বাংলা নিউজ > ভোটযুদ্ধ > পুরভোটের লড়াই > তৃণমূলে ‘অন্তর্ঘাত’ নিয়ে বিস্ফোরক রাজুর ‘ক্লাস’ নেওয়ার ইচ্ছে প্রকাশ গৌতম দেবের
গৌতম দেব। ফাইল ছবি
গৌতম দেব। ফাইল ছবি

তৃণমূলে ‘অন্তর্ঘাত’ নিয়ে বিস্ফোরক রাজুর ‘ক্লাস’ নেওয়ার ইচ্ছে প্রকাশ গৌতম দেবের

  • রাজু বিস্ত দাবি করেন, ‘শিলিগুড়ির ৪৭টি আসনের মধ্যে ৩৬টিতেই এগিয়ে আছে বিজেপি। তৃণমূলের ১৫ জন আমাদের সঙ্গে সম্পর্ক রেখে চলেছেন। তাঁরা তৃণমূলে থেকে তৃণমূলকে হারাবেন।’

বাম গড় হিসেবে পরিচিত শিলিগুড়িতে জিততে মরিয়া তৃণমূল ও বিজেপি। এই আবহে উত্তরবঙ্গের এই শহরে পুরনিগমের ভোট ঘিরে ক্রমেই পারদ চড়ছে। এই পরিস্থিতিতে দার্জিলিঙের বিজেপি সাংসদ রাজু বিস্ত দাবি করেছিলেন যে, শিলিগুড়িতে যাতে বিজেপি জেতে তা নিশ্চিত করতে তলায় তলায় কাজ করছে তৃণমূলের ১৫ জন নেতা। রাজুর এহেন মন্তব্যের পাল্টা তোপ দেগে এবার শিলিগুড়ির প্রাক্তন পুর প্রশাসক গৌতম দেব বললেন, ‘ভোটের পর এক দিন রাজু বিস্তের ক্লাস নেব।’

এর আগে মঙ্গলবার রাজু বিস্ত দাবি করেন, ‘আমাদের রিপোর্টের তথ্য বলছে, শিলিগুড়ির ৪৭টি আসনের মধ্যে ৩৬টিতেই এগিয়ে আছে বিজেপি। শুধু তাই নয়, ৪৭টি আসনের মধ্যে তৃণমূলের ১৫ জন আমাদের সঙ্গে সম্পর্ক রেখে চলেছেন। তাঁরা তৃণমূলে থেকে তৃণমূলকে হারাবেন। এর চেয়ে বেশি কিছু বলা উচিত হবে না।’ রাজু বিস্তের এহেন মন্তব্য ঘিরে স্বভাবতই জোর জল্পনা শুরু হয় শিলিগুড়ির রাজনৈতিক মহলে।

তবে রাজু বিস্তের এই বিস্ফোরণ দাবিকে উড়িয়ে দিয়ে রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী গৌতম দেবের বক্তব্য, ‘রাজনীতিতে নতুন এসেছেন রাজু। আরএসএস-এর দফতরে গিয়ে প্রশিক্ষণ নেওয়া উচিত তাঁর। যুদ্ধক্ষেত্রে কি পাকিস্তানের জেনারেলকে বলে দেব, তোমার ওই লোকটা আমাকে সমর্থন করছে? এটাও তো একটা যুদ্ধ। তিনি তো তা হলে তৃণমূলের ভালো চাইছেন। না হলে এই সব কথা কেই প্রকাশ্যে বলে? এর অর্থ কী? তিনি কি আদতে আমাদেরই সমর্থন করতে চান? যুদ্ধক্ষেত্রে কেউ এমন লুজ বল দেয় না। তাঁকে বলতে চাই, নির্বাচনের পর এসে এক দিন ক্লাস নেব তাঁর।’

 

বন্ধ করুন