরসভা বোর্ড দখল করবে তারা। বেলডাঙার ক্ষেত্রেও একই সমীকরণ কাজ করছে। একই অবস্থা দেখা গিয়েছে এগরাতেও। সুতরাং নির্দল কাঁটা পুরসভা নির্বাচনে ফ্যাক্টর হয়ে গেল। এটা নিয়ে এখন জোর চর্চা শুরু হয়েছে রাজ্য–রাজনীতিতে। যদিও বিরোধীরা সারা রাজ্যে কোথাও তেমন উল্লেখযোগ্য ফলাফল করতে পারেনি।

উল্লেখ্য, ঘাটাল পুরসভা বিরোধী–শূন্য হয়ে তৃণমূল কংগ্রেসের দখলে গিয়েছে। রাজপুর সোনারপুর পুরসভার মোট ৩৫টি ওয়ার্ডের মধ্যে তৃণমূল কংগ্রেস জয়ী ৩৩টি ওয়ার্ডে। সিপিআইএম ১ এবং নির্দল ১। জলপাইগুড়ি এবং ময়নাগুড়ি পুরসভা তৃণমূল কংগ্রেসের দখলে। রিষড়া পুরসভা দখল তৃণমূল কংগ্রেসের। চুঁচুড়া পুরসভা তৃণমূল কংগ্রেসের দখলে। ভদ্রেশ্বর পুরসভায় জয়ী তৃণমূল কংগ্রেস। ইংরেজবাজার পুরসভা দখল করল তৃণমূল কংগ্রেস। এরকম পর পর পুরসভায় তৃণমূল কংগ্রেস ক্ষমতায় এলেও ত্রিশঙ্কু রইল তিনটিতে।

বন্ধ করুন