বাংলা নিউজ > ভোটযুদ্ধ > লোকসভার ভোটযুদ্ধ > Singur vs Sanand Comparison: সিঙ্গুর থেকে টাটা গিয়েছিল সানন্দে, গুজরাটের সেই জায়গার আজ কী হাল?

Singur vs Sanand Comparison: সিঙ্গুর থেকে টাটা গিয়েছিল সানন্দে, গুজরাটের সেই জায়গার আজ কী হাল?

৪০০ কোটি টাকার বিনিময়ে ন্যানোকে সানন্দে ১১০০ একর জমি দিয়েছিল তৎকালীন মোদী সরকার। (REUTERS)

৪০০ কোটি টাকার বিনিময়ে ন্যানোকে সানন্দে ১১০০ একর জমি দিয়েছিল তৎকালীন মোদী সরকার। এরপর ২০০৯ সালের মার্চে প্রথম উৎপাদন শুরু হয় এই ন্যানো গাড়ির। তবে এক দশকেই এই গাড়ির চাহিদার পতন ঘটে। রিপোর্ট অনুযায়ী, ২০১৮ সালের জুনে একটি ন্যানো গাড়ি উৎপাদিত হয়েছিল সানন্দের কারখানায়। ২০২০-তে উৎপাদন বন্ধ হয়ে যায়।

বাংলার শিল্পায়নের মানচিত্রকে বদলে ফেলতে পারত সিঙ্গুর। তবে আজ সিঙ্গুরে না আছে কোনও কারখানা, না সেখানকার ১০০ শতাংশ জমিতে চাষ সম্ভব। সিঙ্গুরবাসীর কথায় এখন আর সেভাবে শোনা যায় না 'টাটা'র নাম। তবে তাঁদের দীর্ঘশ্বাসে আজও আছে 'টাটা'। বরং বলা ভালো, আছে শিল্পের স্বপ্ন। তবে যে টাটা সিঙ্গুর ছেড়ে গিয়েছিল, তাদের জড়িয়ে ধরেছিল গুজরাট। সানন্দে গড়ে উঠেছিল ন্যানো কারখানা। ৪০০ কোটি টাকার বিনিময়ে ন্যানোকে সানন্দে ১১০০ একর জমি দিয়েছিল তৎকালীন মোদী সরকার। এরপর ২০০৯ সালের মার্চে প্রথম উৎপাদন শুরু হয় এই ন্যানো গাড়ির। তবে এক দশকেই এই গাড়ির চাহিদার পতন ঘটে। রিপোর্ট অনুযায়ী, ২০১৮ সালের জুন মাসে একটি মাত্র ন্যানো গাড়ি উৎপাদিত হয়েছিল সানন্দের কারখানায়। ২০১৮ সালের জুন মাসে ভারত জুড়ে নাকি বিক্রি হয়েছিল মাত্র ৩টি ন্যানো, আর রফতানি হয়েছিল ২৫টি। এই আবহে ২০২০ সালের এপ্রিল থেকে ন্যানোর উৎপাদন এবং বিক্রি পুরোপুরি বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল টাটা। সানন্দে এখন আর ন্যানো তৈরি হয় না। তবে সানন্দে ন্যানো না থাকলেও এসেছে কোকাকোলা থেকে মাইক্রন। (আরও পড়ুন: রাজভবনে শ্লীলতাহানির তদন্তে নয়া মোড়, বড় দাবি '১৫ মিনিট' নিয়ে, থানায় তলব ৩ জনকে)

আরও পড়ুন: NH2 হয়ে ছুটবে স্বপ্ন? টাটাকে 'জমি না দেওয়া' সিঙ্গুর তাকিয়ে NHAI'র প্রকল্পের দিকে

