বাংলা নিউজ > ভোটযুদ্ধ > পুরভোটের লড়াই > ‘টাই’ হয়েছে ভোটে, টসের মাধ্যমে আসানসোলে নির্ধারিত হবেন কাউন্সিলর!
‘টাই’ হয়ে গিয়েছে। কে কাউন্সিলর হবেন, তা নির্ধারণে টস করা হবে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্যে এএনআই এবং টুইটার @BCCI)

‘টাই’ হয়েছে ভোটে, টসের মাধ্যমে আসানসোলে নির্ধারিত হবেন কাউন্সিলর!

  • কাউন্সিলর কে হবেন? ঠিক হবে কয়েনের মাধ্যমে।

‘টাই’ হয়ে গিয়েছে দুই প্রার্থীর। কে কাউন্সিলর হবেন, তা নির্ধারণে টস করা হবে। এমনই উদ্ভট ঘটনার সাক্ষী থাকতে চলেছে আসানসোলের ৩১ নম্বর ওয়ার্ড। নির্বাচন কমিশনের তরফে জানানো হয়েছে, দুপুর দুটোয় টস করবে নির্বাচন কমিশন।

আসানসোলের ৩১ নম্বর ওয়ার্ডে গণনার শেষে তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী আশা প্রসাদ এবং বাম প্রার্থী তনুশ্রী রায়ের ভোট সংখ্যা একই দাঁড়িয়েছে। তাঁরা ২,৩৫৮ টি ভোট পেয়েছিলেন। সেই পরিস্থিতিতে টসের মাধ্যমে জয়ী প্রার্থী তথা কাউন্সিলর বেছে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কমিশন। দুপুর দুটোয় সেই টস হবে। যিনি টসে জিতবেন, তাঁর ভাগ্যেই উঠবে 'শিরোপা'। অর্থাৎ হবেন কাউন্সিলার।

উল্লেখ্য, সোমবার আসানসোল-সহ চার পুরনিগমের নির্বাচনের গণনা চলছে। চার পুরনিগমেই নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে ক্ষমতায় আসতে চলেছে তৃণমূল। আপাতত আসানসোলের ৯১ টি ওয়ার্ডে ঘাসফুল শিবির এগিয়ে আছে বা জিতে গিয়েছে। বিজেপি সাতটি ওয়ার্ড এগিয়ে আছে বা জিতে গিয়েছে। আপাতত তিনটি ওয়ার্ডে এগিয়ে আছে বা জিতে যাওয়ার সম্ভাবনা আছে কংগ্রেসের। বামেদের ক্ষেত্রে সেইরকম ওয়ার্ডের সংখ্যা দুই। শিলিগুড়িতে আবার তৃণমূল জিতেছে ৩৭ টি আসন। বিজেপির ঝুলিতে পাঁচটি আসন গিয়েছে। চারটি আসন পেয়েছে বামেরা। একটি আসন গিয়েছে কংগ্রেসের ঝুলিতে। বিধাননগরে ৩৯ টি আসনে এগিয়ে আছে বা জিতে গিয়েছে তৃণমূল। চন্দননগরে ৩১ টি আসনে এগিয়ে আছে ঘাসফুল শিবির।

বন্ধ করুন