বাংলা নিউজ > ভোটযুদ্ধ > পুরভোটের লড়াই > মন্ত্রীর অনুরোধেও নির্দল প্রার্থীপদ ছাড়লেন না তৃণমূল নেতা, দল থেকে বহিষ্কার
ভানুপদ সাহার সমর্থনে প্রচার। ছবি সৌজন্যে ফেসবুক।

মন্ত্রীর অনুরোধেও নির্দল প্রার্থীপদ ছাড়লেন না তৃণমূল নেতা, দল থেকে বহিষ্কার

  • তৃণমূল থেকে বহিষ্কার করলেও তাতে অবশ্য বিশেষ গুরুত্ব দিতে রাজি নন ভানুপদ। তিনি বলেন, ‘সাধারণ মানুষের সমর্থনের আমি ভোটে দাঁড়িয়েছি।'

পুরভোটে তৃণমূলের প্রার্থী তালিকা প্রকাশ হতেই তীব্র অসন্তোষ তৈরি হয়েছে দলের মধ্যে। অনেকেই নির্দল প্রার্থী হিসেবে ভোটে দাঁড়িয়েছেন। তাদের প্রার্থীদের প্রত্যাহার করা তৃণমূল কড়া হুঁশিয়ারি দিলেও সকলেই কিন্তু মনোনয়ন প্রত্যাহার করেননি। অনেকেই নিজেদের সিদ্ধান্তে অনড় রয়েছেন। ফলে অনেকেই দল থেকে বহিষ্কার করছে তৃণমূল। প্রার্থীদের প্রত্যাহার না করার জন্য এবার তমলুক পুরসভার ৪ নম্বর ওয়ার্ডের নির্দল প্রার্থী তথা প্রাক্তন কাউন্সিলর ভানুপদ সাহাকে দল থেকে বহিষ্কার করল তৃণমূল।

তবে তৃণমূল থেকে বহিষ্কার করলেও তাতে অবশ্য বিশেষ গুরুত্ব দিতে রাজি নন ভানুপদ। তিনি বলেন, ‘সাধারণ মানুষের সমর্থনের আমি ভোটে দাঁড়িয়েছি। আমাকে দল থেকে বহিষ্কার করলেও আমি একজন সক্রিয় কর্মী। আমি সাধারণ মানুষের পাশে থেকে তাদের জন্য কাজ করতে চাই।’ ভানুপদর নির্দল প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন প্রত্যাহার নিয়ে কম জল ঘোলা হয়নি।

প্রথমে রাজ্যের মন্ত্রী সৌমেন মহাপাত্র বারবার তাকে নির্দল প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন প্রত্যাহার করার হুমকি দিয়েছিলেন। কিন্তু, সেই হুমকিতে কাজ হয়নি। নিজের সিদ্ধান্তে অনড় ছিলেন ভানুপদ সাহা। এরপর তার বাড়ি গিয়েও প্রার্থিপদ প্রত্যাহারের জন্য অনুরোধ জানিয়েছিলেন মন্ত্রী।

কিন্তু, সেই অনুরোধে কাজ না হয় শেষমেষ আজ শুক্রবার তৃণমূল থেকে তার সদস্যপদ খারিজ করেন মন্ত্রী। উল্লেখ্য, এলাকায় তিন বারের কাউন্সিলর ভানুপদ। এলাকায় তার যথেষ্ট জনসমর্থন রয়েছে। সেই কারণে তাকে বারবার নির্দল থেকে প্রার্থীপদ প্রত্যাহারের চেষ্টা করছে তৃণমূল। তিনি প্রার্থীপদ প্রত্যাহার না করায় ওই ওয়ার্ডে তৃণমূল কিছুটা অস্বস্তিতে পড়তে পারে বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

বন্ধ করুন