সিঙ্গুরে টাটার ন্যানো কারখানা তৈরি হলে যে এখানেও এমনই উন্নয়ন হত কি না, তা বলা কঠিন। তবে সানন্দের অবস্থা এখন কেমন আছে? রিপোর্ট অনুযায়ী, ২০০৯ সালে টাটা সানন্দে পা রাখার পরই সেখানকার জমির দাম আকাশছোঁয়া হয়ে গিয়েছিল। প্রতি বিঘা জমির দাম বেড়ে ৪০ লাখ টাকার মতো হয়ে গিয়েছিল বলে দাবি করা হয়েছে বিজেস স্ট্যান্ডার্ডের এক রিপোর্টে। ২০০৬ সালে যখন সিঙ্গুরে টাটা এসেছিল, তখন সেই সানন্দে বিঘা প্রতি জমির দাম ছিল মাত্র ৫ থেকে ৬ লাখ। বিজনেস স্ট্যান্ডার্ডেক এক রিপোর্টে দাবি করা হয়, গুজরাট সরকারের থেকে জমি পাওয়ার পরও ২০০৯ থেকে ২০১২ সালের মধ্যে টাটা সেখানকার ১২ হাজার কৃষকের থেকে জমি কিনেছিল। এবং সেই সব কৃষকদের অনেকেই জমি বিক্রি করেই কোটিপতি হয়ে গিয়েছিলেন।

আরও পড়ুন: বাংলায় এসে সরকারি চাকরি, ডিএ নিয়ে তির ছুড়লেন হিমন্ত, বোঝালেন ৩৬-এর ফারাক

পরে ২০১৮ সালে গুজরাট ইন্ডাস্ট্রিয়াল ডেভেলপমেন্ট কর্পোরেশন সেখানকার ৮০০ কৃষককে কমার্শিয়াল প্লট দিয়েছিল। ২০১০ সালে তৎকালীন মোদী সরকার এই নীতি কার্যকর করেছিল। আর মোদী যখন দেশের প্রধানমন্ত্রী, তখন তাঁর রাজ্যে সেই নীতি কার্যকর করা হয়েছিল। আর সেখানে আজও প্রায় ১৮ বছর পরে সিঙ্গুরের কৃষকদের মাথায় হাত। পরবর্তী প্রজন্ম সেভাবে কৃষিকাজে আগ্রহী নয়। ক্ষেত মজুররা সেভাবে আ কাজ পান না। জমি ফেরত পাওয়া বহু কৃষকের মাটির নীচে এখনও রড, সিমেন্ট। বর্ষার সময় জমিতে জল দাঁড়িয়ে পড়ে। প্রতিশ্রুতি মতো তৃণমূল সরকার কৃষকদের জমি তো ফিরিয়েছে, তবে তা এখন চাষযোগ্য করে দেওয়ার দাবি সিঙ্গুরবাসীর মুখে মুখে।

আরও পড়ুন: বাংলায় ক্লিন সুইপ 'দেখছেন' মোদী, শাহের গলায় আবার 'নির্দিষ্ট আসন সংখ্যা'

এদিকে ২০২৩ সালের ডিসেম্বরেই গুজরাট সরকারের সঙ্গে কোকাকোলার চুক্তি হয়েছে। সানন্দে তাদের ৩০০০ কোটি টাকার ইউনিট তৈরির প্রকল্পের জন্য জমি পাবে কোকাকোলা। ন্যানোর চাকা হয়ত আর গড়ায় না। তবে সানন্দে উন্নয়নের ধারা বন্ধ হয়নি। এদিকে শুধু কোকাকোলা নয়, সানন্দ আগামী কয়েক বছরে 'সেমিকন্ডাক্টর চিপ' তৈরির হাব হতে পারে ভারতের। সেমিকন্ডাক্টর ক্ষেত্রে ভারতকে আত্মনির্ভর বানাতে ২০২৩ সালের জুন মাসে গুজরাটের সরকারের সঙ্গে মিলে কেন্দ্র চুক্তি করেছিল মাইক্রনের সঙ্গে। এই বহুজাতিক সংস্থা সানন্দে তাদের কারখানা থেকে ২০২৫ সালের মধ্যে সেমিকন্ডাক্টর উৎপাদন শুরু করে দিতে পারে বলে জানা গিয়েছে।

 

ভোটযুদ্ধ খবর

Latest News

আগামিকাল কেমন কাটবে আপনার? বৃষ্টির সঙ্গে কি আসবে সুখবর? জানুন ২০ জুনের রাশিফল বর্ষা এলেও কি ঝমঝমিয়ে বৃষ্টি হবে দক্ষিণবঙ্গে? তার আগে ৫০ কিমিতে ঝড়, কমবে পরে ‘‌আগুন বইকে পোড়াতে পারে, জ্ঞানকে নয়’‌, নয়া ক্যাম্পাস উদ্বোধন করে মন্তব্য মোদীর ‘অনেক হয়েছে… ’, টাইট পোশাকে ফুটে উঠেছে বেবি বাম্প, কীসের জন্য তর সইছে না দীপিকার 6,4,6,6,2,6: ঝোড়ো হাফ-সেঞ্চুরির পথে এক ওভারে ৩০ রান সুরজের, ১৯ বলে ৫০ ত্রিপাঠীর হজ যাত্রায় গিয়ে মৃত্যু ৬৪৫ পুণ্যার্থীর, তার মধ্যে ৬৮ জন ভারতীয়, পারদ ৫০ ডিগ্রি 6 ওভার শেষে South Africa-র স্কোর 64/1 ২০ দিন পর থেকে সদয় হবেন রাহু! দারুণ সময় আসবে এই রাশিগুলির জীবনে, কারা তারা ‘সি ক্রুজ’ চালু হবে দিঘায়! কী কী থাকবে? জগন্নাথ মন্দিরের উদ্বোধন কবে? সেজে উঠবে সন্তানকে চকোলেট সিরাপ খাওয়াচ্ছেন? দেখুন এই ভিডিয়ো, ঘিন ঘিন করবে গোটা শরীর

T20 WC 2024

'ভারতীয় না পাকিস্তানি যেই হোক', রউফ কাণ্ডে প্যাঁচ রিজওয়ানের, সমঝে দিল নেটপাড়া ‘পিচ কেমন?’ সুপার আটের ম্যাচ খেলতে নামার আগে রোহিতকে বড় আপডেট দিলেন বুমরাহ নবিকে ছিটকে দিয়ে ১ নম্বর T20 অল-রাউন্ডার হলেন স্টইনিস, ব্যাটিংয়ে বিশ্বসেরা সূর্য আমেরিকাকে ছোট দল মানতে নারাজ মার্করাম, সুপার আটের ম্যাচে কী স্ট্র্যাটেজি থাকছে? নেপাল অধিনায়কের সঙ্গে ঝামেলার জের, সুপার আটে খেলতে নামার আগে শাস্তির কোপে তানজিম কিউয়িদের কেন্দ্রীয় চুক্তি ছাড়লেন,সাদা বলের নেতৃত্ব থেকেও ইস্তফা দিলেন উইলিয়ামসন ভক্তের সঙ্গে উত্তপ্ত বাক্য বিনিময়, প্রায় হাতাহাতি, কী সাফাই দিলেন হ্যারিস রউফ? ১২ বার ১০০-র নীচে অল-আউট! T20 বিশ্বকাপের ইতিহাসে কখনও এতবার এরকম ঘটনা ঘটেনি এবার জয়ের জন্য কুলদীপকে দলে চাই ভারতের! T20 বিশ্বকাপ নিয়ে পরামর্শ ধোনিদের কোচের বিশ্বকাপে গড়াপেটায় জড়ানোর চেষ্টা উগান্ডার খেলোয়াড়কে! সামনে এল চাঞ্চল্যকর তথ্য

Copyright © 2024 HT Digital Streams Limited. All RightsReserved.